সর্বশেষ আপডেট : ৭ মিনিট ৮ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ মাঘ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

হত্যার উদ্দেশ্যে ‘প্রশিক্ষিত গোষ্ঠীর’ হামলা: ঢাবি ভিসি

শিক্ষাঙ্গন ডেস্ক::

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকালে তার বাসভবনে যে হামলা ও ভাঙচুর হয়েছে, সেটাকে ‘স্বাভাবিক’ মনে করছেন না ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচার্য ড. মো. আখতারুজ্জামান। তার মতে, এটা প্রাণনাশের উদ্দেশে হামলা হয়েছে বলেই প্রতীয়মান হয়েছে।

সোমবার (৯ এপ্রিল) সকালে উপাচার্য তার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ অভিমত জানান। রোববার (৮ এপ্রিল) বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত ঢাবি ক্যাম্পাস ও শাহবাগ এলাকায় পুলিশের সঙ্গে সংঘাতে জড়ায় আন্দোলনকারীরা। এক পর্যায়ে উপাচার্যের বাসভবনে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়।

উপাচার্য ড. আখতারুজ্জামান বলেন, গতকাল রাতে যে তাণ্ডব চালানো হয়েছে, এতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষার্থী সংশ্লিষ্ট নয়, একটি প্রশিক্ষিত ও সন্ত্রাসী গোষ্ঠী লাশের রাজনীতির জন্য এ তাণ্ডব চালিয়েছে। এই হামলা স্বাভাবিক নয়। হত্যার উদ্দেশেই এ হামলা চালানো হয়েছে।

তিনি বলেন, এই প্রশিক্ষিত সন্ত্রাসী গোষ্ঠী বিডিআর বিদ্রোহের ঘটনার মতো মুখোশ বেঁধে সরকার পতন, রাষ্ট্রপতন এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) পতনের চেষ্টা চালিয়েছিল। এক্ষেত্রে সরকারের আইন-কানুন আছে, সে অনুযায়ী নিশ্চয় ব্যবস্থা নেবে সরকার।

এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবেই চলবে বলেও জানান উপাচার্য।

হামলার পরপরই উপাচার্য সাংবাদিকদের বলেছিলেন, যারা হামলা করেছে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র হতে পারে না। তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নয়, মুখোশধারী-বহিরাগত। আর কারা হামলা করেছে, তা আপনারা জানেন, দেখেছেন।

কোটা সংস্কারের দাবিতে রোববার বিকেলে গণপদযাত্রা কর্মসূচি শুরু করে ঢাবি, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি), ঢাকা কলেজসহ রাজধানীর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। এক পর্যায়ে তারা অবরোধ করে শাহবাগ মোড়। রাস্তা থেকে তাদের হটিয়ে দিতে রাতে জলকামান ও কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে পুলিশ।

শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার অভিযোগ তুলে মধ্যরাতেই রাস্তায় নামে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হলের ছাত্রীরা। এতে উত্তাল হয়ে পড়ে গোটা ক্যাম্পাস। এসময় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক শাহবাগে এসে সাংবাদিকদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আলোচনায় বসার জন্য দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে নির্দেশ দিয়েছেন।
কিন্তু এরমধ্যেই ঢাবি ক্যাম্পাসে উপাচার্যের বাসভবনে ওই হামলা চালানো হয়। সেসময় দু’টি মাইক্রোবাস ও মসজিদের সামনে মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগও করা হয়। পরে আন্দোলনকারীদের হটিয়ে দিতে আরও কড়া অবস্থানে যায় পুলিশ। আন্দোলনকারীরা দোয়েল চত্বরে অবস্থান নিলে সেখান থেকেও তাদের হটিয়ে দেওয়া হয়। সকালে কোটা সংস্কার আন্দোলনের বিরুদ্ধে মিছিল করে ক্ষমতাসীন দলের সহযোগী সংগঠন ছাত্রলীগ।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: