সর্বশেষ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সুইডেনে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

প্রবাস ডেস্ক:: যথাযথ মর্যাদা ও উৎসবমুখর পরিবেশে সুইডেনস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে স্থানীয় সময় বুধবার উদযাপিত হয়েছে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস ২০১৮। বর্ণাঢ্য এ আয়োজনে অধিক সংখ্যক অতিথিদের সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে দূতাবাস পৃথক অভ্যর্থনার আয়োজন করে।

প্রথম অভ্যর্থনাটি অনুষ্ঠিত হয় ২৬ মার্চ বিকাল পাঁচটায় স্টকহোম শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত শেরাটন হোটেলে, যেখানে মূলত সুইডিশ সরকারি অফিসসমূহের পদস্থ কর্মকর্তা, সংসদ সদস্য, স্টকহোমস্থ বিভিন্ন দেশের দূতাবাসের কূটনীতিকরা, কর্পোরেট ও মিডিয়া হাউসের প্রতিনিধি এবং ব্যবসায়িরা অংশগ্রহণ করেন।

পাশাপাশি সুইডেনস্থ বাংলাদেশ কমিউনিটি হতে কিছু সংখ্যক প্রবাসী মুক্তিযোদ্ধা ও সামাজিকভাবে গণমান্য ব্যক্তিবর্গকে উক্ত অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রণ করা হয়। সুইডেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. নাজমুল ইসলাম ও দূতাবাসের কর্মকর্তারা আগত অতিথিদের স্বাগত জানান।

সুইডেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. নাজমুল ইসলাম ও দূতাবাসের কর্মকর্তারা আগত অতিথিদের স্বাগত জানান। অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রথা অনুযায়ী দু’দেশের জাতীয় সঙ্গীত বাজানো হয়।

রাষ্ট্রদূত তার স্বাগত বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের চিত্র সংক্ষিপ্তভাবে তুলে ধরেন এবং বাংলাদেশ-সুইডেন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বর্তমান অবস্থা নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন। এ প্রসঙ্গে তিনি গত বছরের জুন মাসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফলপ্রসূ সুইডেন সফরের প্রসঙ্গ তুলে ধরেন যা ছিল সরকার প্রধান পর্যায়ে দু’দেশের মধ্যে প্রথম ও একমাত্র দ্বি-পাক্ষিক সফর। সম্প্রতি জাতিসংঘ কর্তৃক বাংলাদেশের স্বল্পোন্নত দেশের পর্যায় হতে উত্তরণের যোগ্যতা অর্জনের স্বীকৃতিও যথাযথ গুরুত্ব পায় রাষ্ট্রদূতের বক্তব্যে। অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের উপর একটি সংক্ষিপ্ত অডিও ভিজ্যুয়াল প্রদর্শন করা হয় এবং বিখ্যাত সুইডিশ মিউজিশিয়ান ও গিটারবাদক ম্যাাগনাস রোজেন বাংলা দেশত্ববোধক গান ‘জন্ম আমার ধন্য হ’ল মাগো’ এর সাথে সুইডিশ ফোক মিউজিকের মিশ্রণ ঘটিয়ে পাঁচ মিনিটের ‘মেডলি’ পরিবেশন করেন যা অতিথিদের মুগ্ধ করে। খাবারের মেন্যুতে ঐতিহ্যবাহী বাংলাদেশি খাবার আগতদের প্রশংসা কুড়ায়। অভ্যর্থনা হলের সামনে বাংলাদেশের বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী যথা জামদানি শাড়ি, নকশি কাঁথা, সিরামিকস, পাট ও চামড়াজাত পণ্য ও অন্যান্য হস্ত ও কুটিরশিল্প জাত পণ্যের প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। অতিথিরা অনুষ্ঠানের সাজ-সজ্জাসহ সার্বিক আয়োজনের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিলেন।

২৭ মার্চ বিকালে দূতাবাস চত্বরে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সম্মানে দ্বিতীয় অভ্যর্থনাটি অনুষ্ঠিত হয়। এ উপলক্ষে দূতাবাস চত্বর মনোরম সাজে সজ্জিত করা হয় এবং রাষ্ট্রদূত আগত অতিথিদের উষ্ণ অভিনন্দন জানান। তিনি সংক্ষিপ্ত স্বাগত বক্তব্যে প্রবাসীদের সাথে দূতাবাসের নিবিড় সম্পর্ক বিরাজমান থাকায় সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং দূতাবাসের বিভিন্ন আয়োজনে প্রবাসীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণকে সাধুবাদ জানান। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশকে ২০২১ সালের মধ্যে একটি মধ্যম আয়ের দেশে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে একটি উন্নত দেশে পরিণত করার প্রচেষ্টায় প্রবাসীদের অধিকতর সম্পৃক্ত হওয়ার আহবান জানান।



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে. এ. রাহিম. সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪
ই-মেইল: [email protected]

Developed by: