সর্বশেষ আপডেট : ৬ মিনিট ২৭ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

একাদশ কেমুসাস বইমেলার সপ্তম দিন

অধুনালুপ্ত সাপ্তাহিক সমাচার ও দৈনিক জালালাবাদী পত্রিকার সম্পাদক, কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রবীন সাংবাদিক আব্দুল ওয়াহিদ খান বলেছেন, আমি এই কেমুসাসের সাথে বিগত ৫৫ বছর থেকে সম্পৃক্ত। কিছুদিন সাধারণ সম্পাদকও ছিলাম। এখানের অনেক কিছুর সাথে আমার স্মৃতি-বিস্মৃতি জড়িত। এই প্রতিষ্ঠান দিনদিনে সমৃদ্ধ হতে চলছে। একাদশ কেমুসাস বইমেলায় আজকে বিতর্ক অনুষ্ঠানে যারা এসেছেন তাদের উচিৎ এই সংসদ সম্পর্কে অবগত হয়ে এর সাথে সম্পৃক্ত হওয়া। বিতর্ক পরিবার থেকে রাষ্ট্র পর্যন্ত জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে একটি গুরুর্তপূর্ণ বিষয়। বিভিন্ন বিষয়ে বিতর্ক অতীতে ছিলো, আজও আছে এবং আগামীতেও থাকবে। তোমরা বিতর্ক শিল্পকে ধারণ করতে পারলে অনেক জায়গায় সফলতা নিয়ে আসতে পারবে।

মঙ্গলবার বিকেল চারটায় একাদশ কেমুসাস বইমেলা মঞ্চে বিতর্ক প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের নির্বাহী সদস্য লেখক সৈয়দ মোহাম্মদ তাহেরের সভাপতিত্বে এবং বইমেলা উপকমিটির সদস্যসচিব সৈয়দ মবনুর সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি কবি মুহিত চৌধুরী, কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের পাঠাগার সম্পাদক মাহবুব ফেরদৌস, মাসিক শাহজালাল পত্রিকার সম্পাদক রুহুল ফারুক।

স্বাগত বক্তব্যে কেমুসাসের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক দেওয়ান মাহমুদ রাজা চৌধুরী বলেন, যারা বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছো আমি আশা করি তোমরা একদিন এদেশের পার্লামেন্টারী রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। তোমাদের উচিৎ কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের পাঠাগারে আসা এবং বই পড়া। এখানে পঞ্চাশ হাজার থেকে বেশি বই রয়েছে।
বিশেষ অতিথি কবি মুহিত চৌধুরী বলেন, বিতর্ক মানুষের চিন্তাকে বিকশিত করে। বিতর্ক রাজনীতিতে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এখানে জয়-পরাজয় বড় কথা নয়। অংশগ্রহনই গুরুত্বপূর্ণ।
বিশেষ অতিথি মাহবুব ফেরদৌস বলেন, নেতৃত্বশূন্যতার এই সময়ে তোমাদের বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ আমাদেরকে আশার আলো দেখাচ্ছে। আমাদের বিশ^াস তোমরা আগামীতে এদেশের নেতৃত্বে আসবে এবং গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।
বিশেষ অতিথি রুহুল ফারুক বলেন, বিতর্ক একটি শিল্প, এই শিল্পকেও আয়ত্বে আনতে হয়। যারা প্রতিযোগিতায় অংশ নিলেন তারা আশা করি একদিন সফল হবেন।

সভাপতির বক্তব্যে সৈয়দ মোহাম্মদ তাহের বলেন, বিতর্ক মানুষকে অনেক সময় মূল বিষয়ের কাছাকাছি নিয়ে যায়। কেমুসাসের বিতর্ক প্রতিযোগিতায় যারা অংশ নিলেন তারাও মূলের দিকে গিয়ে একদিন সফল হবেন এই প্রত্যাশা আমাদের।
বিতর্ক প্রতিযোগিতায় ‘ক’ এবং ‘খ’ গ্রুপে মোট ১৬টি দল অংশ নিয়েছে। তাদের মধ্যে প্রথম ও দ্বিতীয় রাউন্ড প্রতিযোগিতা হয়েছে। আজ ফাইনাল রাউন্ড অনুষ্ঠিত হবে। বিচারক প্যানেলে ছিলেন, মো. মাজহারুল বিল্লাহ লোচন, কিশোয়ার মোশাররফ, মাহবুব মুহাম্মদ, হেলাল হামাম, ফিদা হাসান, মাহফুজুর রহমান।
আজ বইমেলা শুরু হবে বিকাল ৩টা থেকে। সন্ধে সাড়ে ছয়টায় মহান স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভা। – বিজ্ঞপ্তি


এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: