সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৪৮ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

একাদশ কেমুসাস বইমেলার চতুর্থ দিন

দৈনিক সিলেটের ডাকের নির্বাহী সম্পাদক এবং কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবদুল হামিদ মানিক বলেছেন, প্রতিযোগিতা একটি শিল্প। এতে অভিভাবকরা উৎসাহ দেন বলেই সন্তানেরা অংশগ্রহণে উৎসাহবোধ করে। পুরস্কার বড়কথা নয়, অংশ গ্রহণই বড়। প্রতিযোগিতা দুই ধরনের হয়ে থাকে, বস্তু ও অবস্তুগত। আর অবস্তুগত প্রতিযোগিতাই ভাল মানসিকতার ব্যক্তি তৈরি করে। বক্তৃতা হচ্ছে আর্ট বা শিল্প। এটা শিখতে হয়। কোন কিছু শিখানো যায় না, নিজে শিখতে হয়। মেধাভিত্তিক উন্নত মানসিকতাসম্পন্ন ব্যক্তি তৈরিতে কেমুসাসের বইমেলা ও বিভিন্ন প্রতিযোগিতার আয়োজন প্রশংসার দাবিদার।

শনিবার বিকেল চারটায় একাদশ কেমুসাস বইমেলা মঞ্চে নির্ধারিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথাগুলো বলেন। কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সেক্রেটারি অধ্যাপক দেওয়ান মাহমুদ রাজা চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং বইমেলা উপকমিটির সদস্যসচিব সৈয়দ মবনুর সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন মোহাম্মদ জাফর ইকবাল। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির সেক্রেটারি আব্দুর রহমান জামিল এবং নাট্যালোক সিলেটের উপদেষ্টা বাবুল আহমদ।

সভাপতির বক্তব্যে দেওয়ান মাহমুদ রাজা চৌধুরী উপস্থিত প্রধান অতিথি, বিশেষ অতিথি, প্রতিযোগী সবাইকে অভিনন্দন জানিয়ে কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের উক্তি বর্ণনা করে বলেন, ‘জীবনই শিল্প, শিল্পই জীবন’। সব কর্মকান্ডেই শিল্প থাকা উচিত। একটি সা¤্রাজ্যকে ধ্বংশের জন্য সেই সা¤্রাজ্যের সাহিত্য ও সংস্কৃতি ধ্বংসই যথেষ্ট। এদেশ ও জাতিকে রক্ষার জন্য কেমুসাস সুদীর্ঘকাল থেকে সাহিত্য ও সংস্কৃতির চর্চা করে আসছে।
বিশিষ্ট নাট্যকার বাবুল আহমদ বলেন, বইমেলা নিছক কোন বাণিজ্যমেলা নয়, এটা মননশীল মানুষদের মিলন মেলা। প্রতিবছর কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদ বইমেলার পাশাপাশি বিভিন্ন প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে, যা আমাদের ছেলেমেয়েরকে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে মেধাকে সমৃদ্ধ করার পথে উৎসাহ দিয়ে থাকে। আজকের নির্ধারিত বক্তৃতার বিষয় ‘শিশুশ্রম সুষ্ঠ বিকাশের অন্তরায়’, ‘প্রযুক্তির কু-প্রভাব’, এবং ‘সাহিত্য ও বুদ্ধিবৃত্তিক উন্নয়নে কেমুসাসের ভূমিকা’ ইত্যাদি, যা বিষয়ের দিকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। যারা এই বিষয়গুলোতে বক্তৃতায় অংশ নিচ্ছেন তারা অবশ্যই মেধাশীল বলে আমরা মনে করি।

আব্দুর রহমান জামিল বলেন, প্রতিবছর কেমুসাস সাহিত্য-সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। আজকে নির্ধারিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতা, যার মাধ্যমে ভাল বক্তা, সাহিত্যিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বের জন্ম দিচ্ছে।

নির্ধারিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতায় ‘ক’ গ্রুপের ১ম স্থান অধিকার করে সামিরা সাদেক লিয়া, ২য় স্থান সৈয়দা রাইদা সাবাহাত দিয়ানাহ, ৩য় স্থান (যৌথ) মাহিয়াত তাসনিম ও গাফ্ফারুল করিম আবিদ, ‘খ’ গ্রুপের ১ম স্থান অধিকার করে আরিফুল হাসান আরিফ,২য় স্থান মিদহাদ আহমদ ও ৩য় স্থান ফারিয়া তাহসনি প্রিমা, ‘গ’ গ্রুপে ১ম স্থান অধিকার করে বর্ণা বিশ^াস তৃষা, ২য় স্থান নজমুল হক চৌধুরী, ৩য় স্থান মোঃ মিজানুর রহমান। বিচারক প্যানেলে ছিলেন সিলেট নাট্যালোকের উপদেষ্টা বাবুল আহমদ, বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব প্রিন্স সদরুজ্জামান, গল্পকার সাহেদ হোসাইন, কবি খালেদ উদ্দিন এবং ফিদা হাসান।

সন্ধ্যে সাতটায় পাঠক সংঘ শৈলী কর্তৃক একাদশ কেমুসাস বইমেলায় প্রকাশিত প্রফেসর আব্দুল আজিজের ‘দায়বদ্ধ অর্থশাস্ত্রী : ড. আখলাকুর রহমান’ গ্রন্থের পাঠউন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতিসংঘের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ড. এ কে আব্দুল মোমেন।
আজ বইমেলা শুরু হবে বিকাল ৩টায়। বিকাল ৪টায় মেলামঞ্চে উদ্বোধন করা হবে ক ও খ গ্রুপের সংগীত প্রতিযোগিতা। সন্ধে সাড়ে ছয়টায় প্রকাশনা উৎসব। – বিজ্ঞপ্তি




এ বিভাগের অন্যান্য খবর




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: