সর্বশেষ আপডেট : ৪৩ মিনিট ২৫ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শাবিতে ৬ কিলোমিটার সীমানা প্রাচীর নির্মিত হচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক ::
জনপ্রিয় লেখক, অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলার ঘটনার পর টনক নড়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় প্রশাসনের। শিক্ষার্থীদের দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে এবার শাবির ৬ কিলোমিটার সীমানা প্রাচীর নির্মানকাজ শুরু হচ্ছে। ১৫ দিনের মধ্যে এ কাজ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন ভিসি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ।

তিনি বলেন, শাবি ক্যাম্পাস এখন বহিরাগতদের জন্য অভয়ারণ্য হয়ে গেছে। আমরা এখন বহিরাগতদের ঢুকতে নজরদারী করবো। আমরা ১৫ দিনের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছয় কিলোমিটার এলাকা জুড়ে সীমানা প্রাচীর তৈরির কাজ শুরু করব।

এদিকে প্রতিষ্ঠার পর থেকেই শাবিতে সীমানা প্রাচীর না থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা ব্যবস্থাও নাজুক রয়েছে। ক্যাম্পাস এলাকায় প্রতিনিয়ত চুরি, ছিনতাই, বিশ্ববিদ্যালয়ের আশপাশ থেকে বহিরাগতদের লাশ উদ্ধারের মতো ঘটনাও ঘটেছে। ক্যাম্পাসটি টিলাবেষ্টিত হওয়ায় অপরাধ করে সহজেই পার পেয়ে যাচ্ছে অপরাধীরা।

সীমানা প্রাচীর না থাকায় চোর, ছিনতাইকারীরা সহজে পালাতে পারে। গত ৪ বছরে ক্যাম্পাসে ছোট-বড় মিলিয়ে শতাধিক চুরি, ছিনতাই ও সংঘর্ষের ঘটনার পাশাপাশি বহিরাগতদের কারণে ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনাও ঘটেছে।
ক্যাম্পাস সূত্রে জানা যায়, শাবির একাডেমিক ভবন ‘ই’, শহীদ মিনার এলাকা, কেন্দ্রীয় মিলনায়তন এলাকা, এক কিলোর রাস্তা, ১ম ছাত্রী হল এবং সৈয়দা সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলের রাস্তা এবং এর পার্শ্ববর্তী টিলাসহ গোটা ক্যাম্পাসের যেদিকে খুশি সেদিকেই প্রবেশ করা যায়। আর এ সুযোগটাই কাজে লাগায় অপরাধীরা। বহিরাগতদের অবাধ চলাফেরায় কোনো ধরণের নিষেধাজ্ঞা না থাকায় গত শনিবার ড. জাফর ইকবালের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে।

জানা যায়, ২০১৪ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি সৈয়দা সিরাজুন্নেসা চৌধুরী হলের পেছনে গাজী কালুর মাজারের টিলার পাশ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিকটবর্তী বড়গুল এলাকার বাচ্চু মিয়ার (২৫) মরদেহ উদ্ধার করেছিল পুলিশ। একই বছরের ২০ নভেম্বর হলে উঠাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ছাত্র বহিরাগত ছাত্রলীগ কর্মী নিহত হয়। ২০১৬ সালের ৯ জানুুয়ারি সংগীত বিষয়ক সংগঠন ‘রিমের’ বাদ্যযন্ত্র চুরি, ১২ জানুয়ারি পরিসংখ্যান বিভাগের একটি কক্ষ থেকে কম্পিউটার ল্যাবের যন্ত্রাংশ চুরি, ২৮ জানুয়ারি ড. এম ওয়াজেদ মিয়া আইআইসিটি ভবন থেকে কম্পিউটার যন্ত্রাংশ চুরি, ১৭ ফেব্রুয়ারি শারীরিক শিক্ষা ভবনে চুরি হয়। ৪ মার্চ ক্যাম্পাসে লোকপ্রশাসন বিভাগের এক ছাত্রী, ৩ অক্টোবর বেগম সিরাজুন্নেছা চৌধুরী হল থেকে শহীদ জননী জাহানারা ইমাম হলে ফেরার সমাজকর্ম বিভাগের দুই শিক্ষার্থী ছিনতাইর শিকার হয়। একই বছরের ৬ নগদ অর্থ চুরির ঘটনা ঘটে। গত বছরের ২৬ জানুয়ারি হলে ফেরার পথে বাংলা বিভাগের এক শিক্ষার্থী ছিনতাইয়ের শিকার হয়। ৬ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলার মাঠে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। ৮ এপ্রিল বিকেলে দুই বহিরাগত ছেলে ও মেয়ে শহীদ মিনার এলাকায় দেখা করতে যায়। এসময় শাবি ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী মেয়েটিকে উত্যক্ত করে ও একপর্যায়ে তাকেসহ তার সাথে থাকা ছেলেটিকে মারধোর করে। এসময় শাবি প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সর্দার আব্বাস ও সহসভাপতি সৈয়দ নবিউল আলম দীপু প্রতিবাদ করলে তাদেরকেও লাঞ্ছিত করে ছাত্রলীগকর্মীরা।


এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: