সর্বশেষ আপডেট : ২৮ মিনিট ৪৮ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ থেকে অব্যাহতি চান ফারহানা মিলি

নিউজ ডেস্ক:: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অসৌজন্যমূলক প্রতিবেদন প্রকাশ করায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ থেকে অব্যাহতি পাওয়া ফারহানা মিলি নিজের অবস্থান তুলে ধরেছেন। এর আগে সোমবার মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা বেগম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ফারহানা মিলির প্রসঙ্গে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বলা হয়, ‘তার এই সংগঠন পরিপন্থী, সংগঠনবিরোধী এবং অসৌজন্যমূলক কর্মকাণ্ডের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদ থেকে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হলো।’

এই বিজ্ঞপ্তির পর ফেসবুক স্ট্যাটাসে ফারহানা মিলি লিখেছেন,আমি আমার পদ থেকে পদত্যাগের মাধ্যমে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার রাজনৈতিক ইতিহাসে সবচেয়ে দুর্ভাগ্যজনক অধ্যায়ের ইতি ঘটাতে চাই। তিনি লিখেছেন, আমি ফারহানা মিলি, সাংগঠনিক সম্পাদক, বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখা, সম্পূর্ণ সুস্থ মস্তিস্কে, স্বজ্ঞানে, বিনা প্ররোচনায় আমার রাজনৈতিক পদবি থেকে অব্যাহতি নিচ্ছি, আমি আজ এই মুহূর্তে সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব হতে পদত্যাগ করলাম। উল্লেখ্য, ইতোপূর্বেও আমি জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী মিসেস মিনারা আলমকে পদত্যাগপত্র দিলেও তিনি তা গ্রহণ করেননি।

তিনি ফেসবুকে আরও লিখেছেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের এক বছর পার হলেও সভাপতি মিসেস মিনারা আলম এবং সাধারণ সম্পাদক তাসলিমা সুলতানা খানম নিশাত কার্যত মহিলা আওয়ামী লীগের জন্য উন্নয়নমুখী কোন পদক্ষেপ আজও নেননি। দুইজনের অভ্যন্তরীণ মতপার্থক্য জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিভিন্ন উপজেলায় দ্বন্দ্ব ও সংঘাতময় পরিবেশ সৃষ্টি করেছে এবং নারী নেত্রীদের সম্মানহানির কারণ হয়েছে বারবার। কেন্দ্রীয় নেত্রীদের ব্যাপক পরিশ্রমের ফসল ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটি। তাই কেন্দ্রীয় নেত্রীদের সম্মানার্থে আজ পর্যন্ত জেলার দুই সিনিয়র নেত্রীর সংঘাত নিয়ে কিছু বলতে পারিনি। তাদের দুইজনকে এক করতে অনেক চেষ্টা করেছি, কিন্তু ফলাফল? শূন্য।

যাই হোক, আমি আমার পদ থেকে পদত্যাগের মাধ্যমে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার রাজনৈতিক ইতিহাসে সবচেয়ে দুর্ভাগ্যজনক অধ্যায়ের ইতি ঘটাতে চাই। আমাকে ক্ষমা করবেন কেন্দ্রীয় নেত্রীবৃন্দ। গত দুইদিন যাবত আমি অপেক্ষায় থেকে আজ পর্যন্ত আপনাদের কাছ থেকে কোন প্রকার সুরাহা না পাওয়ায় স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করতে বাধ্য হলাম।


নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: