সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৩৪ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জগন্নাথপুরে সাতশ শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দেবে জগন্নাথপুর ব্রিটিশ বাংলা এডুকেশন ট্রাস্ট

স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসার প্রায় সাতশ’ শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করবে জগন্নাথপুর ব্রিটিশ বাংলা এডুকেশন ট্রাস্ট, ইউকে। আগামী ১০ মার্চ শনিবার জগন্নাথপুর উপজেলার পাটলী ইউনিয়নের রসুলগঞ্জ মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে বৃত্তি প্রদান করা হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি উপস্থিত থাকবেন। সোমবার নগরীর একটি রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

লিখিত বক্তব্যে ট্রাস্টের প্রতিষ্ঠাতা ও বর্তমান সেক্রেটারী মহিব চৌধুরী বলেন, শিকড়ের টানে গঠিত এই ট্রাস্ট বিগত ১৮ বছর ধরে জগন্নাথপুর উপজেলার শিক্ষার্থীদের উৎসাহ-শিক্ষার মান বৃদ্ধিসহ এর প্রসারে বৃত্তি প্রদান করে আসছে। এবারের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসার প্রায় ৭০০ শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করা হবে। শেকড় থেকে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ যারা চলে যাবে এদের মধ্যে এবছর একজন শিক্ষার্থীকে ১ লাখ টাকার বৃত্তি প্রদান করা হবে।
তিনি বলেন, শেকড়ের শিক্ষার প্রসারে আমরা একটি এডুকেশন রিসোর্স সেন্টার স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছি। জগন্নাথপুর উপজেলা সদরে এই রিসোর্স সেন্টারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হবে। এতে প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যয় হবে। আমাদের এলাকার জনপ্রতিনিধি অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নানের সহযোগিতায় এই প্রকল্পে সরকার থেকে প্রায় ৩ কোটি টাকা অনুদান দেয়া হবে। তিনি বলেন, সারা দেশের ৮৮০টি উচ্চ বিদ্যালয়ের অংশগ্রহণে জাতীয় বির্তক প্রতিযোগিতা ‘বিতর্ক বিকাশে’ আমাদের এলাকার ইসহাকপুর পাবলিক হাইস্কুলের শিক্ষার্থীরা রানার আপ হয়েছে। যা আমাদের জন্য গৌরবের। এই শিক্ষার্থীদের উৎসাহ প্রদানের জন্য আমরা তাদেরকে বিশেষ সম্মাননা জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কেবল শেকড়েই নয় ইংল্যান্ডে বসবাসরত আমাদের অনেক শিক্ষার্থীরা সুনাম অর্জন করেছেন। ইংল্যান্ডে ‘জি. সি. এস. ই’ এবং ‘ও ল্যাভেল’ উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদেরকেও সম্মাননা প্রদানের মধ্য দিয়ে উৎসাহ প্রদান করা হয়েছে। এর মাধ্যমে দেশের ভাবমূর্তিও উজ্জ্বল হয়।

মহিব চৌধুরী জানান, ১৯৯৯ সালে এই ট্রাস্ট গঠন করা হয়। বর্তমানে ট্রাস্টের ট্রাস্টি সংখ্যা হলেন ১৫৭ জন। প্রতিষ্ঠার পরের বছর থেকেই আমরা শেকড়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে বৃত্তি প্রদান করি। গত ১৮ বছরে প্রায় ১৮ হাজার শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করা হয়। যাদের অনেকেই বর্তমানে দেশ-বিদেশে সুনামের সাথে পড়ালেখা করে কর্মজীবনে আছেন। অনেক শিক্ষার্থী বর্তমানে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করছেন। এবারের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানের পর আমরা ট্রাস্টের দরজা আবারো সকলের জন্য উন্মুক্ত করে দেব। আমরা ধারনা করছি এর ফলে নতুন করে ৫০ জন ট্রাস্টি হবেন এবং এতে ট্রাস্টের প্রায় ১ কোটি টাকা সংগ্রহ হবে।
আগামী ১০ মার্চ পাটলী ইউনিয়নের রসুলগঞ্জ মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে দুপুর ১২ টায় বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান ছাড়াও অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার নাজমানার খানুম ও সুপ্রীম কোর্টের আপীল বিভাগের অবসর প্রাপ্ত বিচারপতি এ. এইচ. এম শাসসুদ্দিন চৌধুরী মানিক উপস্থিত থাকবেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থতি ছিলেন ট্রাস্টের সভাপতি আশিক চৌধুরী, ফাউন্ডার সভাপতি ও ট্রাস্টী এম এ আহাদ, ট্রাস্টী ইকবাল এম হোসাইন, আলহাজ্ব ইলিয়াছ, মুজিবুর রহমান মুজিব, হাসনাত আহমেদ চুনু, আব্দাল মিয়া, এখলাছুর রহমান, আব্দুস শহীদ, ফারুক মিয়া ও সুহেল কাদের চৌধুরী। – বিজ্ঞপ্তি


এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: