সর্বশেষ আপডেট : ১০ মিনিট ৬ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বড়লেখায় অধ্যক্ষের কার্যালয়ে উত্তেজিত শিক্ষার্থীদের হামলা-ভাংচুর

বড়লেখা প্রতিনিধি:: মৌলভীবাজারের বড়লেখা ডিগ্রি কলেজে শনিবার রসিদ ছাড়া ডিগ্রি (পাস) ১ম বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষার ফরম না দেয়ার জের ধরে কতিপয় উত্তেজিত শিক্ষার্থী অধ্যক্ষের কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুর করেছে। এদিন ডিগ্রি (পাস) ১ম বর্ষের (২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষ) ফাইনাল পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণের শেষ দিন ছিল। এ ঘটনার পর ভয়ে ফরম পূরণ না করেই অনেক শিক্ষার্থী কলেজ ক্যাম্পাস ত্যাগ করেছে।

জানা গেছে, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে বড়লেখা ডিগ্রি কলেজে ডিগ্রি (পাস) ১ম বর্ষের (২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষ) ফাইনাল পরীক্ষার ফরম পূরণ কার্যক্রম শুরু হয়। শনিবার সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীদের ফরম পূরণের কার্যক্রম চলছিল। এসময় রসিদ ছাড়াই ফরম কমিটির কাছে ফাইনাল পরীক্ষার্থীদের ফরম চান ছাত্রলীগ নেতা কামরুল ইসলাম। যদিও তিনি ডিগ্রি পরীক্ষার্থী নন। শিক্ষকরা রসিদ ছাড়া ফরম দেয়া যাবে না জানালে কামরুল ক্ষিপ্ত হয়ে অধ্যক্ষের কক্ষে হামলা চালায়। এসময় তার সঙ্গে কলেজ ছাত্রলীগের কতিপয় নেতাকর্মী যোগ দেয় বলে অভিযোগ উঠে। তারা অধ্যক্ষের কক্ষের কয়েকটি চেয়ার ও স্পিকার ভাংচুর করেছে। তাদের বাধা দিতে গিয়ে কয়েকজন শিক্ষকও লাঞ্ছিত হন। খবর পেয়ে বড়লেখা থানা পুলিশ ও কলেজ গভর্নিংবডির সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।

ছাত্রলীগ নেতা কামরুল ইসলাম জানান, তার চাচাতো ভাইয়ের ফরম সংগ্রহের জন্য তিনি অধ্যক্ষের কার্যালয়ে যান। কথা কাটা কাটির এক পর্যায়ে এক শিক্ষক তার গায়ে হাত তুলেন। এ সময় কিছু শিক্ষার্থী উত্তেজিত হয়ে হামলা ও ভাংচুর করেছে। এর সাথে ছাত্রলীগ কিংবা তার ব্যক্তিগত কোন সম্পৃক্ততা নেই। কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান হোসেন জানান, ‘ডিগ্রি পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন চলছে। অনেকের বেতন আটকানো। বেতন মুওকুফ নিয়ে সাধারণ ছাত্ররা এ ঘটনা ঘটিয়েছে। এর সাথে ছাত্রলীগের সম্পর্ক নেই। এদের মধ্যে কেউ কেউ হয়ত ছাত্রলীগ করে। তবে এটা সাংগঠনিক কোনো কিছু নয়। এক শিক্ষক শিক্ষার্থীর উপর হাত তুলায় শিক্ষার্থীরা উত্তেজিত হয়।  কলেজের অধ্যক্ষ অরুন চক্রবর্তী জানান, ‘ তার অফিসের আসবাবপত্র কিছুটা ভাংচুর হয়েছে। তবে এ সময় তিনি কক্ষে ছিলেম না। তাই কারা এ কাজ করেছে তা তিনি দেখেননি।’

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহাম্মদ সহিদুর রহমান জানান, ‘ছাত্রদের ফরম ফিলাপের টাকা নিয়ে কিছু পোলাপান ভাংচুর করেছে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করেছে।’




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: