সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৩৫ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিরিয়া ইস্যুতে সিলেটে তালামীযের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ’র সভাপতি মাওলানা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী বলেছেন, আজ আরাকান, কাশ্মির ও ফিলিস্তিনে মুসলমানদের রক্ত নিয়ে হোলি খেলা চলছে। সিরিয়ায় বাইশ লক্ষ মানুষ উদ্বাস্ত, দশ লক্ষ মানুষ আহত হয়েছে, তিন লক্ষ মানুষ মারা গেছে। এতে কি মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে না? আজ কার বিরুদ্ধে কথা বলবো? আমাদের দাবি বাশার আল আসাদের মতো গাদ্দার শাসকদের মসনদ থেকে তাড়িয়ে দিতে হবে। এরা ক্ষমতাকে সবচেয়ে বড় শক্তি মনে করছে। পৃথিবীতে মুসলমানরা মূলত মার খেয়েছে তাদের বিভক্তির কারণে। রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, আমার উম্মতরা সংখ্যালঘুতার কারণে কখনো পরাজিত হবে না বরং তারা অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে ক্ষতিগ্রস্থ হবে। আজ মুসলমানদের ঐক্যবদ্ধ হওয়া প্রয়োজন। নিজেদের মধ্যে ছোটখাটো এখতেলাফ পরিত্যাগ করে আসুন আমরা ঐক্যবদ্ধ হই। আমরা বাংলাদেশ সরকারের নিকট আবেদন জানাই, যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে সিরিয়ার উপর হামলা বন্ধের কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করুন। তিনি বলেন, মুসলমানরা যদি ঐক্যবদ্ধ হতে পারে তবে সমস্ত জুলুমের মোকাবিলা করা সম্ভব হবে। বিশ্বের সকল মুসলিম আওয়াজ তুললে তা আল্লাহর আরশ পর্যন্ত পৌঁছবে।

তিনি বলেন, আজকে ইরাক ধ্বংস হয়েছে, সিরিয়া ধ্বংস হচ্ছে, ইয়ামেন ধ্বংস হচ্ছে। মুসলমানদেগর হাতে ৭০% তেল সম্পদ থাকা সত্ত্বেও মুসলমানরা খৃস্টানদের গোলামে পরিণত হয়েছে। নিজেদের মধ্যে ভ্রাতৃঘাতি লড়াই করছে। যদি তাদের মধ্যে মানবতাবোধ থাকতো তবে মুসলমানদের রক্ত নিয়ে হোলি খেলা সম্ভব হতো না। শিশুরা খাদ্যের পরিবর্তে রক্ত মিশানো খাবার খাচ্ছে। এটা কি আমরা নিরবে সহ্য করবো? তাই আমরা রাজপথে নেমেছি। এই সমাবেশ জাতিসংঘকে হয়তো কোন নাড়া দিতে পারবে না তবে আল্লাহর দরবারে এ ফরিয়াদ কবুল হবে।

সম্প্রতি সিলেটের জৈন্তাপুরে একটি ওয়ায মাহফিলকে কেন্দ্র করে সংঘটিত অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, বড় আশ্চর্যের বিষয়, একটি ঘটনার উপর ভিত্তি করে গ্রামের পর গ্রাম পুড়িয়ে দেওয়া হলো। নারী ও শিশুরা নির্যাতিত হলো। আরাকানের আর এখানকার নির্যাতনের পার্থক্য কোথায়? আমাদের ভ্রাতৃত্ব কোথায়? মিথ্যার ঝুলি নিয়ে আমরা নিজেদের পক্ষে সাফাই দিচ্ছি। আমরা কারো পক্ষে বা বিপক্ষে নয়, আমরা সিরিয়ার মুসলমানদের জন্য রাজপথে নেমেছি। গোটা মুসলিম বিশ্বকে আমরা আহ্বান করছি, ছোটখাটো মতভেদকে পিছেনে রেখে ঐক্যবদ্ধ হোন।

(৩ মার্চ) শনিবার, বাদ যুহর বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়া সিলেট জেলা ও মহানগর শাখার উদ্যোগে সিরিয়া ইস্যূতে জাতিসংঘ ও ওআইসির কার্য়কর ভূমিকা গ্রহণের দাবিতে ও চলমান বর্বরোচিত গণহত্যার প্রতিবাদে ঐতিহাসিক কোর্ট পয়েন্ট আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

সিলেট মহানগরী সহ-সভাপতি মাহবুবুর রহমান ফরহাদ ও পশ্চিম জেলা সাধারণ সম্পাদক শেখ আলী হায়দারের পরিচালনায় সিলেট অনুষ্ঠিত সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন আনজুমানে আল ইসলাহর মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা একেএম মনোওর আলী, কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা ছরওয়ারে জাহান, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আহমদ হাসান চৌধুরী ফুলতলী, তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সভাপতি রেদওয়ান আহমদ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আখতার হোসাইন জাহেদ, আনজুমানে আল ইসলাহর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ মাওলানা মঈনুল ইসলাম পারভেজ ।

সিলেট মহানগর সভাপতি এনাম উদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মিছিল পূর্ব ও পরবর্তী সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহর কেন্দ্রীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মাহমুদ হাসান চৌধুরী, অর্থ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ মাওলানা আবু ছালেহ মো. কুতবুল আলম, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মাওলানা নজমুল হুদা খান, অফিস সম্পাদক মাওলানা আতাউর রহমান, বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়ার সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি আজির উদ্দিন পাশা, মাওলানা নজীর আহমদ হেলাল, মাওলানা বেলাল আহমদ, মাওলানা ফখরুল ইসলাম, তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি মুহাম্মদ মুহিবুর রহমান, সহ-সাধারণ সম্পাদক হুমায়ূনূর রহমান লেখন, সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিয কাওছার আহমদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মোজতবা হাসান চৌধুরী নোমান, সহ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মুহাম্মদ উসমান গণি ও অর্থ সম্পাদক ওয়ালিউর রহমান সানী, সহ অফিস সম্পাদক লিয়াকত আলী তালুকদার, প্রশিক্ষণ সম্পাদক জায়েদ আহমদ চৌধুরী, সহ প্রশিক্ষণ সম্পাদক সৈয়দ আহমদ আল জামিল, শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক খন্দকার অজিউর রহমান আসাদ ও সহ শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক মো. আব্দুল মুহিত রাসেল।

অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন আনজুমানে আল ইসলাহর কেন্দ্রীয় সদস্য মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান, হবিগঞ্জ জেলা সভাপতি সম্পাদক মাওলানা ফরিদ আহমদ, সিলেট জেলা সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ছালেহ আহমদ, সুনামগঞ্জ জেলা সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মাহবুবুর রহমান তাজুল, মহানগর আল ইসলাহর সহ-সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুস সবুর, মৌলভীবাজার জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিয আলাউর রহমান টিপু।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সদস্য তৌরিছ আলী, সুলতান আহমদ, পূর্ব জেলার সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুল খালিক রুহিল শাহ, পশ্চিম জেলার সভাপতি জাহেদুর রহমান, সুনামগনজ জেলা সভাপতি রফিকুল ইসলাম তালুকদার, শাবিপ্রবির সভাপতি নিজামুল হক আব্বাসী, সিলেট মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক আহমেদ শরীফ, সিলেট পূর্ব জেলা সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাসিত আল হাসান, পশ্চিম জেলা সাধারণ সম্পাদক শেখ আলী হায়দার প্রমুখ। – বিজ্ঞপ্তি

 


এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৭

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: মকিস মনসুর আহমদ
সম্পাদক ও প্রকাশক: কে এ রহিম সাবলু, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
অফিস: ৯/আই, ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট।
ফোন: ০৮২১-৭২৬৫২৭, মোবাইল: ০১৭১৭৬৮১২১৪ (নিউজ) ০১৭১২৮৮৬৫০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: