সর্বশেষ আপডেট : ৩২ মিনিট ৩৪ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২৬ মে, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

একুশের বইমেলায় ১২০টি নতুন বই পাওয়া যাচ্ছে

ডেইলি সিলেট ডেস্ক ::

অমর একুশে গ্রন্থমেলা, ব্যাপকভাবে পরিচিত একুশে বইমেলা, স্বাধীন বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী মেলাগুলোর অন্যতম। প্রতি বছর পুরো ফেব্রুয়ারি মাস জুড়ে এই মেলা বাংলা একাডেমীর প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়। ২০১৪ খ্রিস্টাব্দ থেকে অমর একুশে গ্রন্থমেলা বাংলা একাডেমির মুখোমুখি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সম্প্রসারণ করা হয়েছে। এবারের মেলায় আসা কিছু বই পাঠকদের সামেন তুলে ধরা হলো।

ফারহানা ইলিয়াস তুলির ‘পরাগায়নের পূর্বশর্ত’
২০১৮ এর একুশের বইমেলায় নিউ ইয়র্ক অভিবাসী কবি ফারহানা ইলিয়াস তুলি’র একটি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। ‘পরাগায়নের পূর্বশর্ত’-বইটি প্রকাশ করেছে তিউড়ি প্রকাশন, স্টল-৬২০ সোহরাওয়ার্দী উদ্যান। প্রচ্ছদ এঁকেছেন- রাজীব দত্ত। মূল্য রাখা হয়েছে ১৩৫ টাকা।
ফারহানা ইলিয়াস তুলি জীবনবাদী কবি। তিনি পঙক্তির পালক সাজান যাপিত সময়কে নিঙড়ে। তিন ফর্মার এই বইয়ে ৪০টি কবিতা রয়েছে। এটি কবির দ্বিতীয় বই। এর আগে তার ‘নেমে আসে সন্ধ্যার স্বর'(১৯৯৯,বিদ্যাপ্রকাশ),প্রকাশিত হয়েছিল। বইটি বইমেলায় প্রথম দিন থেকেই পাওয়া যাচ্ছে।

হ্যাকিংয়ের গোলকধাঁধা :
আমাদের দৈনন্দিন সব কাজই হয়ে পড়ছে প্রযুক্তিনির্ভর। তবে যথাযথ নিরাপত্তার অভাবে হ্যাক হতে পারে যেকোনো সিস্টেম এবং তা প্রায়ই হয়ে থাকে। ফলে কোটি টাকার লোকসান হওয়ারও সম্ভাবনা আছে।
তাই ‘বাগসবিডি’র প্রচেষ্টায় সাইবার নিরাপত্তার বিষয়টিকে তুলে ধরতে সাইবার সিকিউরিটি বিষয়ক বই প্রকাশিত হয়েছে। গবেষক দিলোয়ার আলম ও মনিরুজ্জামানের লেখা ‘হ্যাকিংয়ের গোলকধাঁধা’ বইটি এবারের বইমেলায় পাওয়া যাচ্ছে।
বইটিতে বিভিন্ন ব্যক্তিগত তথ্যের নিরাপত্তা বিষয়ক আলোচনা থেকে শুরু করে সাইবার নিরাপত্তা ও হ্যাকিং সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ সব তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। বইটি পাওয়া যাচ্ছে বাংলা একাডেমির লিটল ম্যাগ চত্বরের ২৪ নম্বর স্টলে। এর মূল্য ২৮৫ টাকা হলেও বিশেষ ছাড় চলছে।

ওয়াহিদ জালালের দুটি কবিতার বই
অমর একুশে বইমেলায় যুক্তরাজ্য প্রবাসী কবি ও গীতিকার ওয়াহিদ জালালের দুটি কবিতার বই প্রকাশিত হয়েছে। বই দুটি হচ্ছে- ‘নির্বাচিত কবিতা’ এবং ‘উৎসুক শব্দের কোলাহল’।
‘নির্বাচিত কবিতা’ প্রকাশ করেছে নাগরী এবং ‘উৎসুক শব্দের কোলাহল’ প্রচ্ছদ করেছেন অনুপম কর। বইটি প্রকাশ করেছে নন্দিতা প্রকাশ। ওয়াহিদ জালাল প্রবাসে কর্মময় জীবনের ফাঁকে ফাঁকে নিজেকে সঁপে দিয়েছেন সাহিত্যচর্চায়। তার মোট প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ ১৮টি।

সালমা হোসেনের ‘কোন এক বাবাকে’ :
সালমা হোসেন একাধারে কবি ও ঔপন্যাসিক। প্রবাস জীবনে নিজেকে যুক্ত রেখেছেন সাহিত্যচর্চায়। ‘আমার কবিতার খাতা’ কাব্যগ্রন্থের পর এবার বইমেলায় প্রকাশিত হয়েছে তার উপন্যাস ‘কোন এক বাবাকে’।
বইটি প্রকাশ করেছে নন্দিতা প্রকাশ। প্রচ্ছদ করেছেন অনুপম কর। বইটি পাওয়া যাবে নন্দিতা প্রকাশনীর ৪০৩-৪০৪ নম্বর স্টলে।
লেখক বইটি উৎসর্গ করেছেন তার বাবা-মাকে। কবিতা পাশাপাশি তিনি উপন্যাসেও পাঠকহৃদয় জয় করবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

সেলিম আজাদ চৌধুরীর দুটি বই :
জীবনের শেষ বেলায় এসে প্রবাসে স্থায়ী জীবন গড়ার কষ্ট নিয়ে লেখা সেলিম আজাদ চৌধুরীর উপন্যাস ‘কোন কূলে আজ ভিড়ল তরী’ এবং যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণ নিয়ে ‘তেপান্তরের মাঠ পেরিয়ে’ বই দুটির প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রোববার জাতীয় প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠিত এই প্রকাশনা উৎসবে বক্তারা অভিমত প্রকাশ করে বলেন, বই দুটি আমাদের জীবনের ঘাত-প্রতিঘাত আনন্দ-বেদনার প্রতিচ্ছবি।
প্রকাশনা উৎসবের প্রধান অতিথি ছিলেন প্রফেসার এমিরেটাস ড. আনিসুজ্জামান এবং সভাপতিত্ব করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর একে আজাদ চৌধুরী।
আলোচক ছিলেন মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘরের ট্রাস্টি মফিদুল হক, সাংবাদিক দিল মনোয়ারা মনু। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কবি হাসান হাফিজ।

মাহরীন ফেরদৌসের ‘গল্পগুলো বাড়ি গেছে’ :
‘একুয়া রেজিয়া’ নামে ইতোমধ্যে পাঠকপ্রিয়তা পাওয়া লেখিকা মাহরীন ফেরদৌস এবার স্বনামে আত্মপ্রকাশ করেছেন। এবারের বইমেলায় প্রকৃত নামেই প্রকাশিত হয়েছে তার ‘গল্পগুলো বাড়ি গেছে’। বইটি প্রকাশ করেছে জাগৃতি প্রকাশনী। প্রচ্ছদ করেছেন নির্ঝর নৈঃশব্দ্য। এটি একটি গল্প সংকলন। বইটিতে থাকছে ১০টি ভিন্ন ধারার গল্প। বইমেলার ১০৬-১০৮ নং স্টলে বইটি পাওয়া যাচ্ছে মেলার প্রথম দিন থেকেই। এছাড়াও রকমারি ডটকম এ পাওয়া যাচ্ছে ২৭% ছাড়ে।
মাহরীন ফেরদৌস ২০১৩ সালে ‘একুয়া রেজিয়া’ নামের আড়ালে থেকে অন্যপ্রকাশ থেকে প্রকাশ করেছেন নিজের প্রথম গল্পগ্রন্থ। পরবর্তীতে লিখেছেন উপন্যাস। স্বল্প সময়েই পেয়েছেন পাঠকপ্রিয়তা। তবে স্বনামে বই প্রকাশের উদ্যোগ এবারই প্রথম। ব্যবসায় শিক্ষা ও চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্সি নিয়ে পড়ালেখা করলেও বারবারই ফিরে এসেছেন সাহিত্যের কাছে। লিখছেন গল্প, উপন্যাস, ফিচার। বর্তমানে বসবাস করছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যানসাসে।
‘গল্পগুলো বাড়ি গেছে’ গল্পগ্রন্থ প্রসঙ্গে লেখক বলেন, প্রতিটি গল্পের আসলে একটি গন্তব্য থাকে। প্রায় দুবছর ধরে আমেরিকায় থাকার পরেও এই বইয়ের বেশিরভাগ গল্পই বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটের। ভ্রম, সম্পর্ক, অতীতের হাতছানি, সমসাময়িক বিষয়, রোমাঞ্চকর ঘটনা, প্রেম, সত্য ঘটনাসহ নানান বিষয়বস্তুর মেলবন্ধনেই ‘গল্পগুলো বাড়ি গেছে’।
‘এই শহরে মেঘেরা একা’ ও ‘কিছু বিষাদ হোক পাখি’ লেখকের জনপ্রিয় দু’টি উপন্যাস। এছাড়া তার অন্যন্য প্রকাশিত বইগুলো হচ্ছে- ‘নগরের বিস্মৃত আঁধারে’, ‘কাকতাড়ুয়ার আকাশ’ ও ‘মনোসরণি’।

বাঙালি মুসলমানদের এগিয়ে নিতে কাজ করেছেন খান বাহাদুর :
বাঙালি জাতিসত্তার সবগুলো উপকরণই খান বাহাদুর আহ্ছানউল্লার জীবনচর্চার সঙ্গে মিশে আছে। শিক্ষাদীক্ষা ও বুদ্ধিবৃত্তিক দিক থেকে পিছিয়ে পড়া বাঙালি মুসলমানদের সামনে এগিয়ে নিতে তিনি কাজ করে গেছেন। বাংলা ভাষা ‘হিন্দু না মুসলিমের’ এ বিতর্কের ঊর্ধ্বে উঠে তিনি ঘোষণা করেছেন যে বঙ্গীয় মুসলিম সমাজের উন্নতির জন্য বাংলা ভাষায় সাহিত্য রচনা করতে হবে।
শনিবার বিকেল ৪টায় অমর একুশে বইমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত খান বাহাদুর আহ্ছানউল্লা শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক শফিউল আলম। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন মো. মনিরুল ইসলাম ও সরকার আবদুল মান্নান। সভাপতিত্ব করেন কাজী রফিকুল আলম।
প্রাবন্ধিক বলেন, উনিশ শতকের যে কয়েকজন খ্যাতি-কীর্তি মুসলমানের জন্ম হয়েছিল তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য খান বাহাদুর আহছানউল্লা। তিনি বাঙালি মুসলমানদের সামাজিক ইতিহাসে যেমন অনন্য পুরুষ, তেমনি স্ব-সম্প্রদায়ের ভেতরে সাধারণ শিক্ষার প্রসারকল্পে তার অবদান শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণযোগ্য।
তিনি বলেন, খান বাহাদুর আহছান উল্লার সুদীর্ঘ কর্মময় জীবনকে নানাভাবে দেখা যায়- শিক্ষাবিদ, শিক্ষাসংস্কারক, পাঠ্যপুস্তক রচয়িতা, সাহিত্যিক, ধর্মবেত্তা, সংস্কারমুক্ত, অসাম্প্রদায়িক সৃজনশীল মানুষ-এ রকম নানাভাবে তাকে চিহ্নিত করা যায়।
সভাপতির বক্তব্যে কাজী রফিকুল ইসলাম বলেন, শিক্ষা সংস্কার ও প্রসারে খান বাহাদুর আহ্ছানউল্লা যে অবদান রেখে গেছেন তা আমাদের স্মরণে রাখতে হবে। আহ্ছানিয়া মিশন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে তিনি মানবসেবার অসাধারণ দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।
সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী ফাতেমা-তুজ-জোহরা, সুজিত মোস্তফা, এ কে এম শহীদ কবীর পলাশ। যন্ত্রে ছিলেন পিনু সেন দাস (তবলা), রবিনস্ চৌধুরী (কী-বোর্ড), এবং ফিরোজ খান (সেতার)।

নতুন বই ‘পুঁজিবাজারের প্রাথমিক ধারণা’ :
বাঙালির প্রাণের মেলায় পাওয়া যাচ্ছে সংবাদিক আবু আলীর লেখা তথ্য নির্ভর বই ‘পুঁজিবাজারের প্রাথমিক ধারণা।’
শেয়ারবাজারে কখন এবং কীভাবে বিনিয়োগ করবেন। কীভাবে চিনবেন ভালো-মন্দ শেয়ার? কোন শেয়ারে দীর্ঘমেয়াদে বিনিয়োগ করবেন। এসব বিষয় নিয়ে লেখা বইটি।
শুক্রবার থেকে বইটি পাওয়া যাচ্ছে অমর একুশে বই মেলায়। বইটি প্রকাশ করেছে ‘জ্যোতি প্রকাশ।’ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ৪০২ নম্বর জ্যোতি প্রকাশের স্টলে পাওয়া যাচ্ছে বইটি। এ ছাড়া বাংলা একাডেমি চত্বরে ৬৭ নম্বর ঢাকা
রিপোর্টার্স ইউনিটির স্টল এবং ৬৮ নম্বর গোল্ডেন বাংলাদেশের স্টলে পাওয়া যাচ্ছে বইটি।
সাধারণ মানুষ কীভাবে শেয়ারবাজারে ব্যবসা শুরু করবেন সে বিষয়ে নিখুঁতভাবে তুলে ধরা হয়েছে বইয়ে। বইটির মূল্য ১২০ টাকা। মেলা উপলক্ষে ২৫ শতাংশ কমে ৯০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে বইটি।
উল্লেখ্য, দীর্ঘ এক যুগ ধরে পুঁজিবাজার রিপোর্টের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন আবু আলী। বর্তমানে তিনি দেশের শীর্ষস্থানীয় একটি জাতীয় দৈনিকে সিনিয়র রিপোর্টার হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

মেলায় নতুন বই ১২০টি
অমর একুশে বইমেলার তৃতীয় দিনে মেলায় নতুন বই এসেছে ১২০টি। বাংলা একাডেমির জনসংযোগ দফতর থেকে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বলা হয়, বইমেলায় নতুন বই এসেছে সর্বমোট ১২০টি।
যার মধ্যে- গল্প- ১১টি, উপন্যাস-১৯টি, প্রবন্ধ ১৩টি, কবিতা ২৬টি, গবেষণা ৩টি, ছড়া ৪টি, শিশুসাহিত্য ৬টি, জীবনী ৫, মুক্তিযুদ্ধ ৪টি, নাটক ১, বিজ্ঞান ৭, ভ্রমণ ৪টি, স্বাস্থ্য ১, সায়েন্স ফিকশন ১ এবং অন্যান্য ১৬টি।

সূত্র : জাগো নিউজ




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: