সর্বশেষ আপডেট : ১৯ মিনিট ৩ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারী, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ১০ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাতকে দু’পক্ষের ভুমি সংক্রান্ত বিরোধ সালিশ-বৈঠকে নিস্পত্তি

ছাতক প্রতিনিধি:: ছাতকে দু’পক্ষের মধ্যে ভুমি সংক্রান্ত দীর্ঘদিনের বিরোধ সালিশ-বৈঠকের মাধ্যমে নিস্পত্তি ঘটেছে। স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ, জনপ্রতিনিধি ও পুলিশ প্রশাসনের সমন্বয়ে কয়েক দফা সালিশ-বৈঠকের মাধ্যমে গত ১ জানুয়ারী জাউয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে উভয় পক্ষের উপস্থিতিতে বিরোধ নিস্পত্তি করা হয়। ফলে একটি সাংঘর্ষিক পরিস্থিতি থেকে রক্ষা পায় এলাকাবাসী।

জানা যায়, জাউয়া ইউনিয়নের হাবিদপুর গ্রামের মৃত আজর আলীর পুত্র মছদ্দর আলী এবং হাবিদপুর গ্রামের মৃত উমেদ উল¬ার পুত্র আশিক মিয়া ও কৈতক-দৌলতপুর গ্রামের মনফর আলীর পুত্র কালাশা’র মধ্যে ১একর ১৪ শতক বোরো জমির মালিকানা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। মছদ্দর আলী গংরা কৈতক মৌজার ৮৮০ নং এসএ দাগের ১একর ১৪ শতক বোরো জমি ৬৯৬৫ দলিল মুলে খরিদা সূত্রে মালিক হয়ে ১৯৬৬ইং সাল থেকে ভোগ দখল করে আসছেন। ২০১২ইং সালে ৪৪৯৮ দলিল সৃজন করে আশিক মিয়া ও কালাশা উক্ত ভুমির মালিকানা দাবী করলে উভয় পক্ষের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। ভুমির মালিকানা নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে আদালতে মামলা-মোকদ্দমা দায়ের করা হয়। মছদ্দর আলীর পুত্র আঞ্চব আলীর দায়েরী বিবিধ মোকদ্দমা (নং-৫৫/২০১৩) বিজ্ঞ আদালত ২০১৩ সালের ২১ জুলাই আঞ্চব আলীর অনুকুলে রায় প্রদান করে প্রতিপক্ষ আশিক মিয়া ও কালাশাকে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করেন। পরে প্রতিপক্ষগন সুনামগঞ্জ জেলা জজ আদালতে ফৌজদারী রিভিশন মোকদ্দমা(নং-৪২/২০১৩) দায়ের করলে বিজ্ঞ জজ ২০১৬ সালের ২ মার্চ পূর্বের আদেশ বহাল রেখে রায় প্রদান করেন। এ মর্মে আদালতের আদেশ অনুযায়ী ২০১৫ সালের ২৪ মে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মুচলেখা নামা দাখিল করেন প্রতিপক্ষরা। পরবর্তিতে মুচলেকার বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষ জেলা জজ আদালতে আপিল করলে ২০১৭ সালের ১২ মার্চ বিজ্ঞ জজ আপিল নামঞ্জুর করে পূর্বের রায় বহাল রাখেন। সম্প্রতি আবারো প্রতিপক্ষের লোকজন বিরোধ নিস্পত্তিকৃত ভুমিতে জোর দখল নেয়ার চেষ্টা করলে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, জনপ্রতিনিধি ও পুলিশ প্রশাসনের লোক বিষয়টি পুনঃ সালিশ-বৈঠকে নিস্পত্তির উদ্যোগ গ্রহন করেন। অবশেষে জাউয়াবাজার ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে কয়েক দফা সালিশ-বৈঠকের পর উভয় পক্ষের উপস্থিতিতে মছদ্দর আলী গংদের পক্ষে জমির মালিকানা বুঝিয়ে দেয়া হয়। পীর আরশ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সালিশ-বৈঠকে সালিশকারী হিসেবে ছাতক থানার ওসি আতিকুর রহমান, জাউয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইন্সপেক্টর নির্মল চন্দ্র দেব, ইউপি চেয়ারম্যান মাষ্টার আওলাদ হোসেন, সাবেক চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা কদর মিয়া, স্থানীয় রেজা মিয়া তালুকদার, রুহুল আমিন তালুকদার, সামছুল ইসলাম, পীর তকদ্দুছ আলী, আদরিছ আলী মেম্বার, মাওলানা ফজলুর রহমান, মাষ্টার দেওয়ান আবুল কালাম, ফজলুল করিম, ইউপি সদস্য আব্দুর রহিম, আব্দুল হক ও আঙ্গুর মিয়া উপস্থিত ছিলেন।

 

 

 

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: