সর্বশেষ আপডেট : ২৩ মিনিট ৪১ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারী, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ৫ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ইনিংস পরাজয় এড়াতে লড়ছে ইংল্যান্ড

স্পোর্টস ডেস্ক:: নিশ্চিত ইনিংস পরাজয়ের দিকে এগিয়ে চলছে ইংল্যান্ড। অ্যাশেজের শেষ টেস্টে সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে প্রথম ইনিংসেই অস্ট্রেলিয়ার বিশাল রানে নিচে চাপা পড়েছে ইংল্যান্ড। অস্ট্রেলিয়ার ৬৪৯ (ডিক্লেয়ার) রানের নিচে চাপা পড়ে প্রথম ইনিংসেই ৩০৩ রান পিছিয়ে ইংল্যান্ড। এই রান তাড়া করতে নেমেও চতুর্থ দিন শেষে ৬৮ রান তুলতেই ৪ উইকেট হারিয়ে বসেছে ইংলিশরা। দিন শেষে ইংল্যান্ডের রান ৪ উইকেট হারিয়ে ৯৩। এখনও ইনিংস পরাজয় এড়াতে হলে ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ২১০ রান। হাতে আছে আর মাত্র ৬ উইকেট।

আগেরদিনই সবাই জেনেছিল সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে মার্শ ভাইদের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে বড় লিডের পথে এগিয়ে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। তৃতীয় দিন শেষে ৯৮ রানে অপরাজিত ছিলেন শন মার্শ। আর ৬৩ রানে অপরাজিত ছিলেন মিচেল মার্শ। চতুর্থ দিনের শুরুতেই নিজের ক্যারিয়ারের ৬ষ্ঠ সেঞ্চুরিটা পূরণ করে ফেললেন অস্ট্রেলিয়ার এই ব্যাটসম্যান।

ইউরোপ-আমেরিকাসহ পৃথিবীর পুরো পশ্চিমভাগ যখন বরফে আচ্ছাদিত হয়ে যাচ্ছে, তখন অস্ট্রেলিয়ায় তুমুল গরম। ১৯৩৯ সালের পর গত ৭৯ বছরের মথ্যে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে। আজ সেখানে তাপমাত্রা ছিল ৪৭.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তীব্র দাবদাহে জনজীবন ওষ্ঠাগত। এমনই এক পরিস্থিতিতে সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে চলছে অস্ট্রেলিয়া আর ইংল্যান্ডের মধ্যকার অ্যাশেজ সিরিজের শেষ টেস্ট।

Joe-root

ভাইয়ের দেখানো পথেই হাঁটলেন মিচেল মার্শ। তিনিও পূরণ করলেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। মিচেল মার্শ সেঞ্চুরি করার পরপরই আউট হয়ে যান। টম কুরানের বলে যখন বোল্ড হয়ে যান, তখন তার রান ছিল ১০১। মিচেল দ্রুত আউট হলেও শন কিন্তু ইনিংসটাকে বেশ লম্বা করেছেন। দেড়শ’র গন্ডিও পেরিয়ে যান তিনি। খেলেন ১৫৬ রানের জ্বলজ্বলে এক ইনিংস। ২৯১ বলে ১৮ বাউন্ডারি করার পর দ্রুত রান করতে গিয়ে রানআউটের শিকার হন তিনি।

শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেটে ৬৪৯ রান করার পর ইনিংস ঘোষণা করে অস্ট্রেলিয়া। মার্শ ভাইদের পর ৩৮ রানে অপরাজিত থাকেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান টিম পাইন। ১১ রান করেন মিচেল স্টার্ক এবং ২৪ রানে অপরাজিত থাকেন প্যাট কামিন্স। দ্বিতীয় দিন ১৭১ রান করে আউট হয়েছিলেন উসমান খাজা, ৮৩ রান করেন স্টিভেন স্মিথ এবং ওয়ার্নার করেন ৬ রান।

৩০৩ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে ইংল্যান্ড। মাঠে নামার পরই দারুণ বিপর্যয়ে পড়ে জো রুটের দল। বিশেষ করে স্পিনার নাথান লায়নের ঘূর্ণির সামনেই নাকাল হতে হচ্ছে তাদের। সঙ্গে মিচেল স্টার্ক আর প্যাট কামিন্সের আগুন মাখানো পেস তো রয়েছেই। অ্যালিস্টার কুককে ১০ রানে ফিরিয়ে দেন লায়ন। যদিও শুরুতে আঘাতটা হেনেছিলেন মিচেল স্টার্ক, মার্কাস স্টোনম্যানকে এলবিডব্লিউ করে। রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফেরেন সোটনম্যান।

জেমস ভিন্স ১৮ রান করার পর প্যাট কামিন্সের বলে স্টিভেন স্মিথের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান। দিনের শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে নাথান লায়নের বলে এলবির শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন ডেভিড মালান। আউট হওয়ার আগে তিনি করেন ৫ রান। দিন শেষে ইংল্যান্ডের আশার প্রদীপ হয়ে জ্বলছেন অধিনায়ক জো রুট। তিনি অপরাজিত রয়েছেন ৪২ রানে এবং জনি বেয়ারেস্ট রয়েছেন ১৭ রানে অপরাজিত। এই দু’জন শেষ দিনে কোনো মিরাকল ঘটাতে পারলেই কেবল ইংল্যান্ডের পক্ষে টেস্ট বাঁচানো সম্ভব।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: