সর্বশেষ আপডেট : ৩০ মিনিট ৩৫ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারী, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ১০ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শান্তি আলোচনায় বসছে উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: আনুষ্ঠানিক আলোচনায় বসতে উত্তর কোরিয়াকে দক্ষিণ কোরিয়ার তরফ থেকে যে প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল তাতে সম্মতি জানিয়েছে পিয়ংইয়ং। দুই বছরের বেশি সময় পরে দু’দেশের মধ্যে এটাই প্রথমবারের মতো উচ্চ পর্যায়ের শান্তি আলোচনা প্রক্রিয়া। খবর বিবিসি, সিএনএন।

সামনের সপ্তাহেই এই আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে বলে উল্লেখ করেছেন দক্ষিণ কোরিয়ার এক কর্মকর্তা। দক্ষিণ কোরিয়ার একীভূতকরণ মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বেইক তাই হিউন শুক্রবার সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার উত্তর কোরিয়া ফ্যাক্সের মাধ্যমে দক্ষিণ কোরিয়াকে জানিয়েছে তারা আলোচনা প্রক্রিয়া শুরুর বিষয়ে রাজি আছে।

 

পিস হাউসে উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনের জন্মদিন পালনের একদিন পরে অর্থাৎ ৯ জানুয়ারি দু’দেশের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। দু’দেশের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা ওই বৈঠকে অংশ নেবেন। সীমান্তবর্তী পানমুনজমে ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ডিমিলিটারাইজড জোনে (ডিএমজেড) দুই দেশের প্রচুর সেনা মোতায়েন রয়েছে এবং দু’দেশের মধ্যে যে কোনো ধরনের বৈঠকও সেখানেই অনুষ্ঠিত হয়। মুখপাত্র বেইক জানিয়েছেন, তথ্য আদান-প্রদানের মাধ্যমে আলোচনার বিষয়ে দু’পক্ষই রাজি হয়েছে। ওই বৈঠকে পিয়ংচ্যাং (শীতকালীন) অলিম্পিক গেমসে উত্তর কোরিয়ার প্রতিযোগীদের অংশগ্রহণের পথ খুঁজে বের করার বিষয়েও আলোচনা হবে।

বালিক আরও জানিয়েছেন, তিনি ধারণা করছেন উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে আগামী সপ্তাহেই আইওসির (ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক কমিটি) সঙ্গে নির্ধারিত বৈঠক করা হবে। উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন এ সপ্তাহে বলেন, উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধিদের শীতকালীন গেমসে পাঠানোটা তাদের জন্য একটি ভালো সুযোগ। এর মাধ্যমে দেশের জনগণের ঐক্য তুলে ধরা সম্ভব।

২০১৫ সালের পর এই প্রথম দুই কোরিয়ার মধ্যে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক হতে যাচ্ছে। তবে এই বৈঠকে কারা যোগ দেবেন সে বিষয়টি এখনও পরিস্কার নয়। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জ্যা ইন এর আগে বলেছিলেন, তিনি এই শীতকালীন অলিম্পিক গেমসকে দুই কোরিয়ার মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নের ক্ষেত্রে যুগান্তকারী সম্ভাবনা হিসেবে দেখছেন। উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে দু’দেশের মধ্যে সাম্প্রতিক সময়ে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

তবে অনেকেই দু’দেশের মধ্যে এমন বৈঠক হবে কিনা সে বিষয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস মেটিস বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে বলেন, আন্তর্জাতিক চাপের কারণেই এ ধরনের চুক্তি হয়েছে। তবে এ বিষয়টি এখনও পরিস্কার নয়। অপরদিকে জাপানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেছেন, উত্তর কোরিয়া আলোচনা শুরু করবে নাকি বাকবিতণ্ডা চালিয়ে যাবে অথবা তারা তাদের অস্ত্র কর্মসূচি চলমান রাখবে কিনা সে বিষয়ে তার দেশ সতর্ক থাকবে।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের কার্যালয় থেকে জানানো হয়েছে, ওই আলোচনায় পিয়ংচ্যায় উইন্টার গেমসকেই প্রাধান্য দেয়া হবে। তবে দু’দেশের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নের বিষয়েও আলোচনা হবে বলে জানানো হয়েছে। চলতি সপ্তাহের শুরুর দিকে, দু’দেশের সীমান্তে টেলিফোন হটলাইন চালু করেছে উত্তর কোরিয়া। এতে করে দু’দেশের মধ্যে যোগাযোগ সম্ভব হবে।

আগামী ফেব্রুয়ারিতে দক্ষিণ কোরিয়ার পিয়ংচ্যাং শহরে অনুষ্ঠিত হবে শীতকালীন অলিম্পিকের ২৩তম আসর। ওই গেমসে অংশ নেবার জন্য উত্তর কোরিয়ার দু’জন অ্যাথলেট নির্বাচিত হয়েছিলেন কিন্তু তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার সময়সীমা পার হয়ে গেছে। তবে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির আমন্ত্রণে এখনো তারা প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবে।

নতুন বছর উপলক্ষে সম্প্রতি টেলিভিশনে দেয়া এক ভাষণে কিম জং উন বলেন, দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে তাদের যে উত্তেজনা রয়েছে সেটি নতুন বছরে কমে আসতে পারে। দক্ষিণ কোরিয়ায় অনুষ্ঠিতব্য আসন্ন শীতকালীন অলিম্পিকের সাফল্য কামনা করেন কিম জং উন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: