সর্বশেষ আপডেট : ৪১ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ২২ এপ্রিল, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ৯ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ঢাকা উত্তর আ.লীগের সেই কমিটিগুলো স্থগিত করলেন শেখ হাসিনা

নিউজ ডেস্ক::

কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগকে পাশ কাটিয়ে দেয়া ঢাকা মহানগরের উত্তরের ২৬টি থানা, ৪৬টি ওয়ার্ড ও নয়টি ইউনিয়নের পূর্ণাঙ্গ কমিটি স্থগিত করেছেন দলের সভাপতি শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার বিকাল ৩টায় গণভবনে ঢাকা মহানগর উত্তরের বিভিন্ন থানার সভাপতি-সম্পাদকদের নানা অভিযোগ শুনে তিনি এ স্থগিতাদেশ দেন।

বৈঠকে উপস্থিত একাধিক নেতা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তারা বলেন, বিকাল ৩টায় ঢাকা মহানগর উত্তরের থানা কমিটির সভাপতি-সম্পাদকদের মধ্যে ১৬ জন গণভবনে দলের সভাপতি শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন। এসময় তারা উত্তরের সভাপতি-সম্পাদকের অনুমোদন করা কমিটিগুলো নিয়ে নানান অভিযোগ তুলে ধরেন।

জবাবে দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা সব কমিটি মৌখিকভাবে স্থগিত করেন এবং দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ফারুক খানের সঙ্গে কথা বলে সমন্বয় কমিটি যাচাই-বাছাই শেষে এসব শাখাগুলোর পূর্ণাঙ্গ কমিটি দেয়ার নির্দেশ দেন।

এ বিষয়ে ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, আমি শুনেছি- ঢাকা উত্তরের কিছু নেতা দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছেন। ঢাকা মহানগরের বিভিন্ন শাখার পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন নিয়ে তারা নিজেদের অভিযোগ তুলে ধরেছেন। জবাবে নেত্রী এসব কমিটি স্থগিত করে সবার সঙ্গে সমন্বয় করে কমিটি দিতে বলেছেন। আমরা (সমন্বয় কমিটি) বসে এ বিষয়ে পরে সিদ্ধান্ত নেব।

ঢাকা মহানগর উত্তরের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কাদের খান বলেন, ঢাকা মহানগর উত্তরের থানা সভাপতি-সম্পাদকদের ১৬ জন আজ নেত্রীর সঙ্গে দেখা করতে গেছেন। সেখানে আমিও ছিলাম। বিকাল ৩টায় তারা নেত্রীর কাছে তাদের অভিযোগ তুলে ধরেন, তিনি শুনলেন। পরে আমাকেও জিজ্ঞেস করেন। আমি বলেছি- আপা আপনি যেভাবে নির্দেশ দিয়েছেন সেভাবে যাচাই-বাছাই করে কমিটি দেয়া হয়নি। তখন তিনি ( দলীয় সভাপতি) বললেন, এখনই আপনি ফারুক খানের কাছে যান। আমি ফারুক খানকে বলে দিচ্ছি। কাগজপত্র দেখে যত আপত্তি আছে সেগুলো যাচাই-বাছাই করে সমন্বয় কমিটি বসে সবার মতামত নিয়ে কমিটি ঘোষণা করবেন।

তিনি বলেন, এর আগে অনুমোদন দেয়া কমিটিও স্থগিত করে দেন আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা।

এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান বলেন, দুপুরের পর কয়েকজন বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মী নেত্রীর সঙ্গে দেখা করেছেন শুনেছি। তবে কমিটি বাতিল বা স্থগিতের কোনো খবর আমি পাইনি। স্থগিত হলে দলের দপ্তরের মাধ্যমেই আসতো।

তিনি বলেন, এতগুলো কমিটি কিছু অভিযোগ তো থাকবেই, কেউ কেউ তো বিক্ষুব্ধ হবেই।

প্রসঙ্গত, এ বছরের ৫ জুলাই ঢাকা মহানগরের উত্তরের প্রায় সবক’টি থানা, ওয়ার্ড ও ইউনিয়নের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করেন ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম রহমতুল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান। ওই কমিটিগুলোর বিষয়ে অনেক অভিযোগ জমা পড়ে দলীয় সভাপতি বারাবর। পরদিন ৬ জুলাই তিনি সবক’টি কমিটি স্থগিত করে অভিযোগ খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেন তিনি।

দলীয় সভাপতির নির্দেশ অনুযায়ী আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের অভিযোগ তদন্তের দায়িত্ব দেন ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মণি ও সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলকে। এই প্রক্রিয়ার তদারকির জন্য দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য লে. কর্নেল (অব.) ফারুক খানকে দায়িত্ব দেন শেখ হাসিনা।

জানা গেছে, প্রায় দুই বস্তা অভিযোগের প্রত্যেকটি যাচাই-বাছাই করে রিপোর্ট প্রস্তুত করেন মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। এ নিয়ে তদন্ত কমিটির বৈঠকও হয়েছে। এ বিষয়ে ফারুক খানের সঙ্গে আরেকটি বৈঠক হওয়ারও কথা ছিল। এরই মধ্যে ২৭ ডিসেম্বর ফের কমিটিগুলো চূড়ান্ত অনুমোদন করেন রহমতউল্লাহ ও সাদেক খান।

এ নিয়ে পদ বঞ্চিত নেতাকর্মীদের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের নেতারা ক্ষুব্ধ হন। এনিয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ কেন্দ্রীয় নেতারা দলীয় অফিসে ক্ষোভ প্রকাশ করে আলোচনাও করেছেন।

এরই মধ্যে মঙ্গলবার উত্তরের এসব নেতারা দলের সভাপতির কাছে নিজেদের অভিযোগ তুলে ধরলেন। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাও কমিটি স্থগিত করে আপত্তিগুলো নিষ্পত্তি করে সবার মতামতের ভিত্তিতে কমিটি দেয়ার নির্দেশ

 

 

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: