সর্বশেষ আপডেট : ১৫ মিনিট ৫১ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২৫ মে, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

পেরুতে নতুন করে সহিংসতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: পেরুতে নতুন করে সহিংসতা শুরু হয়েছে। কয়েক হাজার বিক্ষোভকারীর ওপর টিয়ার গ্যাস ছুড়েছে পুলিশ। সাবেক প্রেসিডেন্ট আলবার্তো ফুজিমোরিকে ক্ষমা করে দেয়ার বিষয়ে কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তের প্রতি ক্ষোভ জানিয়েছে রাজধানী লিমাতে বিক্ষোভে অংশ নেয়া হাজার হাজার মানুষ। খবর বিবিসি।

ক্রিসমাসের প্রাক্কালে শুরু হওয়া বিক্ষোভ দ্বিতীয় দিনের মতো চলছে। স্বাস্থ্যগত কারণে প্রেসিডেন্ট পেড্রো পাবলো কুজিনস্কি সাবেক প্রেসিডেন্ট ফুজিমোরিকে ক্ষমা করে দিয়েছেন।

 

তবে ফুজিমোরিকে ক্ষমা করে দেয়ায় জনগণ ক্ষোভে ফেটে পড়বে এটা আগে থেকেই জানতেন কুজিনস্কি। কিন্তু আলবার্তো ফুজিমোরি জেলে পচে মরবেন এটা কখনই হতে দেয়া যায় না বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং দুর্নীতির দায়ে ফুজিমোরিকে ২৫ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়। কিন্তু গত সপ্তাহেই তাকে কারাগার থেকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বহুদিন ধরেই উচ্চ রক্তচাপ এবং অনিয়মিত হৃদস্পন্দনের সমস্যায় ভুগছেন এই সাবেক প্রেসিডেন্ট।

নিজের অভিশংসন এড়াতে ফুজিমোরির দলের সঙ্গে চুক্তির বিনিময়েই কুজিনস্কি সাবেক প্রেসিডেন্টকে ক্ষমা করে দেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। গত সপ্তাহে ব্রাজিলের বৃহত্তম নির্মাণাধীন প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে অবৈধভাবে অর্থ গ্রহণের অভিযোগ ওঠে কুজিনস্কির বিরুদ্ধে।

এদিকে, ফুজিমোরিকে ক্ষমা করে দেয়ায় প্রেসিডেন্ট কুজিনস্কির দলের দুই সদস্য ভিয়েনতে জেবালোস এবং আলবার্তো দে বেলাউনদে পদত্যাগ করেছেন।

১৯৯০ সাল থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত পেরুর ক্ষমতায় ছিলেন ফুজিমোরি। তাকে ক্ষমা করে দেয়ার খবরে হাসপাতালের বাইরে তার সমর্থকরা জড়ো হয়েছিলেন। তারা এই বিশেষ খবর উদযাপন করেছেন।




এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: