সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৫৯ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ২০ মে, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের চূড়ান্ত তালিকা এগিয়ে যেসব ছবি

বিনোদন ডেস্ক ::

প্রতিবছর বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে চলচ্চিত্রের বিভিন্ন ক্ষেত্রে সেরাদের বাছাই করে পুরস্কৃত করা হয়। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এদেশের চলচ্চিত্রের একমাত্র রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ পুরস্কার। চলচ্চিত্র শিল্পের বিকাশ ও উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য অবদানের জন্য ব্যক্তি বিশেষকে এবং শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র ও প্রামাণ্যচিত্রকে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান করা হয়। ১৯৭৫ সাল থেকে ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’ একটি বড় উৎসব, যা বর্ণাঢ্য কর্মসূচির মাধ্যমে প্রতিবছর আয়োজন করা হয়। অনেকগুলো ছবি যাচাই-বাছাইয়ের পর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের জন্য চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়। যা দেশীয় চলচ্চিত্রের জন্য সবচেয়ে মর্যাদা সম্পন্ন পুরস্কার।

তার ধারাবাহিকতায় আগামী বছরের শুরুর দিকে জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে প্রদান করা হবে ‘চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৬’। আর এরই মধ্যে চলছে চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান প্রক্রিয়া। এবারের আসরে পুরস্কারের জন্য জমা পড়েছে শতাধিক চলচ্চিত্র। তার মধ্য থেকে বাছাই কমিটি ২৮টি চলচ্চিত্রকে চূড়ান্ত নির্বাচনের জন্য বাছাই করেছে। এর মধ্যে রয়েছে।

শবনম ফেরদৌসী পরিচালিত ‘জন্মসাথী’, মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ পরিচালিত ‘সম্রাট’, রাশেদ মোর্শেদ পরিচালিত ‘পৃথিবীর নিয়তি’, এসএ হক অলিক পরিচালিত ‘এক পৃথিবী প্রেম’, সৈয়দ রুবাইয়াত হোসেন পরিচালিত ‘আন্ডার কনস্ট্রাকশন’, সাফিউদ্দিন সাফি পরিচালিত ‘পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী-২’, গৌতম ঘোষ পরিচালিত যৌথ প্রযোজনার ‘শঙ্খচিল’, তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘অজ্ঞাতনামা’, মুশফিকুর রহমান গুলজার পরিচালিত ‘মন জানে না মনের ঠিকানা’, মেহের আফরোজ শাওন পরিচালিত ‘কৃষ্ণপক্ষ’, প্রয়াত বেলাল আহমেদ পরিচালিত ‘ভালোবাসবোই তো’, শামীম আখতার পরিচালিত সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত ‘রীনা ব্রাউন’।

সুমন ধর পরিচালিত ‘দর্পণ বিসর্জন’, মুশফিকুর রহমান গুলজার পরিচালিত সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত ‘লাল সবুজের সুর’, নুরুদ্দিন মো. তাহের শিপন পরিচালিত ‘একাত্তরের নিশান’, ওয়াজেদ আলী সুমন পরিচালিত ‘সুইট হার্ট’, জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘নিয়তি’, জাকির হোসেন ও জয়দীপ মুখার্জি পরিচালিত ‘শিকারি’, নাদের চৌধুরী পরিচালিত ‘মেয়েটি এখন কোথায় যাবে’, জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘অনেক দামে কেনা’, অমিতাভ রেজা পরিচালিত ‘আয়নাবাজি’, রেদওয়ান রনি পরিচালিত ‘আইসক্রিম’, মো. রফিক সিকদার পরিচালিত ‘ভোলা তো যায় না তারে’, মো. আশিকুর রহমান পরিচালিত ‘সারাংশে তুমি’, অপূর্ব রানা পরিচালিত ‘পুড়ে যায় মন’, তাসমিয়াহ আফরিন পরিচালিত ‘কবি স্বামীর মৃত্যুর পর আমার জবানবন্দি’, সুমনা সিদ্দিকী পরিচালিত ‘মাধো’ ও অনন্য মামুন পরিচালিত ‘অস্তিত্ব’।

এদিকে প্রাথমিক বাছাইয়ে নির্বাচিত ২৮টি চলচ্চিত্রের মধ্যে তিনটি যৌথ প্রযোজনার ছবিও রয়েছে। ছবিগুলো হচ্ছে শঙ্খচিল, নিয়তি এবং শিকারী। তবে জানা যায়, যৌথ প্রযোজনার ছবিগুলোর ক্ষেত্রে কেবল বাংলাদেশি শিল্পী-কলা-কুশলীরাই পুরস্কারের জন্য বিবেচিত হবে।

প্রাথমিক বাছাইয়ে নির্বাচিত এই ২৮টি চলচ্চিত্র থেকে চূড়ান্ত বাছাই করে বিজয়ী চলচ্চিত্র নির্বাচন করবে জুরি বোর্ড। এবারের জুরি বোর্ডের মধ্যে আছেন, সুজেয় শ্যাম, মো. খুরশিদ আলম, কেরামত মওলা, আলমগীর, সুবর্ণা মুস্তাফা, ডিন অধ্যাপক ড. শফিউল আলম ভূঁইয়া এবং সরকারি কয়েকজন আমলা।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: