সর্বশেষ আপডেট : ২৩ মিনিট ১২ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

হাকালুুকির বোরো ধানের বীজতলায় পোকার আক্রমন : হতাশায় চাষীরা

আবদুর রব, বড়লেখা:: হাকালুকি হাওর পারের হাজার হাজার কৃষক গত দুই বছরের বন্যায় ফসল হারানোর ক্ষতি পুষিয়ে ঘুরে দাড়ানোর স্বপ্ন দেখছেন ঠিক তখনি বোরো ধানের বীজতলায় পোকার আক্রমনে তারা দিশেহারা। গত দুই বছর বন্যায় পাকা অর্ধপাকা বোরো ধান তলিয়ে যাওয়ায় হাওপারের কৃষকরা মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখিন হন। গত ২ সপ্তাহ পুর্ব থেকে বীজতলা প্রস্তুত করে কৃষকরা বোরো ধানের বীজ বপন করেন। কিন্তু অঙ্কুর গজাতেই পোকার আক্রমনে হাজার হাজার কৃষক চরম হতাশায় ভুগছেন। তারা চারা রোপন নিয়ে মারাত্মক দুশ্চিন্তায় পড়েছেন। এদিকে বালিকুড়ি ও পটই বিলের নিম্নাঞ্চলে বাধ না থাকায় বিল দু’টির চর্তুদিকের সহস্রাধিক বিঘায় পানির অভাবে বোরো ধান রোপনে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। পোকায় আক্রমনে বোরো চাষীদের মধ্যে চরম হতাশা বিরাজ করলেও হাওরাঞ্চলে স্থানীয় উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাকে পাওয়া যায়নি বলে অভিযোগ রয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলার তালিমপুর, সুজানগর, বর্নি, দাসেরবাজার, দক্ষিণভাগ দক্ষিণ ইউপির প্রায় ১০ হাজার কৃষক হাকালুকি হাওরপারে বোরো ধানের আবাদ করতে বীজ বপন করেন। কিন্তু বীজতলায় চারা গজার সাথেই এক ধরনের পোকা আক্রমন শুরু করে। হাজার হাজার পোকা বীজতলায় ঢুকে বোরো ধানের অঙ্কুর খেয়ে ফেলছে। এতে হাজার হাজার কৃষক ধান রোপন নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন। চারাই যদি না থাকে তবে তারা কি রোপন করবেন। সরেজমিনে হাওরপারের বোরো ধানের বিভিন্ন বীজতলা ঘুরে দেখা গেছে, বীজ বপনের পরই পার্শবর্তী পতিত ভুমি থেকে ২-৩ ইঞ্চি সাইজের বাদামি রঙের একধরনের পোকা ধান থেকে বের হওয়া অঙ্কুর খেয়ে ফেলছে। কৃষক অনন্ত দাস, সুধাংশু দাস, সুভাস দাস, মনোরঞ্জন বিশ্বাস প্রমুখ জানান, বালিকুড়ি ও পটই বিলের পারে বোরো ধান লাগানোর বীজতলা তৈরী করে জন্য গত সপ্তাহে বীজ বপন করেন। অঙ্কুর বের হতেই বীজতলায় হাজার হাজার পোকা আক্রমন করছে। একদিনেই সমস্ত চারা খেয়ে ফেলছে। হাওরপারের সব বীজতলায় এ ধরনের পোকায় আক্রমন করায় কৃষকরা মারাত্মক উদ্বিগ্ন। বোরো চাষীদের মধ্যে চরম হতাশা বিরাজ করলেও হাওরাঞ্চলে স্থানীয় উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তাকে পাওয়া যায়নি বলে তারা অভিযোগ করেন।

এদিকে হাকালুকি হাওরের বিলকুড়ি ও পটই বিলে একটি মাত্র বাধের অভাবে বিল দু’টির চতুর্দিকের সহস্রাধিক বিঘা জমিতে পানির অভাবে বোরো চাষ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

বড়লেখা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কুতুব উদ্দিন জানান, বোরো ধানের বীজতলায় পোকার আক্রমনে হতাশ হওয়ার কিছুই নেই। কৃষি বিভাগ কৃষকদের কীটনাশক ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছে। হাওরাঞ্চলের সব ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাদের কৃষকের পাশে থেকে পরামর্শ দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

 

 

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: