সর্বশেষ আপডেট : ২৬ মিনিট ৩৩ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে দাবি: কোম্পানীগঞ্জে নিরীহ ব্যক্তিদের আসামি করা হয়েছে

কোম্পানীগঞ্জে পরিবেশ অধিদপ্তরের মামলায় যাদের আসামি করা হয়েছে তারা কেউই পরিবেশ ধ্বংসে কোনো সময়ই জড়িত ছিলেন না বলে দাবি করেছেন উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম। মঙ্গলবার সিলেট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ দাবি করে বলেন, বরং পরিবেশ ধ্বংস করে পাথর উত্তোলন করায় স্থানীয় প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশকারীদের মামলায় আসামি করা হয়েছে।

লিখিত বক্তব্যে নুরুল ইসলাম বলেন, শামীম আহমদ আগামী নির্বাচনে উপজেলা নির্বাচন করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ঠিক এ মূহুর্তে একটি দুষ্টুচক্রের ইন্ধনে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। এই মামলার উদ্দেশ্য শামীমকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখা। তিনি বলেন, কোম্পানীগঞ্জের পাথর গোটা দেশের উন্নয়ন কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে। উপজেলা প্রশাসন যান্ত্রিক পদ্ধতিতে উত্তোলিত পাথর থেকে রয়্যালিটি আদায় করছে। এতে কৌশলে প্রশাসনই বোমা মেশিন দিয়ে পাথর উত্তোলনে সহায়তা করছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। বর্তমানে রাজনীতির দিক থেকে কোম্পানীঞ্জের আওয়ামী লীগ নেতা হাজী শামীম আহমদ বড় ফ্যক্টর। তার পরিবারে দুইজন জনপ্রতিনিধি। তার পিতা আলহাজ¦ আব্দুল বাছির কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চেয়ারম্যান। আর বড় ভাই জয়নাল আবেদীন সিলেট জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান। সামনে জাতীয় নির্বাচন সহ উপজেলা নির্বাচনও। উপজেলা নির্বাচনে অংশ নিতে শামীম আহমদ প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তার নামে কোথাও কোনো বোমা মেশিন কিংবা কোনো ধরনের পাথর লুটপাট হচ্ছে না। এটা কোম্পানীগঞ্জের অনেকেই জানেন। এরপরও হাজী শামীম আহমদ ও তার পরিবারের সদস্যদের একের পর এক মামলা দিয়ে বিপর্যস্ত করা হচ্ছে। যার উদ্দেশ্যে হচ্ছে আগামী উপজেলা নির্বাচনে শামীমকে আটকানো। শামীম আহমদের বড় ভাই বিলাল আহমদের উপর যখন মামলা হয় তার আগে তিনি প্রায় ১০ দিন সিলেটের আল হারমাইন হাসপাতালে ‘হার্টস্টোক’ করে ভর্তি হয়েছিলেন। এখন তিনি ডাক্তারের পরামর্শে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। কোম্পানীগঞ্জে ওই চক্র মামলার পর কৌশলে নানা অপপ্রচার চালাচ্ছে দাবি করে নুরুল ইসলাম বলেন, যারা পাথর লুটপাট করছে তারাই এখন কোম্পানীগঞ্জে শামীমের প্রতিপক্ষ। তারা পাথর লুটপাট করে সবকিছুইতেই জড়িয়ে ফেলে শামীমের নাম। আর এটি অত্যন্ত সুকৌশলে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের জন্য করা হচ্ছে। যারা এ কাজ করছে প্রশাসনের সঙ্গে রয়েছে তাদের হার্দিক সর্ম্পক। লুটপাটে তারাই জড়িত। মিথ্যা অপপ্রচার থেকে কোম্পানীগঞ্জবাসীকে রক্ষার জন্য সংবাদ সম্মেলনে সকলের সহযোগিতা কামনা করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি ও জেলা শ্রমিকলীগের সহ সভাপতি আলহাজ¦ আব্দুল ওয়াদুদ, উত্তর রনিখাই আওয়ামী লীগের সভাপতি কালা মিয়া, পূর্ব ইসলামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মুল্লুক হোসেন, সাধারন সম্পাদক মতিউর রহমান, উত্তর রনিখাই আওয়ামী লীগের সভাপতি কৃষ্ণ রঞ্জন সিংহ, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম, ইছাকল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আসাব আলী, উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ন আহবায়ক আব্দুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের লীগের সিনিয়র যুগ্ন আহবাক আব্দুর রহমান, সদস্য এম সোহেল আহমদ, ১ নং পশ্চিম ইসলামপুর ইউপি শ্রমিকলীগের সভাপতি আশরাফুল ইসলাম চান মিয়া, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা নজমুল হক হেলাল, আনোয়ার হোসেন, তেরা মিয়া প্রমুখ। – বিজ্ঞপ্তি

 

 

 

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: