সর্বশেষ আপডেট : ৩৭ মিনিট ৩৫ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বড়লেখায় জামে মসজিদে তালা দেয়া নিয়ে উত্তেজিত মুসল্লিদের থানা ঘেরাও

বড়লেখা প্রতিনিধি:: বড়লেখা উপজেলার সুজানগর ইউনিয়নের বড়থল জামে মসজিদের প্রবেশ গেইটে তালা ঝুলিয়ে দেয়ার ঘটনায় উত্তেজিত মুসল্লিরা রোববার দুপুরে থানা ঘেরাও করেছে। থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ সহিদুর রহমান তদন্তপুর্বক ঘটনাকারীদের আইনের আওতায় আনার আশ্বাস দিলে ক্ষুব্দ মুসল্লিরা ঘেরাও কর্মসুচি প্রত্যাহার করেন। ফজরের নামাজ পড়তে গিয়ে মুসল্লিরা মসজিদে প্রবেশের কলাপসেবল গেটে তালা দেখতে পান। এ ব্যাপারে মসজিদের মোতায়াল্লি কাজী ফয়েজ আহমদ সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের আসামী করে থানায় মামলা করেছেন।

থানা পুলিশ, মসজিদ কমিটি ও মুসল্লিদের সুত্রে জানা গেছে, বড়থল জামে মসজিদ কমিটির মোতায়াল্লিসহ নেতৃবৃন্দ এবং গ্রামবাসীর মধ্যে স্থানীয় কতিপয় ব্যক্তির মামলা মোকদ্দমা সংক্রান্ত পূর্ববিরোধ চলছিল। গ্রামের সরকারী জলমহাল থেকে পাম্প মেশিনে পানি সেচ না করার ব্যাপারে এসব ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়। এ অভিযোগে মসজিদের মোতায়াল্লিসহ কমিটির নেতৃবৃন্দ ও গ্রামবাসীর অনেকেই স্বাক্ষর করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন শুক্রবার জুম্মার নামাজ শুরুর পুর্ব মৃহূর্তে মসজিদের মাইক হাতে নিয়ে তাদের বিরুদ্ধের লিখিত অভিযোগে মসজিদের মোতায়াল্লী কেন স্বাক্ষর করলেন জানতে চায়। তার স্বাক্ষরের কারণেই অন্যরা স্বাক্ষর করেছে দাবী করে ওই ব্যক্তি দুইদিনের মধ্যে এর সুষ্টু বিচার না করলে সে মসজিদে তালা ঝুলিয়ে দিবে বলে হুমকি প্রদান করে। রোববার ভোরে ফজরের নামাজ পড়তে গিয়ে মুসল্লিরা মসজিদে তালা ঝুলতে দেখেন। এতে মুসল্লিদের মধ্যে চরম উত্তেজনা দেখা দেয়। খবর পেয়ে সকাল সাড়ে ৭টায় পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে তালা ভেঙ্গে মসজিদ খুলে দেয়।

মসজিদের মোতায়াল্লি কাজী ফয়েজ আহমদ জানান, বড়থল গ্রামের ভিতরে একটি সরকারী জলমহাল রয়েছে। ৪-৫ ব্যক্তি নিজেদের ইজারাদার দাবী করে অবৈধভাবে পাম্প মেশিনে পানি সেচ কওে মাছ আহরন করে। এতে পানির জন্য কৃষিকাজ ব্যাহত ও লোজজনের তীব্র সমস্যা দেখা দেয়। পানি সেচ না করার জন্য সম্প্রতি জেলা প্রশাসক বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়। তিনিসহ আরো ৩ মসজিদের মোতায়াল্লিগন ছাড়াও অনেকে তাতে স্বাক্ষর করেন। অভিযুক্ত ব্যক্তিরাই ঘোষণা দিয়ে মসজিদে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে। রোববার মুসল্লিগন ফজরের নামাজ মসজিদে পড়তে না পেওে ঠান্ডার মধ্যে আঙিনায় মাটিতে বসে পড়েছে। শিশুদের মক্তবের পড়া বন্ধ রাখতে হয়েছে।

এদিকে মসজিদে তালা ঝুলিয়ে দেয়া দুস্কৃতিকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবীতে দুপুরে বড়থল জামে মসজিদের মোতায়াল্লি কাজী ফয়েজ আহমদ, কোষাধ্যক্ষ রাজিদ আলী, সদস্য আবুল আছ, মিনহাজুর রহমান, তাজির উদ্দিন, আলাল উদ্দিন, কামিল হোসেন, ফজলু মিয়া, তাজ উদ্দিন শেখসহ পঞ্চায়েতের দুই শতাধিক মুসল্লি থানা কমপ্লেক্স ঘেরাও করেন।
সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা সিরাজ উদ্দিন ও সুজানগর ইউপি চেয়ারম্যান নছিব আলীর উপস্থিতিতে থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ সহিদুর রহমান ঘটনাকারীদের দ্রুত আইনের আওতায় নিয়ে আসার আশ্বাস দিলে উত্তেজিত মুসল্লিরা ঘেরাও কর্মসুচি প্রত্যাহার করেন।

থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ সহিদুর রহমান রহমান জানান, মসজিদে তালা দেয়া জঘন্য অপরাধ। খবর পেয়েই পুলিশ তালা ভেঙ্গে দিয়েছে। মসজিদের মোতায়াল্লি থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। পুলিশ ঘটনাকারীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চালাচ্ছে।

 

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: