সর্বশেষ আপডেট : ২০ মিনিট ৩৪ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সুনামগঞ্জে আ’লীগ নেতাসহ ৩১জনকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের, আটক ৫

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলা ও জামালগঞ্জ উপজেলার মধ্যবর্তি ভাইছর হাওরে মাছ ধরা নিয়ে সংঘর্ষে আব্দুল হান্নান (৪৫) নামে জেলে নিহতের এঘটনায় নিহতের এক আতœীয় দিরাই উপজেলার রাফিনগড় ইউনিয়নের সেচনী গ্রামের সিদ্দিক আলীর পুত্র মতিউর রহমান বাদী হয়ে দিরাই উপজেলা আ,লীগের সাংগঠানিক সম্পাদক অভিরাম তালুকদার সহ ৩১জন কে আসামী জামালগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছে। মামলা নং-১,তারিখ-০৫,১১,২০১৭ইং।

এঘটনায় দিরাই ও জামালগঞ্জ থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ৫জনকে আটক করে সুনামগঞ্জ জেল হাজতে প্রেরন করেছে। তারা হল,নিখিল চন্দ্র তালুকদার,সুজন তালুকদার,ভূপতি তালুকদার,যোগেন্দ্র তালুকদার ও অরুন তালুকদার। পাঁচ জন আটকের পর এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে দিরাইয়ের রাফিনগড় ইউনিয়নের খাগাউড়া গ্রামে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। ভয়ে ও গ্রেফতার এড়াতে এই গ্রামে পুরুষ এক বারেই শূন্য হয়ে পেড়েছে। স্থানীয় সুত্রে জানাযায়,জেলার দিরাই উপজেলা ও জামালগঞ্জ উপজেলার মধ্যবর্তি ভাইছর হাওরে মাছ ধরে রাফিনগড় ইউনিয়নের সেচনী গ্রামের শত শত লোকজন উন্মুক্ত ভাবে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করে থাকে। কিন্তু পাশ্বভর্তি খাগাউড়া গ্রামের শৈলন তালুকদারের নেতৃত্বে প্রায় অর্ধ শতাধিক লোকজন মাছ ধরতে বাধা দেয়।

এপ্রেক্ষিতি গত ১৫ অক্টোবর রাফিনগড় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের মাধ্যমে খাগাউড়া ও সেচনী গ্রামের লোকজনের মধ্যে মিলে মিশে মাছ ধরার বিষয়ে আপোষ মিমাংলা হয়। গত শুক্রবার ৩ নভেম্বর রাতে ভাছর হাওরে সেচনী গ্রামের বাসিন্দ আব্দুল হান্নান সহ অন্যান্য জেলেরা মাছ ধরা ধরছিল এসময় দিরাই উপজেলার আ,লীগের সাংগঠানিক সম্পাদক অভিরাম তালুকদারের খাগাউরা এলাকার শৈলন তালুকদারের নেতৃত্বে প্রায় অর্ধ শতাধিক লোকজন ভাইছর হাওরে মাছ ধরতে বাধা দিলে দু-পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এর এক প্রর্যায়ে অভিরাম তালুকদারের লোকজন দেশিয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে আব্দুল হান্নানসহ আগত জেলেদের সবার উপর আতর্কিত হামলা চালায়। এসময় দু-পক্ষের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার এক প্রয়ায়ে আব্দুল হান্নানকে ধরে নিয়ে যায় অভিরাম তালুকদারের লোকজন। এর পর আব্দুল হান্নানের লোকজন রাতব্যাপী চেষ্টা করেও ফিরিয়ে আনতে পারে নি আব্দুল হান্নানকে। এরপর শনিবার বিকালে ৫টায় আব্দুল হান্নানের লাশ ভেশেঁ উঠলে সেচনি গ্রামের লোকজন পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে। ময়না তদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরন করে।

পরে শনিবার সন্ধ্যার পর দিরাই থানা পুলিশ অভিরাম তালুকদারের দিরাই উপজেলার মজলিসপুর বাসায় অভিযান চালিয়ে ৪জনকে আটক করে। দিরাই থানার ওসি মোহাম্মদ আবুল হাসেম এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,নিহতের লাশ ময়না তদন্তের পর আজ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। মামলা হয়েছে। আসামীদের কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না। এপর্যন্ত ৫জন কে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে। সুনামগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দিরাই সার্কেল) বেলায়েত হোসেন বলেন,ঐ ঐলাকার পরিবেশ আমাদের নিয়ন্ত্রনে আছে। শান্তি শৃংখলা বজায় রাখার স্বার্থে ঘটনাস্থলে পুলিশ অবস্থান করছে। মামলার আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

 

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: