সর্বশেষ আপডেট : ২১ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ভারতে কারাভোগ শেষে দেশে ফিরলেন তিন যুবক

নিউজ ডেস্ক:: ভারতে বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগের পর তিন বাংলাদেশি যুবক দেশে ফিরেছেন। রোববার দুপুরে শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলা নাকুগাঁও স্থলবন্দর ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) তাদের বিজিবির কছে হস্তান্তর করে।

ফেরত আসা তিন বাংলাদেশি হলেন- কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার দক্ষিণ আলগারচর গ্রামের গোলাপ মিয়ার ছেলে সোনা মিয়া (৩১), শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার হারিয়াকোনা গ্রামের লক্ষিন্দ্র চিরানের ছেলে রূপান্তর মারাক (২৫) ও কুমিল্লার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার পদ্মাঘাট দক্ষিণপাড়া গ্রামের সুলতান মিয়ার ছেলে সোহেল মিয়া (২৫)।

নালিতাবাড়ীর নাকুগাঁও চেকপোস্টে দায়িত্বরত পুলিশের হাবিলদার মো. আবুল হোসেন জানান, গত বছরেরর ১২ জুন শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার বালিঝুড়ি সীমান্ত দিয়ে সোনা মিয়া ও রূপান্তর মারাক ভারতে অনুপ্রবেশ করে।

এ সময় তারা ভারতীয় বিএসএফ জওয়ানদের হাতে আটক হন। পরে বিএসএফ তাদের পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। তাদের আাদালতের মাধ্যমে ভারতের মেঘালয় রাজ্যের তুরা জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়। সেখানে তারা ১ বছর ৬ মাস ৫ দিন কারাভোগ করেন।

অপরদিকে, চলতি বছরে ৮ এপ্রিল ব্রাহ্মবাড়িয়ার একটি সীমান্ত দিয়ে সোহেল মিয়া ভারতে অনুপ্রবেশ করেন। ভারতে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে তিনি ৬ মাস ২৬ দিন কারাভোগ করেন।

শনিবার তাদের সাজার মেয়াদ শেষ হয়। পরে রোববার দুপুরে নালিতাবাড়ীর নাকুগাঁও চেকপোস্ট দিয়ে তাদের বিজিবির কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এ সময় ভারতের তুরা জেলার ইমিগ্রেশন পুলিশের ইনচার্জ ডি হাজং, নালিতাবাড়ী থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক শাহ আলম, বিএসএফ পোস্ট কমান্ডার আর রণজিত সিং, হাতিপাগার ক্যাম্প কমান্ডার লুৎফর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: