সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ৫৮ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাতক সিমেন্ট কারখানার অকেজো প্ল্যান্ট বিক্রিতে আড়াই কোটি টাকার দুর্নীতি

ছাতক প্রতিনিধি ::
ছাতক সিমেন্ট কারখানার পুরাতন পাওয়ার প্লান্ট টেন্ডারের মাধ্যমে প্রায় আড়াই কোটি টাকায় বিক্রি করা হয়েছে। গত বুধবার বিকেলে কারখানার অভ্যন্তরস্থ এমপিআইসি স্টোরে অনেকটা গোপনীয়তা অবলম্বন করে দরপত্র খুলে সর্বোচ্চ দরদাতার নাম ঘোষণা করা হয়। সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে চট্টগ্রামের বিছমিল্লাহ এন্টারপ্রাইজ নামের একটি প্রতিষ্ঠান ২কোট ৫১ লাখ টাকায় কাজটি বাগিয়ে নেয়। এদিকে স্থানীয় একধিক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মালিক টেন্ডার প্রকৃয়ায় ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ তুলে পুনঃ টেন্ডারের দাবি জানিয়েছেন। তাদের অভিযোগ কাজ বাগিয়ে নেয়া সংঘবদ্ধ সিন্ডিকেট চক্রের বাধার মুখে তারা দরপত্রে অংশ নিতে পারেনি। এর ফলে অন্তত ১০ কোটি টাকা মুল্যের এসর ক্র্যাপস মালামাল মাত্র আড়াই কোটি টাকায় বিক্রি করা হয়েছে। এ নিয়ে বুধবার বিকেলে বঞ্চিত ঠিকাদাররা কারখানা প্রধান ফটকে বিক্ষোভ প্রদর্শন শেষে কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। এ ব্যাপারে থানায় একটি জিডিও করেছেন বলে বঞ্চিত ঠিকাদাররা জানিয়েছেন।
টেন্ডার প্রক্রিয়া নিয়ে দু’দিন ধরে সিমেন্ট কারখানার অভ্যন্তরে চরম উত্তপ্ত পরিস্থিতি বিরাজ করে আসছে। একটি সূত্র জানায়, কারখানার ২.৪ ও ৪.৫ মেগাওয়াটের দু’টি অকেজো পাওয়ার প্ল¬্যান্ট বিক্রয়ের জন্য কারখানা কর্তৃপক্ষ দরপত্র আহবান করে। দরপত্র প্রকৃয়া অনুযায়ী দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশিত হয়। ৩১ অক্টোবর সোমবার শিডিউল ক্রয় ও ১ নভেম্বর বুধবার দুপুর ১২ টা পর্যন্ত দরপত্র জমা দেয়ার শেষ সময় বেঁধে দেয়া ছিল। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ১৯ টি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান তাদের দরপত্র জমা দেয় বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। এর মধ্যে ২ কোটি ৫১ লাখ টাকা সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে বিছমিল্লাহ এন্টারপ্রাইজ কাজটি হাতিয়ে নেয়। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, স্থানীয় প্রভাবশালীদের সমন্বয়ে গঠিত সিন্ডিকেট চক্র কৌশলে অনেক কম মূল্যে কাজটি বাগিয়ে নিয়েছে। এর আগে কারখানায় কর্মকত একটি চক্র এ প্ল্যান্টটি শুধু ৭০ লক্ষ টাকায় বিনা টেন্ডারে বিক্রির চেষ্টা করেছিল। সেনাকল্যাণ সংস্থার কাছে ৭০ লাখ টাকায় বিক্রি করার প্রকৃয়া প্রায় চূড়ান্ত হয়ে ছিল এ চক্রের মাধ্যমে। কিন্ত কর্মকর্তাদের অনেকে ফেঁসে যাওয়ার ভয়ে এ প্রক্রিয়া বাতিল করে খোলা টেন্ডারের মাধ্যমে বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ। কিন্তু এখানেও কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে গোপনীয়তা অবলম্বন ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ উঠেছে। মাত্র কয়েক সপ্তাহের ব্যবধানে অকেজো পাওয়ার প্ল-ান্টের মূল্য প্রায় ৪ গুণ বৃদ্ধি পেয়ে ৭০ লাখ থেকে ২ কোটি ৫১লাখ টাকায় উন্নীত হওয়ার বিষয়টি অনেকটা অবাক করার মতো।
স্থানীয় ঠিাকাদার মেসার্স রুবেল এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী রিমাদ আহমদ রুবেল, মাহি আয়রনের সত্বাধিকারি দুলাল আহমদ খান, রেজা ইলেকট্রনিক্স, মেসার্স চিশতি এন্টারপ্রাইজসহ অন্তত ১৫টি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধিকারীরা অভিযোগ করে জানান, দরপত্র জমা দেয়ার জন্য যথাসময়ের অনেক আগেই তারা উপস্থিত হন। কিন্ত বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে তাদের গেইটে আটকে রাখেন দায়িত্বরত আনসাররা। সিন্ডিকেটের হয়ে কারখানার সিকিউরিটি-আনসাররা আর্থিক সুবিধা নিয়ে তাদেরকে টেন্ডারে অংশ নিতে বাধা দিয়েছেন। এতে সিন্ডিকেট চক্র ও তাদের সাহায্যকারী দালালরা আর্থিক লাভবান হলেও বিসিআইসি অন্তত এক থেকে ২ কোটি টাকা অধিক মূল্য পাওয়া থেকে বঞ্চিত হলো। তারা যে ১৫টি শিডিউল জমা দিতে পারেননি, তাদের প্রত্যেকেরই দরপত্রে ৩ কোটি টাকার উপরে ছিল বলে জানান।
কারখানার দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক নেপাল কৃষ্ণ হাওলাদার কয়েকটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের দেয়া আবেদনের সত্যতা স্বীকার করে জানান, টেন্ডারের ব্যাপারে একটি নিরীক্ষণ কমিটি রয়েছে। স্বচ্ছতার সাথে ওপেন টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। কোনো ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোককে কারখানা ফটকে অটকে রাখা বা টেন্ডারে অংশ নিতে বাধা দেয়া হয়নি। স্থানীয় ৩ কাউন্সলর, থানাপুলিশ ও বিজিবির উপস্থিতিতে টেন্ডার প্রকৃয়া সম্পন্ন করা হয়েছে। একটি পক্ষ সিন্ডিকেট করে বিনা টেন্ডারে কাজটি নেয়ার চেষ্টা করেছিল। কারখানা কর্তৃপক্ষ তা হতে দেয়নি। পুনঃ টেন্ডারের ব্যাপারে তিনি জানান, বিষয়টি সম্পূর্র্ণ বিসিআইসির। কেন্দ্রিয় কার্যালয়ের নির্দেশ অনুযায়ী তারা কাজ করে থাকেন। এর বাইরে কোনো কিছু করা তাদের পক্ষে সম্ভব নয়।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: