সর্বশেষ আপডেট : ৬ মিনিট ১৯ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২১ এপ্রিল, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ৮ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

পরিবহণ মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সংবাদ সম্মেলন

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ফেডারেশনের সিলেট বিভাগীয় সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা সেলিম আহমদ ফলিকসহ শ্রমিক নেতাদের হত্যার উদ্দেশ্যে গত ১৭ অক্টোবর তাজমহল হোটেলে হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ করেছেন পরিবহণ মালিক-শ্রমিক নেতৃবৃন্দ। বুধবার সিলেট প্রেসক্লাবে সিলেট জেলা সড়ক পরিবহণ মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মুক্তিযোদ্ধা সেলিম আহমদ ফলিক বলেন, সিলেট কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের শ্রমিকরা জন্মলগ্ন থেকে সারাদেশের সাথে সড়ক যোগাযোগ রক্ষা করে আসছেন। বিভিন্ন দাবি-দাওয়া নিয়ে প্রশাসন ছাড়া কোনো ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা সংগঠনের সাথে পরিবহণ মালিক-শ্রমিকদের কোনো বিরোধ নেই। কিন্তু কিছু স্বার্থান্বেষী মহল সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে অশান্তি সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে।
তিনি বলেন, ওই স্বার্থান্বেষী মহল ১৭ অক্টোবর শ্রমিক নেতা আবুল কালামকে খুঁজতে গিয়ে তার মালিকাধীন কদমতলী বাস টার্মিনালে অবস্থিত তাজমহল রেস্টুরেন্টে হামলা ও লুটপাট চালায়। এ ঘটনায় দক্ষিণ সুরমা থানায় সিলেট জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মহসিন কামরান গংদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। যার নং ১৪।

তিনি আরো বলেন, মহসিন কামরান গংরা তাজমহল হোটেলের মালিকানা নিয়ে যে অভিযোগ করেছেন তা সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীণ ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। প্রকৃত পক্ষে তাজমহল হোটেলের বৈধ মালিক পরিবহণ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম। ১৭ অক্টোবর মহসিন কামরান গংরা মিসবাহ উদ্দিন তালুকদারের নাম ভাঙ্গিয়ে চাঁদা আদায়ে ব্যর্থ হয়ে তাজমহল হোটেলে হামলা চালিয়েছিল। অথচ মিছবাহ উদ্দিন তালুকদার গত ২২ অক্টোবর দক্ষিণ সুরমা থানায় জিডি করে জানিয়েছেন তিনি কদমতলী বাস টার্মিনালের কোনো কিছুর সাথে জড়িত নন। জিডি নং ১০১৭। মহসিন কামরান নিজেকে মিছবাহ উদ্দিনের লীজ পার্টনার পরিচয় দিলেও জিডিতে মিছবাহ উদ্দিন নিজেকে বাস টার্মিনালের একক ইজারাদার দাবি করেছেন।

সেলিম আহমদ ফলিক আরো বলেন, সিলেটের কদমতলী বাস টার্মিনাল শান্তিপূর্ণভাবে পরিচালনা করে আসছেন পরিবহণ মালিক-শ্রমিক। কিন্তু টার্মিনালে চাঁদাবাজি আদিপত্য বিস্তার ও ত্রাসের রাজত্ব কায়েমের লক্ষ্যে এ সেক্টরের সাথে জড়িত নয় এমন একদল বহিরাগত লোক টার্মিনাল অবৈধভাবে দখলে নিতে চায়। তারা যুবলীগের নাম ভাঙ্গিয়ে প্রভাব খাটিয়ে নৈরাজ্য সৃষ্টির পাঁয়তারা চালাচ্ছে। এ ব্যাপারে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি কামনা করেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আলহাজ জমির আহমদ, আব্দুর রহিম, হিরণ মিয়া, সামছুল হক মানিক, সালাম মিয়া, মোতছির আলী প্রমুখ। – বিজ্ঞপ্তি

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: