সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারী, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ৫ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতির সংবাদ সম্মেলন

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি:: কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতিকে জড়িয়ে পদবঞ্ছিত কতিপয় ব্যক্তিরা বিভিন্ন অপপ্রচার চালানোর প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। নতুন করে এক ব্যক্তিকে দিয়ে চাঁদা দাবির অভিযোগের মাধ্যমে ছাত্র সমাজের মধ্যে হেয় প্রতিপন্ন করতে পদবঞ্ছিত কতিপয় ব্যক্তি গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত বলে অভিযোগ করেছেন উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। রবিবার দুপুরে কমলগঞ্জ প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রাহাত ইমতিয়াজ রিপুল বলেন, গত ৫ মার্চ বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক এসএম জাকির হোসেন এর উপস্থিতিতে কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ এর সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ওই দিন রাতেই মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগ আমাকে সভাপতি ও সাকের আলী সজিবকে সাধারন সম্পাদক করে ১৭ সদস্য বিশিষ্ট কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ এর নতুন কমিটি ঘোষনা করেন। কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই পদবঞ্ছিত কতিপয় স্বার্থান্মেষী ব্যক্তিরা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চক্রান্ত শুরু করেছে। ফেইসবুক সহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও পত্র পত্রিকায় আমাকে রাজাকারের নাতি, মাদকসেবী, মাদক ও গাছ পাচারকারী উল্লেখ করে একের পর এক মিথ্যা, অবাস্তব, উদ্দেশ্য প্রণোদিত প্রতারনামূলক প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছে। তারা ফেসবুকে বিভিন্ন নাম পরিচয়হীন আইডি থেকে আমার বিরুদ্ধে মনগড়া, কাল্পনিক, বানানো ইস্যু নিয়ে অপপ্রচারে লিপ্ত। মিজানুর রহমান শিপলু ছাত্রলীগের কেউ নয়। সে এক সময় জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কর্মী ছিল। সুবিধাভোগী ছাত্রলীগ নামদারীরা তাকে ছত্রলীগ বলে প্রচার করছে। বর্তমানে সে বিবাহিত। ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী কোন বিবাহিত ছাত্রলীগের কেউ নয়।

আমার বিরুদ্ধে অভিযোগকারী শিপলু ও তার বাবা মিছির মিয়া এলাকায় সমালোচিত। ইতিমধ্যে মিছির ও তার ছেলে শিবির এবং শিপলু জোর পূর্বক এলাকায় কয়েকজনের জায়গা জমি দখল করেছে। মিছির মিয়া সক্রিয়ভাবে বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত। শিপলুর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে চাঁদা দাবী ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘটনার সাথে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি হিসাবে আমার কোন সম্পৃক্ততা নেই। চাঁদা দাবীর বিষয়টি সম্পূর্ণ সাজানো। তাছাড়া সংবাদ সম্মেলনে শিপলু আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে যে কটুক্তি করেছে তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান ছাত্রলীগ সভাপতি। প্রতিহিংসা ও ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে অপপ্রচাকারীদের অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দসহ অন্যান্য দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। তিনি বলেন, আমি সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পূর্বে কমলগঞ্জ কলেজ ছাত্রলীগ ও কমলগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করি। ছাত্রলীগের প্রতি আন্তরিকতা, দায়িত্বশীলতা, নেতাদের প্রতি অগাধ শ্রদ্ধা ও সম্মান এবং আমার পরিবার সদস্যরা আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত।

সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সাকের আলী সজিব সভাপতি রাহাত ইমতিয়াজ রিপুলের বিরুদ্ধে অব্যাহত মিথ্যা অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদ জানান। এ সময়ে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি ফয়সল আহমদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুমন আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক রুবেল চৌধুরী, কমলগঞ্জ কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি আব্দুল হাকিম, সাধারণ সম্পাদক হাসান আহমদ প্রমুখ।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: