সর্বশেষ আপডেট : ৩০ মিনিট ২৬ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ৩ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কানাইঘাটে স্কুল ছাত্রী যৌননিগ্রহের প্রতিবাদে লোভার মুখে হাজারো মানুষ

কানাইঘাট প্রতিনিধি:: কানাইঘাট উপজেলার লোভার মুখে অবস্থিত চরিপাড়া স্কুল এন্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রীর সাথে যৌননিগ্রহের প্রতিবাদে চরিপাড়া স্কুল এন্ড কলেজের ঐতিহ্য সংরক্ষণ কমিটির ব্যানারে এক মতবিনিময় সভায় এলাকার হাজারো মানুষ এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

শুক্রবার বিকাল ৩ টায় চরিপাড়া স্কুল এন্ড কলেজের হল রুমে সাতবাক নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক আব্দুল জলিলের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব আলহাজ¦ সাব্বির আহমদের পরিচালনায় মতবিনিময় সভা শুরু হলে সাতবাঁক সহ এ এলাকার বিভিন্ন গ্রামের হাজারো মানুষ গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি উপেক্ষা করে দলে দলে সভায় এসে মাষ্টার ইসলাম উদ্দিনের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি ও ছাত্রী যৌননিগ্রহের তীব্র প্রতিবাদ জানায়। এ সময় বৃহত্তর জৈন্তার ১৭ পরগণার বিশিষ্ট মুরব্বী আলহাজ¦ ইফজালুর রহমান ও সাতবাঁক ইউপির চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মস্তাক আহমদ পলাশ সার্বিক বিষয়ে সুষ্ঠ সমাধানের আশ^স্থ করে তাদের শান্ত করেন।

সভায় সাতবাঁেকর গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বৃহত্তর জৈন্তার ১৭ পরগণার বিশিষ্ট মুরব্বী আলহাজ¦ ইফজালুর রহমান, কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান সমিতির সহ-সভাপতি, জেলা আ”লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সাতবাঁক ইউপির চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মস্তাক আহমদ পলাশ, ফজলুর রহমান, মাষ্টার সাব্বির আহমদ, মখদ্দুস আলী, আব্দুল জালাল, মাষ্টার ছয়েফ উদ্দিন, আমির উদ্দিন, মাজর উদ্দিন, আব্দুল কাহির, শিব্বির আহমদ বাবলু, নজরুল ইসলাম, আব্দুন নুর, ফরিদ আহমদ উপস্থিত ছিলেন সাতবাঁক ইউপির সদস্য রইছ উদ্দিন, ফারুক আহমদ, সাহিকুল আলম, সফিক আহমদ, হেলাল উদ্দিন মামুন, নজরুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর শামীম কামরুল সহ শতাধিক নাগরিক কমিটির নেতৃবৃন্দ।

এ সময় বক্তরা একটি কথা বার বার উল্লেখ করে বলেন চরিপাড়া স্কুল এন্ড কলেজে এটি নতুন কাহিনী নয় দুর্বল ম্যানেজিং কমিটির কারনে বার বার এখানে ছাত্রী যৌননিগ্রহের শিকার হচ্ছে। আর ম্যানেজিং কমিটি তাদের স্বার্থ হাসিলে শিক্ষকদের সাথে আতাত করে আজকের মত বিষয় গুলো ধামাপাচা দিয়ে আসছে। যার কারনে শিক্ষকরা মেয়েদের শীলতাহানী করতে দ্বিদ্ধাবোধ করে না। তবে আলহাজ¦ মস্তাক আহমদ পলাশ তার বক্তব্যে বলেন সাতবাঁেকর উন্নয়ন তথা শিক্ষা প্রতিষ্টান নিয়ে কোন রাজনীতি চলবে না। সাতবাঁকের ঐতিহ্য ধরে রাখার পাশাপশি শিক্ষার মান বৃদ্ধিতে আমাদের এগিয়ে আসতে হবে। কারন আমরা মানুষের সেবা সহ এলাকার কাজ করতে চাই। অপরাধী যেই হউক না কেন তাকে আইনের আওতায় আনতে হবে। পরে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি মাষ্টার জার উল্লাহ, সদস্য সচিব ফজলুর রহমান, সাব্বির আহমদ, নুরুল আমিন, আব্দুস ছালাম, সাজ উদ্দিন সাজু সহ বেশ কিছু নেতৃবৃন্দ সভায় উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন। এবং তারা বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে আগামী ১৫ দিনের সময় নেওয়ার প্রস্তাব করেন। এতে সর্বসম্মতিক্রমে ইফলালুর রহমান ও মস্তাক আহমদ পলাশকে উপদেষ্টা মনোণীত করে ২০ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির আশ^াসের পেক্ষিতে নিদিষ্ট সময় পর্যন্ত নাগরিক কমিটির সকল কর্মসূচী স্থগিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব আলহাজ¦ সাব্বির আহমদ।

 

 

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: