সর্বশেষ আপডেট : ৮ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ২০ এপ্রিল, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ৭ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

আর কোনো মা’কে যেন তাঁর বাচ্চা হারাতে না হয় — ইশিকা

বিনোদন ডেস্ক ::
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। শুধুমাত্র টাকার জন্য পারভীন নামের এক গর্ভবতী নারীর সন্তান প্রসব করায়নি রাজধানীর আজিমপুর মাতৃসদন হাসপাতাল। যার কারণে রাস্তার কিনারে সন্তান জন্ম দেন পারভীন। কিন্তু নির্মমতা চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছায় তার নবজাতক সন্তানের মৃত্যুতে। মানবতা এখানেই প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে যায়। কোথায় মানবতা আজ?

ভিডিওটি অনলাইন মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে গণমাধ্যমের অনুসন্ধানে উঠে আসে বিস্তারিত। জানা যায়, গত মঙ্গলবার (১৭ অক্টোবর) পারভীন প্রসব ব্যথা নিয়ে প্রথমে ঢাকা মেডিকেল এবং সলিমুল্লাহ মেডিকেল হাসপাতালে যান। কিন্তু কোথাও তার চিকিৎসা করায়নি কর্তৃপক্ষ। পরবর্তীতে তিনি আজিমপুরের মাতৃসদন হাসপাতালে গিয়েও পাননি প্রাপ্য সেবা। যার ফলাফল, তার নবজাতক সন্তান আজ ওপারে!

এমন হৃদয় বিদারক ঘটনায় নাড়া দিয়েছে সাধারণ মানুষের বিবেককে। প্রতিবাদী আওয়াজ তুলছেন অনেকেই। চুপ করে নেই শোবিজ তারকারাও। পারভীনের এমন নির্মমতার শিকার হওয়া নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও উপস্থাপক ঈশিকা খান। বুধবার (১৮ অক্টোবর) ফেসবুকে ভিডিও বার্তা দিয়ে সবার কাছে আহ্বান জানিয়েছেন, যেন আর কখনো কোনো মা’কে এমন নির্মম পরিস্থিতির শিকার না হতে হয়।

ঈশিকা তার ভিডিও বার্তায় বলেন, এই হাসপাতালের ব্যবস্থাপনায় যারা আছে, আমি চাইবো সরকার তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নেবে। পরবর্তীতে আর কোনো মা’কে যেন তার বাচ্চাকে না হারাতে হয়। কারণ মা হওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। যারা মা হয়েছেন, বা যারা হতে পারেননি, তারা জানেন। যারা মা হন, তারাই জানেন একটা সন্তানের মর্মটা। সেজন্যই মায়েদের সবার ওপরে রাখা হয়।

ঈশিকা আরও বলেন, আমরা ৭ লাখ রোহিঙ্গাকে যদি আশ্রয় দিতে পারি, সেখানে নিজেদের একজন গর্ভবতী মা’কে আমরা এই সামান্যটুকু সেবা দিতে পারি না? এমন একজন মা’কে দেখলে তো যে কারোর এগিয়ে আসার কথা। ১৫০০ টাকার অভাবে একটা বাচ্চা জন্ম নিয়েও মারা যায়, আর আমরা তামাশা দেখি, মজা নিই! বাইরের দেশের একজন ডাক্তার নার্সের মতো সেবা দিয়ে থাকে। কারণ তাদের কাছে একটা বাচ্চা, একজন মা, একটা জীবন অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু আমাদের এখানে যেন একটা প্রাণের কোনো দাম নেই!

আজিমপুর মাতৃসদন হাসপাতালের যেসব কর্মীদের অবহেলায় পারভীন তার বাচ্চাকে হারিয়েছেন, তাদের শাস্তির দাবি জানিয়ে ঈশিকা বলেন, আমি সরকারের কাছে অনুরোধ করে বলছি, এটার বিচার করুন। আমরা সবাই মিলে সচেতন না হলে, রাস্তায় এমন হাজার বাচ্চা জন্ম নিয়েও বাঁচতে পারবে না। মরে যাবে। আর আমরা তামাশা দেখবো!

প্রসঙ্গত, এই ঘটনার পরে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং একজন দাই’কে বরখাস্ত করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: