সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৩৯ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২০ জানুয়ারী, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ৭ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

লাগু পাপে গুরু দণ্ড !

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ::
অনুমতি না নিয়ে বিহারের এক গ্রাম প্রধানের বাড়িতে ঢুকে পড়েছিলেন ওই এলাকারই এক বয়স্ক লোক। এরজন্য তার ওপর অমানবিক নিপীড়ণ চালানো হয়েছে। তাকে লাঠি আর জুতাপেটা করেই ক্ষান্ত হননি ওই গ্রাম প্রধান। মাটিতে থুথু ফেলে লেহন করতে বাধ্য করা হয়েছে ওই বয়স্ক নাপিতকে।

এই অমানবিক নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নিতীশ কুমারের এলাকা বিহারশরিফ জেলার এক গ্রামে। বুধবার সন্ধ্যায় অজয়পুর গ্রামের গ্রাম প্রধান তথা সরপঞ্চায়েত সুরেন্দ্র যাদবের বাড়িতে যান ৫১ বছরের মহেষ ঠাকুর। তিনি সেখানে গিয়েছিলেন সরকারি প্রকল্পের বিষয়ে বিস্তারিত জানার জন্য। আর তিনি ঢুকে পড়েছিলেন কোনো অনুমতি ছাড়াই। তাছাড়া তিনি এটাও জানতেন না, বাড়িতে কেবল নারীরা আছেন, কোনো পুরুষ সদস্য নেই সেখানে।

এতে প্রচণ্ড ক্ষেপে যান সরপঞ্চায়েত সুরেন্দ্র যাদব। গ্রামের অতি সাধারণ একজন মানুষের কি করে ধৃষ্টতা হয় কি করে, কাউকে কিছু না বলে সরপঞ্চের বাড়িতে ঢুকে পরার! সরপঞ্চ মানে তো সমগ্র গ্রামের মাথা।

‘অপরাধী’ নাপিতের ধৃষ্টতার শাস্তি দিতে বুধবার সন্ধ্যায় সালিশী ডাকেন সুরেন্দ্র যাদব। বিচারে তাকে লাঠি দিয়ে পেটানো হয়। এরপর জুতাপেটা করেন ওই বাড়িরই মেয়েরা। সবশেষে মাটিতে থুতু ফেলে তা চাটতে বাধ্য করা হয় ওই নাপিত মহেষ ঠাকুরকে।

এই ঘটনায় গতকাল শুক্রবার আটজনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। তবে এখনও কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।

এই নির্যাতনের ভিডিও সোসাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে গোটা ভারত জুড়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া হয়েছে। একজন টুইটে লেখেন, ‘বিহারে তো এটি অতি সাধারণ ঘটনা।’ আরেক ইউজারের প্রশ্ন, ‘প্রস্তর যুগ থেকে কবে বেরিয়ে আসবে বিহার?’

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: