সর্বশেষ আপডেট : ২৪ মিনিট ১২ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ৩ মাঘ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

পুতিনের পথের কাঁটা তিনি?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: রাশিয়ার আগামী বছরের নির্বাচনে দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ঘোষণা দিয়ে ব্যাপক শোরগোল ফেলেছেন এক টেলিভিশন তারকা। দেশটির প্রখ্যাত টিভি ব্যক্তিত্ব সেনিয়া সবচ্যাক বলেছেন, তিনি আগামী বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়াইয়ের পরিকল্পনা করেছেন। এজন্য তিনি প্রেসিডেন্ট পুতিনের প্রতি বিরক্ত ভোটারদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন; যদিও তার জয়ের সম্ভাবনা একেবারেই ক্ষীণ।

মতামত জরিপগুলো বলছে, প্রায় দুই দশক ধরে রাশিয়ার রাজনীতির নিয়ন্ত্রকের ভূমিকায় থাকা ভ্লাদিমির পুতিন আবারো সহজেই নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন। আগামী মার্চে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। পুতিন চতুর্থ মেয়াদে প্রেসিডেন্ট হওয়ার এই দৌড়ে অংশ নেবেন কিনা তা এখনো জানাননি।

তবে দেশটির সংখ্যালঘু ভোটাররা ক্রেমলিন প্রধানের বিরুদ্ধে দুর্নীতিগ্রস্ত একটি ব্যবস্থা জারি রাখার অভিযোগ এনেছেন। পুতিনের সমালোচক ও বিরোধী দলীয় নেতা অ্যালেক্সি নাভালনি প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে ক্রেমলিনের বড় ধরনের প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন। তিনি বলেছেন, পুতিনের দুর্নীতিগ্রস্ত শাসন ব্যবস্থা রাশিয়াকে বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করেছে।

রুশ কর্মকর্তারা বলছেন, অপরাধের দায়ে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় নাভালনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের জন্য অযোগ্য। তবে তিনি বলেছেন, তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ ভিত্তিহীন। মার্কিন টেলিভিশন তারকা প্যারিস হিলটনের সঙ্গে তুলনা করা হয় সেনিয়া সবচ্যাক; এমনকি তাকে রাশিয়ার প্যারিস হিলটন বলা হয়।

পুতিনের সাবেক পরামর্শকের মেয়ে সবচ্যাক বলেছেন, তিনি নির্বাচনে লড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কারণ বছরের পর বছর ধরে একই রাজনীতিকদের দেখতে দেখতে তিনি ক্লান্ত। বুধবার সন্ধ্যায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এক ভিডিওতে সেনিয়া সবচ্যাক বলেন, দেশের সংবিধান অনুযায়ী রাশিয়ার শীর্ষ রাজনৈতিক পদের জন্য লড়াইয়ের অধিকার আছে তার। রুশ সংবিধান অনুযায়ী, প্রেসিডেন্ট পদে লড়াইয়ের জন্য প্রার্থীর বয়স কমপক্ষে ৩৫ বছর হতে হবে।

‘আমার বয়স যখন ১৮ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি; সেই সময়ই রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট হয়েছিলেন পুতিন। ওই বছর যে শিশুরা জন্ম নিয়েছিল চলতি বছরে তারা ভোট দেবেন। শুধু এটাই ভাবছি।’

ঘোষণা দিলেও সবচ্যাক নির্বাচনে লড়াইয়ের অযোগ্য বলে জানিয়েছে ক্রেমলিন। পিটার্সবুর্গের সাবেক মেয়র, সংস্কারপন্থী নেতা আনাতোলি সবচ্যাকের মেয়ে সেনিয়া সবচ্যাক। ১৯৯০ সালে পুতিন সাবেক এই মেয়ারকে সিটি হলের কর্মকর্তা হিসাবে নিয়োগ দিয়েছিলেন; ২০০০ সালে মারা যান তিনি।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: