সর্বশেষ আপডেট : ১৮ মিনিট ৫৩ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৩ পৌষ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জুড়ীর নির্যাতিত সেই গৃহবধু নিরাপত্তাহীনতায়, এখন রয়েছেন আত্মগোপনে

বিশেষ প্রতিনিধি : বাবার বাড়ি কুলাউড়া উপজেলার জয়চন্ডী ইউনিয়নের দানাপুর গ্রামে। কিš’ সেখানে যা”েছন না লোকলজ্জার ভয়ে। নির্যাতনকারী স্বামী বদই মিয়া এতটাই বেপরোয়া যে, জেল ফাঁসির ভয় করে না। কুলাউড়া উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ করে অনেকটা আত্মগোপনে আছেন জুড়ী উপজেলার গোয়ালবাড়ী ইউনিয়নের শুকনাছড়া গ্রামে স্বামীর নির্যাতনের শিকার গ”হবধু রাবিয়া বেগম। কুলাউড়া হাসপাতালের চিকিৎসাধীন গৃহবধু রাবিয়া বেগম জানান, বাবা নেই কোথায় আশ্রয় নেবেন। ২ বোন আছে তাদের কাছেও যেতে পারছেন না। স্বামীর অমানবিক নির্যাতনের কথা বলতে বলতে কন্ঠরোধ হয়ে আসে। দু’চোখ বেয়ে গড়িয়ে পড়ছিলো জলধারা। মিথ্যা অপবাদ আর ন্যাড়া মাথা নিয়ে তিনি কার দ্বারে গিয়ে দাঁড়াবেন-এ দুঃশ্চিন্তায় উদ্বিগ্ন ছিলেন রাবিয়া বেগম। তাছাড়া নির্যাতনকারী স্বামী বদই মিয়া তাকে যেকোন সময় প্রাণে মেরে ফেলতে পারে- এই ভয়ও ছিলো রাবেয়া বেগমের মনে। রাবিয়া বেগম জানান, তার স্বামী বদই মিয়া প্রায়ই তাকে শারীরিক নির্যাতন করেন। পেশায় হাতির চালক (মাহুত) স্বামী একাধিক বিয়ে করেছেন। আগের স্ত্রীও নির্যাতনের শিকার হয়ে স্বামীর ঘর ছেড়েছেন। কিন্তু ‘৫ বছরের একমাত্র ছেলের দিকে তাকিয়ে সকল নির্যাতন সহ্য করতেন। স্বামীর নির্যাতনের ভয়ে ২৮ সেপ্টেম্বর তিনি বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে যান। স্থানীয় লোকজনের মধ্যস্থতায় বাড়ি ফিরেন। কিন্তু ৩০ সেপ্টেম্বর শনিবার মাঝ রাতে বদই মিয়া বাড়িতে ফিরে হাত পেছন দিকে নিয়ে বেঁধে ফেলেন। দড়ি ও গামছা দিয়ে শরীরে দু’দফা বাঁধে। গোপনাঙ্গে লাথি ও চড় থাপ্পড় মারতে থাকেন। এক পর্যায়ে মরিচের গুড়া গোপনাঙ্গে ঢেলে দেয়। চিৎকার করলে দা দিয়ে কেটে ফেলার হুমকি দেয়। নির্যাতনের এক পর্যায়ে তিনি নিস্তেজ হয়ে পড়েন। এরপর ব্লেড দিয়ে মাথার চুল কেটে ন্যাড়া করে ফেলে। ১ অক্টোবর রোববার সারাদিন শরীরের যন্ত্রণা নিয়ে বাড়িতে কাতরাতে থাকেন। পরদিন সোমবার সুযোগ বুঝে বাড়ি থেকে পালিয়ে যান এবং বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যানকে অবগত করেন। মঙ্গলবার দুপুরে জুড়ী থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ দেন এবং কুলাউড়া হাসপাতালে ভর্তি হন।
৪ অক্টোবর বুধবার রাতে উদ্বেগ উৎকন্ঠা নিয়ে মাঝ রাতে হাসপাতাল ছাড়েন। এরপর থেকে আত্মগোপনে আছেন। ৬ অক্টোবর শুক্রবার নির্যাতিতা রাবিয়া বেগম জানান, তার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোন নাম্বারটিতে ফোন দিয়ে বদই মিয়া তাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দি”েছ। এমতাবস্থায় তিনি চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন। তিনি এধরনের বর্বর হামলাকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান। যাতে আর কোন নারীকে তার হাতে এভাবে নিগৃহিত হতে না হয়। জুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুধীন চন্দ্র দাস জানান, এঘটনায় নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে। আসামী ধরার জন্য একাধিকবার অভিযান চালানো হয়েছে। চেষ্টা অব্যাহত আছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: