সর্বশেষ আপডেট : ৩৮ মিনিট ৪৯ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১ পৌষ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

আজ প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে সমাপ্তি ঘটবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ এই ধর্মীয় উৎসবের

স্টাফ রিপোর্টার::
ভোর হতেই ঝুম বৃষ্টি, সেই বৃষ্টির বাধা উপেক্ষা করে সকাল থেকে মন্ডপে মন্ডপে ভিড় করেছেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা। গতকাল শুক্রবার দুর্গোৎসবের তৃতীয় দিন মহানবমী তিথি; এদিন ষোড়শ উপচারে দেবীর বন্দনা ও মহাস্নান-যজ্ঞ, আর সন্ধ্যায় আরতি বন্দনায় ‘আনন্দময়ী’র অর্চনা করছেন তারা। দেবী দুর্গা চরণে পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ করে ভক্তরা শপথ নিয়েছেন, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণের পথে তারা জোর পদক্ষেপ নেবেন। হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসবে বিদায়ের সুর বাজতে শুরু করেছে। শারদীয় দুর্গাপূজার চতুর্থ দিন মহানবমী।

আজ বিদায় নেবেন মা দুর্গা। সনাতন ধর্মাবলম্বীরা পালন করবেন বিজয়া দশমী। আজ মর্ত্য ছেড়ে কৈলাসে স্বামীগৃহে ফিরে যাবেন দুর্গতিনাশিনী দেবীদুর্গা। আর পেছনে ফেলে যাবেন ভক্তদের চার দিনের আনন্দ-উল্লাস আর বিজয়ার দিনের অশ্রু। মহানবমী তিথিতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে মহানবমী কল্পারম্ভ বিহিত ও সন্ধি পূজা। নানা আচারের মধ্য দিয়ে মহানবমীর পূজা শেষে ভক্তরা দেবীর চরণে পুষ্পাঞ্জলি দেবেন। আজ শনিবার শুভ বিজয়া দশমী। প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে সমাপ্তি ঘটবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ এই ধর্মীয় উৎসবের।

নগরীর মির্জাজাঙ্গালে নিম্বাক মন্দিরে পূজা করতে আসা লোরা বিশ্বাস বলেন, “নিজের জন্য প্রার্থনা করছি, পাশাপাশি চাইব এ দেশে যেন কোনো অন্যায়-অত্যাচার না হয়। সবচেয়ে বেশি করে চাইব, এ দেশ থেকে সাম্প্রদায়িকতা যেন তিরোহিত হয়। ধর্মের নামে কোনো হত্যা বা অনাচার যেন না হয়। মহানবমীর পূজা সম্পর্কে সিলেট মহানগর পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত বলেন, আজ আমরা দেবীকে ষোড়শ উপচারে বন্দনা করছি। তারপর মহাস্নান। দেবী আর মাত্র একদিন থাকবেন মর্ত্য।ে মায়ের কাছে আমরা প্রার্থনা করছি, ধরায় যেন সর্বদা শান্তি বিরাজ করে। কোথাও যেন কোনো দ্বন্দ্ব-সংঘাত না বাধে।
পরে তিনি মার্কয়ে, স্কন্দ, বরাহ, নারদসহ ছয়টি পুরাণ থেকে মহাযজ্ঞানুষ্ঠানের ব্যাখ্যা শুনিয়ে বলেন, আসুরিক রিপু বা প্রবৃত্তি তিরোহিত হয়ে সকলে যেন এক সত্যনিষ্ঠ জীবনযাপন করতে পারেন, যজ্ঞানুষ্ঠানে আজ আমরা সেই প্রার্থনা করছি।

শাস্ত্র বলছে, সপ্তমী, অর্থাৎ দেবীর আগমনের দিন বুধবার এবং ফেরার দিন শনিবার হওয়ায় দুর্গা এবার আসছেন নৌকায় চড়ে, যাবেন ঘোড়ায়। দুর্গার নৌকায় চড়ে মর্ত্যে আসার অর্থ হল- শস্যবৃদ্ধিস্তুথাজলম’। অর্থাৎ শস্যবৃদ্ধির সম্ভাবনা। আর ঘোড়ায় চেপে দেবীর বিদায়ের মানে হল- ‘ছত্রভঙ্গস্তুরঙ্গমে’; মানে রাজনৈতিক উত্থান-পতন, সামাজিক বিশৃঙ্খলা, অরাজকতা, দুর্ঘটনা, অপমৃত্যুর শঙ্কা।
নগরীর সুরমা নদীতে আজ বিকেলে প্রতিমা বিসর্জন দেওয়া হবে। বিসর্জন উপলক্ষ্যে ঘাটে নিরাপত্তা ব্যবস্থার পাশাপাশি পর্যাপ্ত আলোকসজ্জা থাকার কথা জানিয়েছেন মহানগর পূজা উদযাপন কমিটির নেতারা।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: