সর্বশেষ আপডেট : ২৮ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বিভিন্ন কর্মসূচিতে সিলেটে বিশ্ব পর্যটন দিবস উদযাপন

স্টাফ রিপোর্টার ::
সারা বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় সিলেটেও নানান কর্মসূচির মধ্য দিয়ে জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে পালিত হয়েছে বিশ্ব পর্যটন দিবস। এছাড়া বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন সিলেট ইউনিট, কোম্পানীগঞ্জ ট্যুরিস্ট ক্লাব, গোয়াইনঘাট উপজেলা প্রশাসন ও জাফলং ট্যুরিস্ট ক্লাব পৃথকভাবে দিবসটি উপলক্ষ্যে র‌্যালি ও আলোচনাসভা আযোজন করে।
সিলেট জেলা প্রশাসন : বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষ্যে গতকাল বুধবার সকালে সিলেট জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে র‌্যালীতে অংশ নেন সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. শহিদুল ইসলাম চৌধুরী।সিলেট প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরামুল কবির, ট্যুরিস্ট পুলিশ সিলেট জোনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মুশাররফ হোসেন,পর্যটন কর্পোরেশন সিলেটের বিদায়ি ম্যানেজার জাহিদ হাসান, নবাগত ম্যানেজার আখলাকুর রহমান, ওয়ার্কার্স পার্টি সিলেটের সাধারণ সম্পাদক সিকান্দার আলী, সিলেট ট্যুরিস্ট ক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক হুমায়ুন কবির লিটন , সহসাধারণ সম্পাদক ফখরুল ইসলাম মিয়া, এমসি কলেজ ট্যুরিস্ট ক্লাবের সহসভাপতি সাংবাদিক আবু বকর সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম রাফী, আটাব সিলেটের সদস্য আব্দুল কাদির, হাব সিলেটের সহসভাপতি তৈয়বুর রহমান, সিলেট ট্যুরিস্ট ক্লাবের প্রচার সম্পাদক মাজহুরুল ইসললাম সাদি, সদস্য দেলোয়ার হোসেন রানা, শাহজালাল ট্যুরিস্ট সোসাইটির সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম রইসুল খান, সিলেট আটাব এর সাধারণ সম্পাদক রেদওয়া, নির্বাহী সদস্য দেওয়ান রুশো চৌধুরী, সিলেট সুরমা ক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক খালেদ আহমদ।
আটাব সিলেট জোন, সিলেট ট্যুরিস্ট ক্লাব, এমসি কলেজ ট্যুরিস্ট ক্লাব, শাহজালাল ট্যুরস্ট সোসাইটি সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত র‌্যালিতে অংশ নেন সিলেট প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। ‘টেকসই পর্যটন-উন্নয়নের হাতিয়ার’ এই প্রতিপাদ্য সামনে রেখে পালিত পর্যটন দিবসের বিভিন্ন কর্মসূচিতে ট্যুরিস্ট সংগঠন ও অন্যান্য ব্যবসায়ী সংগঠনের সদস্যরা সিলেটকে পর্যটন নগরী ঘোষণার দাবি জানান।
আটাব সিলেট জোন ও সিলেট ট্যুরিস্ট ক্লাব : জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল আহাদ বলেছেন, সিলেট বাংলাদেশের অন্যতম পর্যটন অঞ্চল। সরকার এ পর্যটন অঞ্চলের সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে চায়। এই লক্ষ্যে পর্যটনের উন্নয়নে প্রশাসনের অন্যান্য বিভাগের সাথে সিলেট জেলা পরিষদ নানামুখী উদ্যোগ বাস্তবায়নে কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। তিনি বলেন, সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে আমরা সব ধরনের কাজ সুন্দরভাবে সম্পন্ন করতে বদ্ধপরিকর। সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরের পাশে পর্যটন ৪৪ একর জায়গা বাউন্ডারি দিয়ে পর্যটন জোন তৈরির কাজ হচ্ছে বলেন বক্তব্যে উল্লেখ করেন। তিনি রাতারগুল, জাফলং ও বিছানাকান্দিতে বাসার জায়গা, ওয়াশ ব্লক ও টাওয়ার নির্মাণের কাজের টেন্ডার হয়েছে কাজ শুরু হবে বলে জানান।
তিনি গতকাল বুধবার জেলা পরিষদ মিলনায়তনে বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষ্যে জেলা পরিষদ সিলেটের সহযোগিতায় আটাব সিলেট জোন ও সিলেট ট্যুরিস্ট ক্লাবের উদ্যোগে আলোচনাসভা প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন। আটাব সিলেটের সভাপতি আব্দুল জব্বার জলিলের সভাপতিত্বে এবং সিলেট ট্যুরিস্ট ক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক হুমায়ুন কবির লিটনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায়
বিশেষ অতিথির বক্তব্য অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. শহিদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ট্যুরিজম শিল্প রক্ষা করা সবার দায়িত্ব। সিলেটের পর্যটন বাংলাদেশের জন্য বড় সম্পদ। এজন্য সরকার ব্যাপক কর্মসূচি নিয়েছে। পর্যটনের উন্নয়নে প্রত্যেক জেলায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (পর্যটন) এর পদ সৃষ্টির কাজ চলছে বলে তিনি জানান। এজন্য সবাইকে যার যার জায়গা থেকে পর্যটনের উন্নয়নে এগিয়ে আসার আহবান জানান।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরামুল কবির, ট্যুরিস্ট পুলিশ সিলেট জোনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মুশাররফ হোসেন । বক্তব্য রাখেন পর্যটন কর্পোরেশন সিলেটের বিদায়ি ম্যানেজার জাহিদ হাসান, নবাগত ম্যানেজার আখলাকুর রহমান, ওয়ার্কার্স পার্টি সিলেটের সাধারন সম্পাদক সিকান্দার আলী, স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিলেট ট্যুরিস্ট ক্লাবের সহসাধারণ সম্পাদক ফখরুল ইসলাম মিয়া ।
আরো বক্তব্য রাখেন এমসি কলেজ ট্যুরিস্ট ক্লাবের সহসভাপতি সাংবাদিক আবু বকর সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম রাফী, আটাব সিলেটের সদস্য আব্দুল কাদির, হাব সিলেটের সহসভাপতি তৈয়বুর রহমান, সিলেট ট্যুরিস্ট ক্লাবের প্রচার সম্পাদক মাজহুরুল ইসললাম সাদি, সদস্য দেলোয়ার হোসেন রানা, শাহজালাল ট্যুরিস্ট সোসাইটির সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম রইসুল খান। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন সিলেট আটাব এর সাধারণ সম্পাদক রেদওয়া, নির্বাহী সদস্য দেওয়ান রুশো চৌধুরী, সিলেট সুরমা ক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক খালেদ আহমদসহ সিলেট পর্যটন কর্পোরেশনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ, জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ ও বিভিন্ন সংগঠনের সদস্যরা।
কোম্পানীগঞ্জ ট্যুরিস্ট ক্লাব : প্রতিনিধি জানান, টেকসই পর্যটন-উন্নয়নের হাতিয়ার প্রতিপাদ্য সামনে রেখে কোম্পানীগঞ্জে বিশ্ব পর্যটন দিবস উদযাপিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষ্যে কোম্পানীগঞ্জ ট্যুরিস্ট ক্লাবের উদ্যোগে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়।
বুধবার সকালে উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে বের করা হয় র‌্যালি। র‌্যালিটি উপজেলা সদরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরে আলোচনাসভা উপজেলা পরিষদের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন কোম্পানীগঞ্জ ট্যুরিস্ট ক্লাবের সভাপতি মো. আবিদুর রহমান।
সাধারণ সম্পাদক মো. মাহবুব আলমের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ইসলামপুর পশ্চিম ইউপি চেয়ারম্যান শাহ মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পূর্ব ইসলামপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. বাবুল মিয়া, ইউপি সদস্য মো. কামরুজ্জামান, চৌমুহনীবাজার-পঞ্চগ্রাম ঐক্য পরিষদের সহ সাধারণ সম্পাদক মো. আবুল ফজল নোমান। মো. ওবায়দুল ইসলামের কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে সূচিত সভায় বক্তব্য রাখেন ট্যুরিস্ট ক্লাবের সহ সভাপতি মো. নাজমুল হক হেলাল, মো. ফাইজুর রহমান, যুব সংগঠক মো. রজন মিয়া, মো. গিয়াস উদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব শিপন, মাইনুল ইসলাম, সিরাজুল ইসলাম, আল-জাবের, সাংগঠনিক সম্পাদক মুসলিম খাঁন, অর্থ সম্পাদক সাজিদুর রহমান, সহ প্রচার সম্পাদক সিরাজুল হক, রুবেল মিয়া, দপ্তর সম্পাদক ফখরুল ইসলাম নোমান, আইটি সম্পাদক শাহিন আহমদ মধু, সহ পর্যটন সম্পাদক আরমান আহমদ, আন্তর্জাতিক সম্পাদক মহিউদ্দিন, সহ যোগাযোগ ও পরিবহন সম্পাদক বেদন আহমদ, মুর্শেদ আলম। উপস্থিত ছিলেন ট্যুরিস্ট ক্লাবের সদস্য চাঁন মিয়া মজনু, শিক্ষক নাসির উদ্দিন, সাইফুর রহমান, নয়ন আহমদ, রহমত মিয়া, জাফর, ফরিদুল ইসলাম, সালমান, হৃদয়, হোসাইন আহমদ, মোস্তাক আহমদ রনি। আলোচনাসভায় বক্তারা বলেন, পর্যটনের জন্য এক অপার সম্ভাবনাময় অঞ্চল কোম্পানীগঞ্জ। এখানে দেশের সর্ববৃহৎ পাথর কোয়ারির পাশাপাশি ভোলাগঞ্জ রোপওয়ে, দশ নম্বর এলাকা, জিরো লাইন, ভোলাগঞ্জ স্থল বন্দর, উৎমা ছড়া, তুরং ছড়া, শাহ্ আরফিন টিলাসহ আরও অনেক সম্ভাবনাময় স্থান রয়েছে। যা দেশি-বিদেশি পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে পারে। বক্তারা এসব সম্ভাবনাময় স্থানগুলোকে বিশ্ব পর্যটকদের কাছে যথাযথভাবে তুলে ধরার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
গোয়াইনঘাট উপজেলা প্রশাসন ও জাফলং ট্যুরিস্ট ক্লাব : প্রতিনিধি জানান টেকসই পর্যটন উন্নয়নের হাতিয়ার এই স্লোগানে সিলেটের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র জাফলংয়ে র‌্যালি হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুরে জাফলংয়ের বল্লাঘাট বাজারে গোয়াইনঘাট উপজেলা প্রশাসন ও জাফলং ট্যুরিস্ট ক্লাবের আয়োজনে র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিশ্বজিৎ কুমার পাল, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক সদস্য সুভাষ দাস, গোয়াইনঘাট প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. করিম মাহমুদ লিমন, গোয়াইনঘাট থানার এস আই মতিউর রহমান, সংগ্রাম বিওপির  ক্যাম্প কমান্ডার খালেদুর রহমান, ট্যুরিস্ট পুলিশ জাফলং জোনের এএসআই জুবায়ের আহমেদ, জাফলং ট্যুরিস্ট ক্লাবের সভাপতি লোকমান মিয়া, পর্যটন কেন্দ্র ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি হোসেন মিয়া, আশুক ফাউন্ডেশন সিলেটের সহ সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, জাফলং ট্যুরিস্ট ক্লাবের সভাপতি লোকমান মিয়া, জাফলং  পর্যটন মোটেলের ম্যানেজার ইসমাইল আলী, ক্ষুধা রেস্টুরেন্টের পরিচালক শফিকুল ইসলাম বিক্রমপুরী, জাফলং পর্যটন কেন্দ্র ব্যাবসায়ী সমিতির সভাপতি হোসেন মিয়া, পর্যটন ষ্টুডিও মালিক সমিতির আন্নু মালিক লিটন, জাফলং ট্যুরিস্ট গাইড অ্যান্ড ফটোগ্রাফার সমিতির সভাপতি সাজু আহমেদ।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: