সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৪৮ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে কানাইঘাটে ড্রেজার ও বলগেট জব্দ

কানাইঘাট প্রতিনিধি::
মারাত্মক নদী ভাঙ্গন কবলিত কানাইঘাট গাছবাড়ী বাজারের সুরমা নদী থেকে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ ভাবে একাধিক শক্তিশালী ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনের দায়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহসিনা বেগম গতকাল মঙ্গলবার বিকেল ২টায় গাছবাড়ী বাজার এলাকা পরিদর্শন করে বালু উত্তোলনের দায়ে একটি ড্রেজার ও একটি বলগেট নৌকা জব্দ করেছেন। জব্দকৃত বলগেট ও ড্রেজার কানাইঘাট থানা পুলিশের সহায়তায় নদীপথে কানাইঘাট বাজার এলাকায় নিয়ে আসা হচ্ছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানিয়েছেন, একাধিক শক্তিশালী ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলনের ঘটনায় গাছবাড়ী বাজার সহ পাশর্^বতী নিজ দলইকান্দি গ্রাম সহ আশপাশ এলাকার সুরমা ডাইকে ভয়াবহ ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। স্থানীয় প্রশাসন অবৈধ বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে মাঝেমধ্যে অভিযান চালালেও বালু উত্তোলন বন্ধন হচ্ছে না। স্থানীয় এলাকাবাসী গাছবাড়ী বাজার সহ আশপাশ এলাকা নদী ভাঙ্গন থেকে রক্ষা করার জন্য সিলেটের জেলা প্রশাসক সহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে সম্প্রতি অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে সিলেটের জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার সুরমা নদীর গাছবাড়ী বাজার সহ আশপাশ এলাকা থেকে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন বন্ধ এবং এর সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ প্রদান করলে গতকাল মঙ্গলবার বিকেল দেড়টায় আকস্মিক ভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহসিনা বেগম সেখানে অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযান চলাকালে অবৈধ বালু উত্তোলনের সাথে জড়িত প্রভাবশালী চক্র ছিটকে পড়ে। একাধিক ড্রেজার ঘটনাস্থল থেকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসার আগেই নদীপথে অন্যত্র সরিয়ে ফেলে বালু উত্তোলনকারীরা।

এলাকাবাসীর অভিযোগ গত কয়েক মাস ধরে একটি প্রভাবশালী চক্রের ছত্রছায়ায় স্থানীয় চলিতাবাড়ী গ্রামের বাসিন্দা জেলা ছাত্রলীগ নেতা হারুন রশিদ উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক নাজিম উদ্দিন সহ বেশ কয়েকজন মিলে ভাঙ্গন কবলিত গাছবাড়ী বাজার সহ আশপাশ এলাকা থেকে অদ্যবধি পর্যন্ত প্রায় কোটি টাকার বালু উত্তোলন করে বিক্রি করেছেন। অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে এলাকার কেউ বাঁধা দিলে তাদের অস্ত্র ও মাদক মামলায় আসামী করে জেলে পাঠানোর হুমকি দেয় বালু উত্তোলনকারীরা। অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের সাথে স্থানীয় প্রশাসনের কিছু কর্মকর্তা জড়িত রয়েছেন বলে গাছবাড়ী বাজারের ব্যবসায়ী ও সচেতন মহল জানিয়েছেন।

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, গাছবাড়ী বাজার সংলগ্ন সুরমা নদীর নিজ দলইকান্দি গ্রামে একটি বালু মহাল রয়েছে। কিন্তু সেখান থেকে মাঝে মধ্যে একটি চক্র ড্রেজার দিয়ে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করার যখনই চেষ্টা করে আমরা সেই জায়গায় অভিযান চালাই। গতকাল অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের সংবাদ পেয়ে সেখানে অভিযান চালিয়ে স্থানীয় বানীগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ, ভূমি ও তহসিল অফিসের লোকজন উপস্থিতিতে একটি ড্রেজার ও বলগেট নৌকা জব্দ করা হয়। কাউকে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করতে দেয়া হবে না।
এ ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে নির্বাহী কর্মকর্তা তাহসিনা বেগম জানিয়েছেন। বানীগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ জানান, অবৈধ ভাবে প্রভাবশালী চক্র গাছবাড়ী বাজার এলাকা থেকে বালু উত্তোলন করায় তার ইউপির সুরমা ডাইকে বয়াবহ ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। সরকারের নাম ভাঙ্গিয়ে কেউ অবৈধ কর্মকান্ড চালালে তাদের আইনের আওতায় আনার দাবী জানিয়েছেন তিনি। উপজেলা আ’লীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ জানিয়েছেন বর্তমান সরকার নদী ভাঙ্গন থেকে এলাকাবাসীকে রক্ষা করার জন্য যখন কোটি কোটি টাকার কাজ করে যাচ্ছেন, তখন আ’লীগের নাম ভাঙ্গিয়ে সুবিধাবাদী চক্র অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করছে। এদের চিহ্নিত করে গ্রেফতার করতে হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: