সর্বশেষ আপডেট : ৩৫ মিনিট ১৪ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৮ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধ বিষয়ক দিনব্যাপী কর্মশালা

সিলেট স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক ডা. ইসমাঈল ফারুক বলেছেন, এডিস মশার আক্রমণের ফলে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়ার বিস্তার ঘটে। ব্যক্তি, পরিবার ও সমাজকে এ থেকে মুক্ত রাখার জন্য সবাইকে সচেতন হতে হবে। সাম্প্রতিককালে চিকনগুনিয়া রোগ ঢাকা থেকে শুরু করে সমস্ত বাংলাদেশের জনগণকে একটি ক্ষতিকর অবস্থানে ফেলে দিয়েছে। ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া থেকে বাঁচার জন্য ভোর ও সন্ধ্যাবেলায় নিজেদেরকে সচেতন থাকতে হবে। পাশাপাশি সর্বদা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন জীবন যাপন করলে এসব রোগ থেকে নিজেদেরকে নিরাপদ রাখা সম্ভব। এতে এডিস মশার বংশ বৃদ্ধি রোধ হবে।

সিভিল সার্জন অফিস, সিলেট-এর উদ্যোগে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধের জন্য আয়োজিত দিনব্যাপী কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. হিমাংশু লাল রায়ের সভাপতিত্বে বুধবার লাইফস্টাইল, হেলথ্ এডুকেশন ও প্রমোশন স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, মহাখালী, ঢাকা-এর ব্যবস্থাপনায় সিভিল সার্জন সিলেট অফিসের কনফারেন্স হলে এই কর্মশালায় অনুষ্ঠিত হয়।

সিভিল সার্জন সিলেট অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. আহমেদ সিরাজুম মুনীরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের সহযোগী অধ্যাপক ডা. এনায়েত হোসেন, স্বাস্থ্য শিক্ষা ব্যুরো, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর মহাখালী, ঢাকা-এর সহকারী প্রধান ও ডিপিএম মো. মোখলেছুর রহমান, সহকারী প্রধান ও ডিপিএম মো. মহিউদ্দিন মিয়া, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর সিলেট-এর উপপরিচালক ডা. লুৎফুন নাহার জেসমিন। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিভিল সার্জন সিলেট অফিসের সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা অফিসার সুজন বনিক এবং সমাপনী বক্তব্য রাখেন সিলেটের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. আবুল কালাম আজাদ। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে সিলেট বিভাগীয় তথ্য অফিসের উপপরিচালক জুলিয়া জেসমিন মিলি, ইসলামিক ফাউন্ডেশন সিলেটের সহকারী পরিচালক মাওলানা শাহ নজরুল ইসলামসহ সিলেট বিভাগের বিভিন্ন জেলা, উপজেলার স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা ছিলেন। অনুষ্ঠানের শেষে এক মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন অতিথিবৃন্দ।

সভাপতির বক্তব্যে সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. হিমাংশু লাল রায় বলেন, ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া রোগের আক্রমণ থেকে বাঁচতে হলে আমাদের সবাইকে সচেতন হতে হবে। পাশাপাশি নিজেদের বাসাবাড়ি কিংবা অন্যান্য অব্যবহৃত জায়গা যেখানে এডিস মশার জন্মস্থল সেই জায়গাগুলো পরিস্কার রাখার ব্যাপারে যতœশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। এমনকি বাসার মধ্যে ফুলের টব, ফ্রিজ এবং অন্যান্য আসবাবপত্র পরিস্কার রাখলে চিকুনগুনিয়া এবং ডেঙ্গু থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। – বিজ্ঞপ্তি

 

 

 

 

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: