সর্বশেষ আপডেট : ১২ মিনিট ২৪ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৯ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জালালাবাদ কবি ফোরামের উদ্যোগে শরতকালীন কবিতা উৎসব

Kobi Forumবিশিষ্ট গবেষক-কবি প্রাকৃতজ শামীম রুমি টিটিন বলেছেন, কবি মাত্রই সত্য ও সুন্দরের পূজারী। কবিত্বের চেতনাকে কাজে লাগিয়ে মানবতা ও মূল্যবোধের প্রতিষ্ঠায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। মানুষের জীবনে প্রয়োজনীয় চিরন্তন শিক্ষাকে অনুধাবন করে অন্তর পরিশুদ্ধ করে সমাজ ও দেশের জন্য কবিদেরকে কাজ করতে হবে।

ভাষা সৈনিক মতিন উদ্দিন আহমদ কে উৎসর্গককৃত জালালাবাদ কবি ফোরামের উদ্যোগে ও ভালোবাসার গান কবিতা ও গল্পকথার যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত শরতকালীন কবিতা উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
সিলেট সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজের অধ্যক্ষ কবি কালাম আজাদের সভাপতিত্বে শুক্রবার সিলেট কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের সাহিত্য আসর কক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

জালালাবাদ কবি ফোরামের সভাপতি কবি সিদ্দিক আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও লেখক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জুবায়ের সিদ্দিকী (অবঃ) এবং বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও কেমুসাসের সহ সভাপতি প্রবীণ সাংবাদিক মুহম্মদ বশিরুদ্দিন, কলামিস্ট-কবি বেলাল আহমদ চৌধুরী, পানসী গ্রুপের চেয়ারম্যান কবি আবু বজর সিতু, বাংলাদেশ ব্যাংকের উপ-পরিচালক মো. সাজ্জাদুর রহমান, কলামিস্ট সাদেক আহমদ এবং আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট সাহিত্য সমালোচক অধ্যাপক কবি বাছিত ইবনে হাবীব।

অনুষ্ঠানে লেখা পাঠ করেন রোটারিয়ান আশফাকুর রহমান চৌধুরী, কবি ফাতেমা খাতুন রুনা, কবি সাইফুর রহমান কায়েস, কবি মাহফুজ জোহা, কবি শাহানারা বেগম ইমা, কবি হোসনে আরা বেগম, কবি ফাতেহা খাতুন, কবি ইউনুস আকমাল, কবি নাসিমা বেগম, কবি শফিকুল ইসলাম বিক্রমপুরী, লিপি খান, কবি কামাল আহমেদ, ঔপন্যাসিক আলেয়া রহমান, ইফতেখার হোসাইন শামীম এবং সংগীত পরিবেশন করেন লাল মিয়া, নাহিদা পাঠান তুহিন ও শাহরীন জাহান উপমা। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন কবি তারেক মনোয়ার। অনুষ্ঠানের শেষে স্বরচিত কবিতা আবৃত্তি কারদেরকে ক্রেস্ট প্রদান করে সম্মানিত করা হয়।

উদ্বোধকের বক্তব্যে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও লেখক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জুবায়ের সিদ্দিকী (অবঃ) বলেন, মানুষকে ভালোবাসতে হবে। তবেই সত্যিকার মনুষ্যত্ব অর্জন সম্ভব। কবি-সাহিত্যিকরা শিল্প-সাহিত্য ও সংস্কৃতির চর্চা করে সুন্দর সমাজ গঠনে ভূমিকা রাখেন।
সভাপতির বক্তব্যে অধ্যক্ষ কবি কালাম আজাদ বলেন, জগতের চিরন্তন শিক্ষাকে অনুধাবন করতে হবে। রুচি ও শিক্ষার আলোকে যদি মননের চর্চা করা যায় তবে কাঙ্খিত ফলাফল অর্জন সম্ভব। কবি-সাহিত্যিকরা আত্ম উন্নয়নের মাধ্যমে সমাজ ও দেশের জন্য সুন্দরের নির্যাসটুকু প্রকাশ করেন। – বিজ্ঞপ্তি

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: