সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

প্রতিমা তৈরীতে ব্যস্ত শিল্পীরা : সিলেট জেলায় ৫৭৬টি ও মহানগরে ৪৭টি মণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে

dsnewspic-lead_001মারুফ হাসান ::

শরৎ এসেছে শারদীয় উৎসবের আগমনী বার্তা নিয়ে। শারদীয় দুর্গোৎসব সনাতন ধর্মাবলম্বিদের সবচেয়ে বড় উৎসব। সেই উৎসবকে সামনে রেখে প্রতিমা তৈরীতে ব্যস্ত সময় পার করছেন শিল্পীরা। উৎসবকে ঘিরে চারিদিকে সাজ সাজ রব। সিলেট জেলায় ৫৭৬টি ও মহানগরে ৪৭টি মণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে।

সারা দেশে আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে সনাতন ধর্মাবলম্বিদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। তাই দেবী দুর্গাকে স্বাগত জানাতে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা শিল্পীরা। পাল বা প্রতিমা শিল্পীদের গৃহে ইতিমধ্যে দেবী দূর্গার প্রতিমা তৈরি একেবারে শেষ পর্যায়ে। মূর্তির মূল কাঠামো তৈরি শেষে এখন চলছে মাটির প্রলেপ ও আল্পনার কাজ।

গতকাল নগরীর বিভিন্ন পূজা মন্ডপ ঘুরে দেখা গেছে, সর্বত্র চলছে দুর্গাপূজার প্রতিমা তৈরির কাজ। পাশাপাশি তৈরি হচ্ছে সরস্বতী, লক্ষী, কার্তিক, গণেশ ও অসুরের মূর্তি।
সময়ের সাথে মানুয়ের জীবন যাত্রার ব্যয় বেড়েছে কিন্তু সে অনুপাতে বাড়েনি প্রতিমা শিল্পীদের মজুরি। এই কারণে তাদের মনে কোন ক্ষোভ বা অভিযোগ নেই। কারণ তাঁরা মনে করে যে হিন্দু ধর্মের এমন একটা মহৎ কাজের সাথে তারা সম্পৃক্ত হতে পেরেছেন। এটাই তাদের বড় পাওনা।

dsnewspic13sep007শ্যামল কান্ত নামের এক শিল্পী জানান, প্রতিমার আকার ও শৈল্পিক গঠন অনুযায়ী প্রতিমা তৈরীর পারিশ্রমিক ৩০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা নিয়ে থাকেন। এবার তিনি ১০টি প্রতিমার তৈরির অর্ডার রেখেছেন। তিনি আশা করেন নির্দিষ্ট সময়ের মাঝে অর্ডারকৃত মন্ডপগুলোতে প্রতিমা নির্মান কাজ শেষ করতে পারবেন।

মহানগর পূজ উদযাপন পরিষদের সভাপতি সুব্রত ডেইলি সিলেটকে জানান, এবার সিলেট জেলায় ৫৭৬টি পুজা মণ্ডপে শারদীয় দুর্গোৎসব অনুষ্ঠিত হবে। তার মধ্যে মহানগরে রয়েছে ৪৭টি মণ্ডপ। গতবছর এই সংখ্যা ছিলো (জেলা) ৫৮৮টি এবং (মহানগর) ৪৫টি। তুলনামূলকভাবে মহানগরে মণ্ডপের সংখ্যা বাড়লেও সার্ভিক ভাবে কমেছে। সুব্রত আরো জানান নগরীর দাড়িয়া পাড়ায় সবচেয়ে বড় আয়োজনে শারদীয় দুর্গোৎসব পালন করা হবে।

dsnewspic13sep010গতবছরের তুলনায় এবার জেলাতে পুজা মণ্ডপের সংখ্যা কমার কারণ হিসেবে মহানগর পূজ উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত বলেন, বন্যার কারণে এবার অনেকস্থানে মানুষ সম্পূর্ণরূপে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, তাই সেইসব স্থানে পুজা উৎসব আয়োজন করা সম্ভব হয়নি।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত নগরীর পুজামণ্ডপগুলো পরিদর্শন করাবার কথা রয়েছে।

dsnewspic13sep012

ছবিগুলো নগরীর দাড়িয়াপাড়া থেকে তুলেছেন আমাদের আলোকচিত্রি অর্নিবাণ সেন গুপ্ত

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: