সর্বশেষ আপডেট : ১৮ মিনিট ৩০ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

মৌলভীবাজারে বিআরটিএ অফিসে কোটি টাকার ঘুষ বাণিজ্য

1. daily sylhet 0-17চৌধুরী ভাস্কর হোম, মৌলভীবাজার:: মৌলভীবাজারে নির্দিষ্ট সাড়ে ৩ হাজার সিএনজি অটোরিক্সার রেজিষ্ট্রেশন দেওয়া সিন্ধান্ত থাকলেও তা অমান্য করে সিএনজি অটোরিক্সার রেজিষ্ট্রেশন দেওয়া হয়েছে ১৫ হাজারে ২৫১টি। সিএনজি অটোরিক্সা ও টমটম বাইক (অটো টেম্পু) রেজিষ্ট্রেশন স্থায়ীভাবে বন্ধ রাখা ও বিআরটিএ’র কর্মকর্তাদের কোটি কোটি টাকা ঘুষ বাণিজ্যের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসককে নির্দেশ প্রধান করেছেন বিভাগীয় কমিশনার। আবারও নতুন করে অটোরিক্সা রেজিষ্ট্রেশন দেওয়ার ফন্দি ফিকিরে ঘুষ বাণিজ্যের নতুন সিন্ডিকেটে জড়িয়ে পরেছেন বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) মৌলভীবাজার অফিসের কিছু অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারী।

ঘুষ বাণিজ্যে নতুন করে সিএনজি অটোরিক্সা ও টমটম বাইক রেজিষ্ট্রেশন দিলে জেলাবাসীর জনসার্থ ও পরিবহন ব্যবস্থাপনায় চরম ক্ষতির সম্মুখীন হওয়ার আশংকা করে সিলেট বিভাগীয় কমিশনার বরাবরে দায়ের করা অভিযোগে জানা যায়, মৌলভীবাজার জেলায় সরকারীভাবে নির্ধারিত ৩ হাজার ৫০০ টি সিএনজি অটোরিক্সা রেজিষ্ট্রেশন হওয়ার পর জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সিন্ধান্ত মতে মৌলভীবাজার জেলায় আর কোন সিএনজি অটোরিক্সা রেজিষ্ট্রেশন না দেওয়ার সিন্ধান্ত গ্রহন করা হয়। কিন্ত পরবর্তীতে কোটি কোটি টাকা ঘুষ বাণিজ্য ও অবৈধ উৎকোচ নিয়ে গোপন সিন্ডিকেট মাধ্যমে মৌলভীবাজার জেলায় সিরিয়াল থÑ১১ সিনিয়ালে ১০,০০০ টি ও থ-১২ সিরিয়ালে ৫,২৫১টি মিলিয়ে মোট ১৫,২৫১টি সিএনজি অটোরিক্সা রেজিষ্ট্রেশন দেওয়া হয়েছে। আর প্রতিটি সিএনজি অটোরিক্সা রেজিষ্ট্রেশনে ১৫ হাজার থেকে ২০ হাজার টাকা করে কোটি কোটি টাকার ঘুষ গ্রহন এর অভিযোগ রয়েছে বিআরটিএ মৌলভীবাজার অফিসের কিছু অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে। যে কারনে মৌলভীবাজার জেলায় পরিবহন সেক্টরে ভযাবহ দূরর্দিন এসেছে।Cng M-Bazar

মৌলভীবাজার শমসেরনগর বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির সদস্য মো: আব্দুর রহমানের লিখিত অভিযোগে বলেন, সিএনজি অটোরিক্সার রেজিষ্ট্রেশ প্রভাবশালীদের নিয়ন্তনে টাকার কাছেই বন্দি। রেজিষ্টেশনের টাকায় সিন্ডিকেট প্রভাবশালীদের এবং সংশ্লিষ্ট অফিস কর্তাগণদের উদর ভারী করা হয়েছে। আজ ও এ অবস্থা অব্যহত রয়েছে। যে কারনে সিএনজি অটোরিক্সার রেজিষ্ট্রেশন ক্রেতা জনসাধারন সবসময় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কোটি কোটি টাকা গোপন ঘুষ বানিজ্যে সকলের মুখ বন্ধ করে রেখেছে। এর সঙ্গে জড়িত মৌলভীবাজার জেলার বিআরটি এর বড় কর্তা, মেঝ কর্তা ও বিভিন্ন সময়ের সভাপতি সদস্যবৃন্দ। উল্লেখিত জড়িত ব্যক্তিবর্গের ঘুষ বানিজ্যের কারনে অতিরিক্ত সিএনজি অটো রিস্কা রেজিষ্টেশন দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

অন্যায় ঘুষ বাণিজ্যের মাধ্যমে অতিরিক্ত সিএনজি অটোরিক্সা রেজিষ্ট্রেশন দেওয়ায় চরম আকারে যোগাযোগ ব্যবস্থায় দুর্ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে। এবং সারা জেলায় মানুষ সিএনজি যানজটের কবলে পড়েছে। সর্বপরি জেলায় চালিত বাস ও মিনিবাস মালিকগণ ব্যবসায়ীক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে উক্ত ব্যবসা বন্ধের উপক্রম হয়েছে বলে অভিযোগ করেন শমশেরনগর ও শ্রীমঙ্গল বাস মালিক সমিতির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী।
এদিকে মৌলভীবাজার শমসেরনগর বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির সদস্য মো: আব্দুর রহমানের অভিযোগের প্রেক্ষিতে সিলেট বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার (সাধারণ) রোজিনা আক্তার স্বাক্ষরিত এক পত্রে জেলার যানজট নিরসন ও সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণনহ সিএনজি অটোরিক্সা ও টমটম বাইক (অটো টেম্পু) রেজিষ্ট্রেশন স্থায়ীভাবে বন্ধ রাখা ও বিআরটিএ’র কর্মকর্তাদের কোটি কোটি টাকা ঘুষ বাণিজ্যের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসককে নির্দেশ করেন।
মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মোঃ তোফায়েল ইসলাম বলেন, মৌলভীবাজারে সিএনজি অটোরিক্সা ও টমটম বাইক বিক্রি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: