সর্বশেষ আপডেট : ৪৭ মিনিট ৪৯ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

মেটজকে উড়িয়ে দিলেন নেইমার-এমবাপে

neymar-mbape-20170909110752স্পোর্টস ডেস্ক:: আরও একবার নেইমার শো। সেই সঙ্গে নতুন স্ট্রাইকার কাইলিয়ান এমবাপে এবং অভিজ্ঞ স্ট্রাইকার এডিনসন কাভানি যদি যোগ হন- তাহলে বিশ্বের অন্যতম সেরা আক্রমণভাগে পরিণত হওয়ার কথা। হচ্ছেও তাই। বিশ্বের সবচেয়ে দামি এবং সেরা আক্রমণভাগ এখন রয়েছে পিএসজির হাতে। সে কারণেই একের পর এক প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে দিচ্ছে ফরাসি ক্লাবটি। নেইমারের সঙ্গে জ্বলে উঠলেন এমবাপে এবং কাভানিও। যে কারণে মেটজের মাঠে গিয়েও তাদেরকে বিধ্বস্ত করে এসেছে ৫-১ গোলের ব্যবধানে।

পিএসজির হয়ে নিজের অভিষেক ম্যাচেই গোল পেলেন মোনাকো থেকে আসা কাইলিয়ান এমবাপে। দুটি গোল করেছেন এডিনসন কাভানি। বাকি দুটির মধ্যে ১টি করে করেছেন নেইমার এবং লুকাস মাউরা। এছাড়াও অন্তত দুটি গোলে সরাসরি অবদান ছিল নেইমারের। তবে খেলার ৫৬ মিনিটে ১০ জনের দলে পরিণত হয় মেটজ। এমবাপেকে হার্ড ট্যাকল করার দায়ে সরাসরি লাল কার্ড দেখিয়ে বেনোইত এসো একোতোকে মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দেন রেফারি।

খেলার ৩১তম মিনিটে নেইমারের আলতো করে তুলে দেওয়া বলটি নিয়ন্ত্রনে নিয়ে বাম পায়ের শট নেন উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার কাভানি। তবে লিড খুব বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি পিএসজি। ডিফেন্সের ভুলে ৩৭তম মিনিটেই গোল হজম করে বসে নেইমারের দল। নিউ ক্যাসলের ফ্লপ স্ট্রাইকার এমানুয়েল রিভেইরে মেটজে গিয়ে যেন জ্বলে উঠলেন। তিনি সমতায় ফেরান তার ক্লাব মেটজকে।

প্রথমার্ধ ১-১ ব্যবধানেই শেষ হলো। দ্বিতীয়ার্ধ শুধুই নেইমারদের। নতুন স্ট্রাইকার কাইলিয়ান এমবাপের মূল্য কেন ১৮০ মিলিয়ন ইউরো, সেটা তিনি দেখিয়ে দিলেন প্রথম ম্যাচেই। বলের ওপর অসাধারণ নিয়ন্ত্রণ। দারুণ ড্রিবলিং তাকে অন্য উচ্চতা এনে দিচ্ছে। যার প্রমাণ তিনি রাখলেন ৫৯ মিনিটেই। নিজেই বল পাস দিয়েছিলেন নেইমারকে। সেটি মেটজের এক ডিফেন্ডার ক্লিয়ার করতে চাইলে বল চলে আসে আবার এমবাপের কাছে। ডান পায়ের দারুণ এক শটে তিনি বল জড়ান মেটজের জালে।

১০ মিনিট পরের গোলটি এলো নেইমারের পা থেকে। বক্সের সামনে তিনজন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে শট ডান পায়ের শট নেন নেইমার। বাম পাশের কোন ঘেঁষে সেই বলটি জড়িয়ে যায় মেটজের জালে। ৬ মিনিট পর আবারও গোল। এবার নেইমার, এমবাপের কাছ থেকে বলটি যখন মেটজের পোস্টের সামনে ঘুরছিল তখন সুযোগটা কাজে লাগান কাভানি। তার আলতো ছোঁয়ায় সেটা জড়িয়ে যায় মেটজের জালে।

শেষ গোলটি করেন লুকাস মউরা। ৮৭ মিনিটের গোলটিতেও অবদান ছিল নেইমারের। তার লম্বা ক্রস পিএসজির আরেক ফুটবলার নিয়ন্ত্রণে নেন। তবে তার পা থেকে ছুটে যাওয়া বলটিতে আলতো ছোঁয়ায় মেটজের জালে জড়িয়ে দেন মউরা।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: