সর্বশেষ আপডেট : ১৮ মিনিট ১ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৫ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

নবীগঞ্জে পাকা রাস্তা নির্মাণের একমাসের মাথায় ভাঙ্গন অব্যাহত

_1504155451386-picsayহবিগঞ্জ সংবাদদাতা:: পত্রিকার পাতা খুললেই দেখা যায় রাস্তার অনিয়মের অহরহর খবর। সংবাদগুলো কর্তাদের নজরে আসলেও নিচ্ছেন না কোনো কার্যকরী ভূমিকা এতে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে গ্রামীণ জনপদের সাধারণ খেটে খাওয়া লোকজনের মধ্যে। নবীগঞ্জ উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের সদরঘাট গ্রামের পাকা রাস্তা নির্মাণের এক মাসের মথায় শুরু হয়েছে রাস্তা ভাঙ্গন। গাইড ওয়াল এ দেখা দিয়েছে বিরাট ফাটল । রাস্তা নির্মাণের সময় টি ঠিকাদারের অনিয়ম নিয়ে গত ১৯ জুলাই সংবাদ সংগ্রহ করার জন্য স্থানীয় সাংবাদিক ঘটিনাস্থলে গেলে তখন ওই রাস্তা নির্মাণের ঠিকাদার আজাদ পত্রিকায় লিখলে কিছু হয়না এবং সাংবাদিককে দেখে নেওয়ার হুমকী দেন।

এরপর স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকার ঠিকাদার আজাদের অনিয়মের চিত্র নিয়ে সংবাদ প্রকাশ হলে সংবাদটি কর্তাদের নজরে আসলেও কোনো কার্যকরী ভূমিকা নিতে দেখা যায়নি। এরই কারণে নিজের মত করেই বৃষ্টির মাঝেও তাড়াহুড়ো করে কাজ শেষ করে চলে যায় হবিগঞ্জের ঠিকাদার আব্দুস সামাদ আজাদ । তখন সময় রাস্তা নির্মাণের পূর্বে গাইড ওয়ালেও সীমাহীন ফাটল দেখা দেয় যার ফলে এক মাসের মধ্যেই গাইড ওয়ালের ফাটল বিরাট আকার ধারণ করেছে । অনেক স্থানে গাইড ওয়াল না থাকায় রাস্তার পাশে মাটি নেই । সেখানে মাটি ভরাটের কথা থাকলেও মাটি না দেয়ায় ইটগুলা সরে গিয়ে রাস্তা ভাঙ্গন শুরু হচ্ছে ।
এলজিইডি ২৪ লক্ষ টাকা বরাদ্দের রাস্তায় ৪ ইঞ্চি কনক্রিট দেওয়ার কথা থাকলেও দেয়া হয়েছে ২/৩ ইঞ্চি, রাস্তার পাশে মাটি ভরাট এবং বস্তা ভর্তি বালু দেওয়ার কথা থাকলে রাস্তার সীমানার কয়েক কিলো মিটারের জায়গার মধ্যে এমন চিত্র দেখা যায়নি । রাস্তায় দেয়া হয়নি বালু,পানি,রোলার। উক্ত সড়ক নির্মাণে রাস্তার পুরাতন ইট পাশের সড়কের দেয়ার কথা থাকলে ও তা দেয়া হয়নি। এইসব পুরাতন ইট ব্যবহার করা হয়েছে আগের সড়কেই পুরাতন ইট ব্যবহার করার পরও পর্যাপ্ত পরিমান ইট,কনক্রিট দেয়া হয়নি। গত ১৯জুলাই সড়কে এমন চিত্র সরেজমিনে গিয়ে প্রতিবেদক চোখে আঙ্গুল দিয়ে দড়িয়ে দিলে বার বার কথা এড়িয়ে যাওয়ার ব্যর্থ চেষ্টা করেণ ঠিকাদার আব্দুস সামাদ আজাদ পরে এইসব অনিয়ম সমাধান করবেন কী না ?? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন পত্রিকায় লিখে আমার কিছু করতে পারবেনা তকে আমি দেখে নেব বলে হুমকী দিয়েছিলেন ঠিকাদার আজাদ। রাস্তা পুনরায় সংস্কারের দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: