সর্বশেষ আপডেট : ৫ মিনিট ৪৮ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৬ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শূন্য আসনে প্রার্থী হলেন নওয়াজপত্নী

kulsoom-nawaz-20170812202551আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: পদচ্যুত প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের শূন্য আসনে উপ-নির্বাচনে তার স্ত্রী কুলসুম নওয়াজকে মনোনয়ন দিয়েছে দেশটির ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন)। জাতীয় পরিষদে লাহোরের ১২০ নম্বর আসনের নির্বাচনে লড়তে নওয়াজপত্নীর মনোনয়নপত্র দেশটির নির্বাচন কমিশনে জমা দিয়েছে পিএমএল-এন।

দেশটির জাতীয় দৈনিক এক্সপ্রেস ট্রিবিউন বলছে, শুক্রবার ক্যাপ্টেন (অবসরপ্রাপ্ত) সাফদার ও সিনেটর আসিফ কারমানির নেতৃত্বে প্রতিনিধি দল কুলসুম নওয়াজের মনোনয়ন দাখিল করেছে।
ক্যাপ্টেন সাফদার সাংবাদিকদের বলেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজকে অযোগ্য ঘোষণার মাধ্যমে দ্বি-জাতি তত্ত্বের ওপর আঘাত করা হয়েছে।

এর অাগে দেশটির সাবেক ক্রিকেট তারকা ও রাজনীতিক ইমরানের খানের রাজনৈতিক দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের প্রার্থী হিসেবে নওয়াজের শূন্য আসনে ইয়াসমিন রশিদ মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। পিটিআই’র এই প্রতিনিধি বিরোধী দলীয় নেতা মিয়া মেহমুদুর রশিদ ও ইজাজ আহমেদসহ কাগজপত্র জমা দেয়ার জন্য জেলা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে যান।

লাহোরের এই শূন্য আসনে নির্বাচনে অংশ নিতে পাকিস্তান পিপলস পার্টির নেতা হাফিজ মিয়া জুবাইর কার্দার, পাকিস্তান আওয়ামী তেহরিক পার্টির অ্যাডভোকেট ইশতিয়াক চৌধুরী ও অন্যান্য স্বতন্ত্র প্রার্থীরা তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

দীন মোহাম্মদ নামে দেশটির সাবেক এক পুলিশ কনস্টেবলও নির্বাচনে লড়াই করতে তার মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর শূন্য আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

পানামা পেপারস কেলেঙ্কারিতে নওয়াজ শরিফের দুর্নীতির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে গত ২৮ জুলাই তাকে অযোগ্য ঘোষণা করেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। রায়ের পরপরই নওয়াজ শরিফ পদত্যাগ করেন।

উপ-নির্বাচনে মনোনয়নের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী পদে নওয়াজ শরিফ অযোগ্য ঘোষিত হওয়ার পর শূন্য আসনে মনোনয়নের জন্য দলের অভ্যন্তরীণ এক বৈঠকে স্ত্রী বেগম কুলসুম নওয়াজ এবং মেয়ে মরিয়ম নওয়াজের নাম উঠে আসে।

এর আগে সদ্য পদচ্যুত এই প্রধানমন্ত্রী তার ভাই পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ প্রধানমন্ত্রীর মসনদে বসবেন বলে প্রত্যাশা করেছিলেন। কিন্তু দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের হস্তক্ষেপে শাহবাজ শরিফের নাম প্রত্যাহার করে নেয়া হয়।

পিএমএল-এন’র নেতারা বলেন, পাঞ্জাব প্রদেশে তরুণ শাহবাজ শরিফের অনুপস্থিতিতে, কেবলমাত্র প্রদেশে চলমান মেগা প্রকল্পগুলোর গতি নষ্ট হবে না বরং দলীয় শক্তি-সমর্থনও নির্বাচনী ফলাফলে প্রভাব ফেলবে।

সূত্র : এক্সপ্রেস ট্রিবিউন, ডন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: