সর্বশেষ আপডেট : ৮ মিনিট ৩৩ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৫ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাতকে সমতা স্কুল এন্ড কলেজের ৬ প্রভাষকের ক্লাস বর্জনের ঘোষনা

01.-daily-sylhet-Chhatak-news2ছাতক প্রতিনিধি:: ছাতকে সমতা স্কুল এন্ড কলেজের ৬ জন প্রভাষক ১২ আগষ্ট শনিবার থেকে ক্লাস বর্জনের ঘোষনা দিয়েছেন। বকেয়া বেতন আদায়ের দাবীতে ক্লাস বর্জনের ঘোষনা দেন প্রভাষক হাবিবুর রহমান, ছানার মিয়া, আহসান উদ্দিন, গৌছুল হক নাঈম, খলীল রহমান ও সেলিম মিয়া। এ ব্যাপারে তারা ইউপি চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন মোহাম্মদ সাহেলের কাছে শুক্রবার একটি লিখিত অভিযোগও দিয়েছেন।

জানা গেছে, ২০১৬ সালের ১জুলাই থেকে সিংচাপইড় ইউনিয়নের সমতা স্কুলে কলেজ শাখার কার্যক্রম শুরু করা হয়। এর আগে কর্তৃপক্ষ প্রভাষকসহ কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ দিয়েছেন। নিয়োগের প্রথম মাসে তাদের বেতন দেয়া হয়েছে। ৬ জন প্রভাষক জানান, আগষ্ট ১৬ইং থেকে তাদের বেতন বন্ধ রাখা হয়েছে। তারা বিদ্যালয় প্রধান ও পরিচালনা কমিটির সভাপতির কাছে একাধিকবার ধর্না দিয়েছেন। কিন্তু কোন লাভ হয়নি। সমতাস্কুল এন্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ প্রভাষকদের বেতনের বিষয়ে কোন কর্নপাতই করেননি। স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক আব্দুস সামাদ বর্তমানে ছুটিতে রয়েছেন। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বে থাকা নাসির উদ্দিন এ ব্যাপারে কোন সিদ্ধান্ত দেননি। এজন্য ৬ জন প্রভাষক তাদের বকেয়া বেতন-ভাতার দাবিতে অনিদৃষ্টকালের জন্য ক্লাস বর্জনের ঘোষনা দিয়েছেন।

কলেজ ফান্ডে টাকা নেই এ অজুহাতে প্রভাষকদের বেতন বন্ধ করে রাখা হলে ও প্রভাষকরা জানান, কলেজ শাখায় শিক্ষার্থী রয়েছে ১শ’৭৫জন। গত ১বছরে ছাত্র ভর্তি, সেশন ফি ও ছাত্রদের বেতন বাবত প্রায় ৭ লক্ষ টাকা আদায় করা হয়েছে। এ ছাড়া রয়েছে বিভিন্ন অনুদানের টাকা। এসব টাকার কোন হদিস নেই। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নাসির উদ্দিন ও পরিচালনা কমিটির সভাপতি ফারুক মিয়া ছাড়া এসব টাকার কোন হিসেব কেউ জানেনা। তাদের ধারনা সমতা স্কুল এন্ড কলেজ ফান্ডের সব টাকাই সভাপতি ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আত্মসাত করেছেন। এদিকে প্রতিষ্টানের সভাপতি নিয়োগ নিয়েও দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন জটিলতা চলে আসছে।

অবৈধভাবে ফারুক মিয়াকে সভাপতি নির্বাচন করা হয়েছে বলে স্থানীয় একব্যক্তি সিলেট শিক্ষা বোর্ডে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত সাপেক্ষে শিক্ষা বোর্ডের এক আদেশে সভাপতি নিয়োগে অনিয়মের কারনে ফারুক মিয়াকে সভাপতি পদ থেকে বরখাস্থ করা হয়। এ আদেশের বিরুদ্ধে ফারুক মিয়া হাইকোর্টে একটি রীট আবেদন করে অদ্যাবদি সভাপতি পদের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজমান রয়েছে। ফলে স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: