সর্বশেষ আপডেট : ৩০ মিনিট ৪ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৭ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাত্রলীগ কর্মী শাহীনের ডান হাত কেটে ফেলা হলো

20638630_335872413484811_8785574332112919049_nনিজস্ব প্রতিবেদক ::
নগরীর সোবহানিঘাট এলাকায় গত সোমবার দুপুরে দুর্বৃত্তদের হামলায় গুরুতর আহত ছাত্রলীগ কর্মী শাহীন আহমদের ডান হাত কেটে ফেলা হয়েছে। পঙ্গু হাসপাতাল ও ঢাকা হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের অধীনে শাহীনের চিকিৎসা চলছে। সেখানে শাহীন ডা. এনায়েতুল্লাহ, ডা. মাহবুব ও ডা. মামুনের অধীনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ঢাকায় নেওয়ার পর শাহীনের একটি অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। এতে গুরুতরভাবে আঘাতপ্রাপ্ত শাহীনের ডান হাতের কব্জি থেকে নিচের অংশ কেটে ফেলতে হয়েছে। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তার ডান হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে সেটি জোড়া লাগানোর চেষ্টা করা হলেও তা সম্ভব হয়নি। অস্ত্রোপচারের পরেও শাহীন পুরোপুরি বিপদমুক্ত নয়। এখনও তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক। ধারালো অস্ত্রের কোপে গুরুতর জখম হওয়া শাহীনের বাম হাত ও এক পায়ের গোড়ালি ৩ অংশ কেটে যাওয়া স্থান জোড়া লাগানোর চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। এসব তথ্য জানিয়েছেন ঢাকায় শাহীনের সাথে অবস্থান করা তাঁর স্বজন ডেভিড দেলওয়ার।
তিনি আরো জানান, শাহীন ঢাকা পঙ্গু হাসপাতাল এবং হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে ডা. এনায়েতুল্লাহ, ডা. মাহবুব ও ডা. মামুনের অধীনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এখনও তার শারীরিক অবস্থার কোনো উন্নতি হয়নি বলে জানিয়েছেন ডাক্তাররা। শাহিনের চিকিৎসার ব্যপারে চিকিৎসকরা সর্বদা তৎপর রয়েছেন বলেও জানান তিনি। এদিকে শাহীনের সুস্থতা কামনায় সকলের দোয়া কামনা করেছেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা। এছাড়া এ ঘটনায় সিলেটে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অব্যাহত রেখেছে বলে জানা গেছে।
এদিকে, এ ঘটনায় সংগৃহীত ভিডিও ফুটেজ দেখে জড়িতদের শনাক্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ। তবে ভিডিও ফুটেজ থেকে কি পাওয়া গেছে, তা জানাতে অপরাগতা প্রকাশ করছে পুলিশ।
সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জেদান আল মুসা বলেন, ঘটনাস্থলের আশপাশ থেকে সংগৃহীত ভিডিও ফুটেজ বিশ্লেষণ করে দেখছে পুলিশ। ভিডিও ফুটেজ থেকে কী পাওয়া গেছে, তা তদন্তের স্বার্থে প্রকাশ করতে চাচ্ছি না।
উল্লেখ্য, গত সোমবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে দিকে নগরীর সোবহানিঘাটে জালালাবাদ কলেজের সামনে মদনমোহন কলেজ ছাত্রলীগের কর্মী ও সিলেট সদর উপজেলার পীরপুর টুকেরবাজারের নূরুল আমিনের ছেলে শাহীন আহমদ (২২) এবং জালালাবাদ কলেজের ছাত্র উপশহরের জালাল উদ্দিনের ছেলে ছাত্রলীগকর্মী আবুল কালাম আসিফকে (১৮) ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করা হয়। গুরুতর আহত শাহীনকে সোমবার রাতেই ঢাকায় প্রেরণ করা হয়। শিবির ক্যাডাররা এ হামলা চালিয়েছে বলে দাবি ছাত্রলীগের।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: