সর্বশেষ আপডেট : ৩৪ মিনিট ১৩ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ১৭ অগাস্ট, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ২ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

৬ কোটি টাকার জমি জালিয়াতি করে নামজারি : সরকারি ও পুলিশ কর্মকর্তাসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলা

dsnews10augকাইয়ুম উল্লাস, অতিথি প্রতিবেদক ::
ভোটার আইডি কার্ড জালিয়াতি করে এক নারীর ৬ কোটি টাকা মূল্যের জমি ৭৪ লাখ টাকায় নামজারি করে নেওয়ার ঘটনায় সিলেটের এক সাবেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পরিদর্শক ও নগরীর নাইওরপুলের সিলভিউ হোটেল মালিকসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলা দায়ের করা হয়েছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার সিলেটের সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতে এই মামলা দায়ের করেন বালাগঞ্জ থানার সিরাজপুর গ্রামের আবদুল বারী। মামলাটি আমলে নিয়ে আদালতে একই অভিযোগে দায়ের করা পূর্বের সিআর মামলাটি প্রত্যাহার করেন। একই সঙ্গে বর্তমান দুদক আইনের মামলাটি তদন্ত করে আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ঢাকার সচিবকে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক গোলাম মর্তুজা মজুমদার।

মামলার আসামিরা হলেন, ওসমানীনগর উপজেলার দয়ামীরের নিজ কুরুয়া গ্রামের মাসুক মিয়া, আবু উল রশীদ, আবদুল কাদির, সাবেক ইউএনও মোহাম্মদ শওকত আলী, কুরুয়া ভূমি কর্মকর্তা রতিশ দাশ, ওসমানীনগর উপজেলা ভূমি অফিসের সাবেক কানুনগো প্রমোদ কুমার ধর, নামজারি সহকারী অরুণ জৌাতি পুরকায়স্থ, অফিস পিয়ন আবদুল হালিম, দয়ামীর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নুর উদ্দিন নুনু, ইউপি সদস্য আনহার আলী, রাঘবপুর গ্রামের মাসুক মিয়া, লাফনাউটের জুলফিকার আলী এবং পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের পরিদর্শক মোহন লাল তালুকদার।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, বাদি আবদুল বারীর খালা সুলতানুন খাতুন ও খালু আবদুল মান্নান নিজ করুয়া গ্রামে নিঃসন্তান অবস্থায় মারা যান। এই দম্পত্তির মৃত্যুর পর তাদের আশ্রিত কাজের লোক মাসুক আলী নিজেকে নিঃসন্তান দম্পত্তির ছেলে দাবি করেন। মিথ্যা তথ্য দিয়ে তিনি ভোটার তালিকা ও ভোটার আইডি কার্ডে নাম তোলে একটি চক্রের যোগসাজশে ৬ কোটি টাকার সম্পত্তি হস্তগত করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হন। ১৯৭০ সালে হিন্দু মালিক থেকে সুলতানুন খাতুনের নামে ক্রয়কৃত ২.২৬ শতক জমি ভিপি (অর্পিত সম্পত্তি) থাকায় ২০০৪ সালে মৃত্যুর আগে বা পরে নামজারি করা যায়নি। ভিপি প্রত্যর্পণ আইনের খ তফসিলে উক্ত ভূমি অন্তর্ভুক্ত হলে সুলতানুন খাতুনের উত্তরাধিকারী হিসেবে মামলার বাদি আবদুল বারি প্রমুখ ভিপি থেকে প্রত্যার্পণের মামলা করেন। পরে খ তফসিলভুক্ত জমি ভিপি তালিকা থেকে বাদ পড়লে আবদুল বারী প্রমুখ বালাগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবরে নামজারি মামলা দায়ের করেন। অন্যদিকে কাজের লোক মাসুক আলী প্ররোচিত হয়ে জাল ভোটার আইডি দিয়ে পাল্টা নামজারি মামলা করেন। জাল ভোটার আইডি তৈরির খবর পেয় আবদুল বারী জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন আইন-২০১০ অনুসারে বালাগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেন। এই মামলার বিচারে কাজের লোক মাসুক আলীর দু মাসের জেল হয়। ভোটার আইডি জালিয়াতির মামলাটি বিচারধীন থাকাবস্থায় ওসমানীনগর উপজেলার সাবেক ইউএনও মোহাম্মদ শওকত আলী নামজারি মামলার কার্যক্রম শুরু করেন। মাসুক আলী পূর্বের খারিজ হওয়া মামলার তথ্য গোপন করে ওসমানীনগর উপজেলা ভূমি অফিসে নতুন নামজারি মামলা দাখিল করে মোটা অঙ্কের ঘুসের মাধ্যমে নামজারি করে নেন। ওই জমি মূল্যবান জমি পাওয়ার আশায় সিলভিউ হোটেলের মালিক আশিকুর রহমান ওই কাজের লোককে ১৭ লাখ টাকা বিনিয়োগ হিসেবে দেন। পরে সিলভিউ মালিক আশিকুর রহমান ৬ কোটি টাকার জমি তড়িঘড়ি করে মাত্র ৭৪ লাখ টাকা মূল্যে নামজারি করেন। জালিয়াতিপূর্ণ নামজারির ঘটনায় মাসুক ও আশিকুর রহমানের বিরুদ্ধে মামলা করেন আবদুল বারী। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে পিবিআই পরিদর্শক মোহন লাল তালুকদার নেতিবাচক প্রতিবেদন দেন। আদালত কৈফিয়ত তলব করলে তিনি অজ্ঞতার কথা স্বীকার করেন। পরে তিনি এই ঘটনায় জড়িত মোট ১৪ জনের বিরুদ্ধে দুদক আইনে মামলা করেন।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, সাবেক ইউএনও শওকত আলী বর্তমানে অর্থমন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব। মামলার অপর আসামি সিলভিউ হোটেলের মালিকও দেশের বাইরে আছেন। পিবিআই কর্মকর্তা মোহনলাল তালুকদার সিলেট পিবিআই অফিসে আছেন। তিনি বলেন,‘ তিনি মামলার তদন্তে কোনো ঘুস নেননি। তদন্তে যা পেয়েছেন, লিখে দিয়েছেন। আদালতে অজ্ঞতার বিষয়ে তলব করা হয়েছিল।’
মামলার বাদিপক্ষের আইনজীবী শহীদুজ্জামান চৌধুরী বলেন, মামলা তদন্তে করে প্রতিবেদন দিতে দুদকের ঢাকা অফিসকে আদেশ করেছেন আদালত।’

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: