সর্বশেষ আপডেট : ১৬ মিনিট ৪১ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ২১ অগাস্ট, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৬ ভাদ্র ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বন্যাকবলিত এলাকায় সাপ ও জোঁক আতংক

1. daily sylhet &জালাল আহমদ:: মৌলভীবাজারের বন্যাকবলিত ৫ উপজেলায় বিশেষ করে হাওরতীরের ৩ উপজেলায় সাপ ও জোঁক আতংক বিরাজ করছে। বন্যাকবলিত এসব এলাকায় সাপ ও জোঁকের বিচরণও বেড়েছে বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা। সাপের ভয়ে অনেকে রাতে ঘুমোতে পারছে না। হাওর এলাকার ভুক্তভোগী বাসিন্দরা জানিয়েছেন, দীর্ঘস্থায়ী বন্যা দেখা দেওয়ায় মূলত এসব প্রাণির উপদ্রব বেড়েছে। উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও অতিবৃষ্টির কারণে প্রায় একমাস ধরে ৫টি উপজেলায় বন্যা দেখা দিয়েছে। এর আগে এসব এলাকায় এতো দীর্ঘস্থায়ী বন্যা কখনও হয়নি। বন্যাকবলিত এলাকার ঝোঁপ ও বনজঙ্গল তলিয়ে যাওয়ায় সাপের নিরাপদ আবাসস্থল নষ্ট হচ্ছে। এ কারণে নানা প্রজাতির বিষধর ও নির্বিষ সাপ খাদ্য ও বাসস্থানের জন্য লোকালয়ে চলে আসছে।
এলাকাবাসী জানান, বন্যাকবলিত অধিকাংশ উপজেলার পাশেই ভারতীয় সীমান্ত এলাকা। এ কারণে সেখান থেকে বন্যার কারণে অতি বিষধর প্রজাতির সাপও এসব এলাকায় ঢুকে পড়ছে। বিচরণকারী সাপের মধ্যে ঢোঁড়া ও গোখরা সাপ প্রচুরসংখ্যক লোকালয়ে বিচরণ করছে। সাপের ভয়ে জেলার হাকালুকি ও কাউয়াদীঘি হাওরের জেলেরা পানিতে মাছ ধরতেও সাহস পাচ্ছেন না। এমনকি পানিতে ভেসে ভেসে এসব সাপ জনবসতিতেও ঢুকে পড়েছে।
হাকালুকি হাওর এলাকার বাসিন্দা আপ্তাব আলী, ময়না মিয়া, ছরকুম আলী, সুবেদা বেগম, নাদিয়া বেগম, সন্তোষ বিশ^াস প্রমুখ জানান, দীর্ঘস্থায়ী বন্যা দেখা দেওয়ায় হাওর এলাকার অনেক বাড়িতে সাপ ও জোঁকের উপদ্রব বেড়ে গেছে। বিষধর সাপের ভয়ে অনেকে রাতে ঘুমাতে পারছেন না। সব সময় একটা সাপের গন্ধ গন্ধ ভাব থাকে। ¯্রােতে অনেক সময় সাপ ভেসে এসে ঘরে আশ্রয় নিচ্ছে।
এলাকাবাসী জানান, উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও অতিবৃষ্টির কারণে গত ২৬ জুন থেকে জেলার ৫টি উপজেলায় বন্যা দেখা দেয়। এলাকার ঝোঁপ-জঙ্গল তলিয়ে যাওয়ায় সাপের নিরাপদ আবাস নষ্ট হচ্ছে। এ কারণে খাদ্য ও বাসস্থানের জন্য লোকালয়ে চলে আসছে সাপগুলো।
এ ব্যাপারে মৌলভীবাজার জেলা ভারপ্রাপ্ত প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মো: হেদায়াতুল্লাহ জানান, ঘরে কার্বলিক অ্যাসিড ছিটিয়ে রাখলে সাপের উপদ্রব থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। তবে তাদের কাছে এই মুহূর্তে কার্বলিক অ্যাসিড মজুদ নেই।
হাকালুকি হাওরতীরের কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা: নুরুল হক ও বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা আহম্মদ হোসেন জানান, সাপের কারণে কোনো অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা ঘটলে জরুরী চিকিৎসার জন্য উপজেলা হাসপাতাল সার্বক্ষণিক প্রস্তুত রয়েছে। তবে জনগনকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান তারা।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: