সর্বশেষ আপডেট : ৪৭ মিনিট ১৮ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

হাকালুকি হাওরতীরের তিন উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতির ফের অবনতি

MB Flood 15 07 (4)মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি:: এশিয়ার বৃহত্তম হাওর হাকালুকি হাওরপাড়ের বড়লেখা, জুড়ী ও কুলাউড়া উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতির ফের অবনতি হয়েছে। গত এক সপ্তাহ ভারী বৃষ্টিপাত না হওয়ায় বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হচ্ছিলো। কিন্তু গত শুক্রবার, বৃহস্পতিবার ও বুধবার রাতের কয়েক ঘণ্টার ভারী বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে বন্যা পরিস্থিতির আবারও অবনতি হয়েছে। ফলে আবারও বাড়িঘর রাস্তাঘাট পানিতে নিমজ্জিত হতে থাকে। ফলে হাওরতীরের বাসিন্দাদের ভোগান্তি যেনো বাড়ছেই।
সরেজমিনে জানা গেছে, হাওরতীরের ৩ উপজেলার ২৫টি ইউনিয়নের ২ শতাধিক গ্রামের ঘরবাড়ি, রাস্তাঘাট, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাটবাজার, উপাসনালয় এখনও পানিতে তলিয়ে আছে। বন্যাকবলিত এলকায় এখনও মিলছে না পর্যাপ্ত ত্রাণ। সবমিলিয়ে হাওরতীরের ২ লক্ষ ৬৫ হাজার ৩০০ জন মানুষ চরম দুর্ভোগে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। ঘরবাড়ি পানিতে ডুবে যাওয়ায় দুর্গত এলাকার অনেকেই গিয়ে উঠেছেন আশ্রয় কেন্দ্র কিংবা আত্মীয়-স্বজনদের বাড়িতে। হাওর এলাকার কৃষি ও মৎস্যজীবি মানুষগুলো কর্মহীন থাকায় নেই আয়-রোজগারও। যারা নিজ বাড়িতে রয়েছেন, পরিবার-পরিজন নিয়ে তাদের এখন অর্ধাহারে-অনাহারে দিন কাটাতে হচ্ছে। গো-খাদ্যের পাশাপাশি গোবাদি পশু রাখার জায়গা নিয়েও তারা পড়েছেন মহাবিপাকে। খাদ্য ও গৃহহীন মানুষগুলো রাত পোহালেই ত্রাণের আশায় পথ চেয়ে থাকেন।
বড়লেখার তালিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান বিদ্যুত কান্তি দাস, সুজানগর ইউপি চেয়ারম্যান নছিব আলী ও কুলাউড়ার ভুকশিমইল ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান মনির জানান, গত কয়েকদিন বৃষ্টি না হওয়ায় বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হচ্ছিলো। রাস্তাঘাট ও অনেকের বাড়িঘর থেকে পানিও নেমে যাচ্ছিলো। কিন্তু সর্বশেষ শুক্রবার, বৃহস্পতিবার ও বুধবারের বৃষ্টিপাতে হাওরে পানি বেড়েছে। পাশাপাশি উজান থেকে পানি নেমে আসছে। বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রিত মানুষজন বাড়ি ফিরতেও শুরু করেছিলেন। আবার পানি বাড়ায় আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে ঠাঁই নেয়া লোকজনের বাড়িফেরা এখন অনিশ্চিত।
মৌলভীবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ডে (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী বিজয় ইন্দ্র শংকর চক্রবর্ত্তী জানান, কুশিয়ারা নদীর পানি বিপদসীমার ৭ সে.মি ওপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় পানি কমছে না। একইসাথে উজান থেকে পানি নেমে আসায় ভোগান্তি বাড়ছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: