সর্বশেষ আপডেট : ৭ মিনিট ৫৩ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২২ জুলাই, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৭ শ্রাবণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

দেশের বাইরে এই প্রথম সামরিক ঘাঁটি তৈরি করেছে বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল দেশ চীন। আফ্রিকান দেশ জিবুতিতে ওই ঘাঁটির কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ইতোমধ্যে দুটি জাহাজে করে সেনাও প্রেরণ করেছে তারা। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, জিবুতির ওই ঘাঁটিতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে গত মঙ্গলবার দুটি চীনা জাহাজ দেশটির জানজিয়াং বন্দর থেকে যাত্রা করে। তবে জাহাজ দুটিতে ঠিক কতো সংখ্যক চীনা সেনা রয়েছে তা জানা যায়নি। চীনের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সিনহুয়া জানাচ্ছে, দেশের বাইরে প্রথম সামরিক ঘাঁটি স্থাপন করতে আফ্রিকার দেশ জিবুতির পথে রওনা হয়েছে চীনের সামরিক জাহাজের বহর। বন্ধুত্বপূর্ণ আলোচনা এবং দুই দেশের জনগণের আগ্রহের মধ্য দিয়েই এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। চীনের প্রথম বৈদেশিক নৌঘাঁটি স্থাপনে জিবুতিকে বেছে নেওয়ার কারণ হলো দেশটির কৌশলগত অবস্থান। এটি ভারত মহাসাগরের উত্তর পশ্চিম তীরে অবস্থান করছে বলে ভারতের যথেষ্ট মাথাব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে এই দুশ্চিন্তা থেকে বাদ যাবে না বাংলাদেশ, মিয়ানমার এবং শ্রীলংকাও। গত বছর থেকেই চীন জিবুতিতে নৌঘাঁটি গড়ে তোলার নির্মাণ কাজ শুরু করেছিল। এই ঘাঁটি থেকে চীন ইয়েমেন ও সোমালিয়ার তীরে শান্তিরক্ষা ও মানবিক সাহায্যের জন্য তাদের নৌবাহিনীকে ব্যবহার করবে। বুধবার দেশটির সরকার-নিয়ন্ত্রিত পত্রিকা গ্লোবাল টাইমসের সম্পাদকীয়তে বলা হয়, ‘চীনের নিরাপত্তা রক্ষার উদ্দেশ্যেই দেশের সামরিক উন্নয়ন অপরিহার্য। এটা বিশ্বকে নিয়ন্ত্রণ করার উদ্দেশ্যে নয়।’ লোহিত সাগরের দক্ষিণ প্রবেশপথে সুয়েজখালে অবস্থিত জিবুতিতে যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ও ফ্রান্সের সামরিক ঘাঁটি আগে থেকেই রয়েছে। সিএনএন।

Soldiers of China's People's Liberation Army (PLA) salute from a ship sailing off from a military port in Zhanjiang, Guangdong province, July 11, 2017. REUTERS/Stringer

S

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: দেশের বাইরে এই প্রথম সামরিক ঘাঁটি তৈরি করেছে বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল দেশ চীন। আফ্রিকান দেশ জিবুতিতে ওই ঘাঁটির কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ইতোমধ্যে দুটি জাহাজে করে সেনাও প্রেরণ করেছে তারা।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, জিবুতির ওই ঘাঁটিতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে গত মঙ্গলবার দুটি চীনা জাহাজ দেশটির জানজিয়াং বন্দর থেকে যাত্রা করে। তবে জাহাজ দুটিতে ঠিক কতো সংখ্যক চীনা সেনা রয়েছে তা জানা যায়নি।
চীনের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সিনহুয়া জানাচ্ছে, দেশের বাইরে প্রথম সামরিক ঘাঁটি স্থাপন করতে আফ্রিকার দেশ জিবুতির পথে রওনা হয়েছে চীনের সামরিক জাহাজের বহর। বন্ধুত্বপূর্ণ আলোচনা এবং দুই দেশের জনগণের আগ্রহের মধ্য দিয়েই এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। চীনের প্রথম বৈদেশিক নৌঘাঁটি স্থাপনে জিবুতিকে বেছে নেওয়ার কারণ হলো দেশটির কৌশলগত অবস্থান। এটি ভারত মহাসাগরের উত্তর পশ্চিম তীরে অবস্থান করছে বলে ভারতের যথেষ্ট মাথাব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে এই দুশ্চিন্তা থেকে বাদ যাবে না বাংলাদেশ, মিয়ানমার এবং শ্রীলংকাও।
গত বছর থেকেই চীন জিবুতিতে নৌঘাঁটি গড়ে তোলার নির্মাণ কাজ শুরু করেছিল। এই ঘাঁটি থেকে চীন ইয়েমেন ও সোমালিয়ার তীরে শান্তিরক্ষা ও মানবিক সাহায্যের জন্য তাদের নৌবাহিনীকে ব্যবহার করবে। বুধবার দেশটির সরকার-নিয়ন্ত্রিত পত্রিকা গ্লোবাল টাইমসের সম্পাদকীয়তে বলা হয়, ‘চীনের নিরাপত্তা রক্ষার উদ্দেশ্যেই দেশের সামরিক উন্নয়ন অপরিহার্য। এটা বিশ্বকে নিয়ন্ত্রণ করার উদ্দেশ্যে নয়।’ লোহিত সাগরের দক্ষিণ প্রবেশপথে সুয়েজখালে অবস্থিত জিবুতিতে যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ও ফ্রান্সের সামরিক ঘাঁটি আগে থেকেই রয়েছে। সিএনএন।
নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: