সর্বশেষ আপডেট : ১৩ মিনিট ৮ সেকেন্ড আগে
রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কুলাউড়ায় টিলাভূমি কর্তন, রেললাইনে দুর্ঘটনার আশংকা

unnamed (11)মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি:: অবৈধ উপায়ে টিলা কর্তনে সারা দেশে ভূমিধ্বসে দেশের সামরিক, আধা-সামরিক, সাধারণ মানুষের মৃত্যু ঘটেছে। কিন্তু এমন করুণ দৃশ্য দেখেও যেনো বোধোদয় হচ্ছে না মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার বরমচাল রেল স্টেশনের আশেপাশে বসত করে থাকা বাসিন্দাদের। দিনে-দুপুরে প্রশাসনের নাকের ঢগায় বসে রেললাইনের পাশের টিলাভূমি কর্তন করছে স্থানীয় কিছু ব্যক্তি। এতে কর্তনকৃত ভূমির উপরে অবস্থিত বাঁশ, গাছ ভূমিধ্বসে রেললাইন কিংবা চলমান ট্রেন বড়ো ধরণের দুর্ঘটনার শিকার হতে পারে। টিলাভূমি কর্তন বন্ধে গত ০২ জুলাই স্থানীয় বাসিন্দা মো: হানিফ বাদী হয়ে স্থানীয় হারুন মিয়া, ফুল মিয়া, রফিক মিয়াসহ অজ্ঞাত আরও ৮-১০ জনকে বিবাদী করে কুলাউড়া রেলওয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। কিন্তু রহস্যজনক কারণে প্রশাসন নীরব ভূমিকা পালন করছে।

সূত্র জানায়, বরমচাল রেলস্টেশনের পাশর্^বর্তী স্থানে রেললাইনের পাশের টিলাভূমি কেটে ফেলছে স্থানীয় কয়েক ব্যক্তি। স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তিদের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ইন্দনে এই অবৈধ কাজ করছে তারা।

গত ০১ জুলাই মাটি কর্তন করার সময় রেলের ভূমির লিজকৃত মালিক মো: হানিফ বাঁধা দিলে তারা তা উপেক্ষা করেই টিলাকাটা অব্যাহত রাখে। এ কারণে পরদিন তিনি আশেপাশের লোকজনকে ডেকে নিয়ে ঘটনাটি দেখালে নানাভাবে হুমকি প্রদর্শন করে টিলা কর্তনকারীরা। পরবর্তীতে তিনি কুলাউড়া রেলওয়ে থানা বরারবর লিখিত অভিযোগ দেন। কিন্তু প্রশাসন বিভিন্ন অজুহাতে বিষয়টি স্থানীয়ভাবে সমাধানের জন্য বাদীকে প্রস্তাব দেয়। কিন্তু স্থানীয় পর্যায়ে কোনো সমাধান হচ্ছে না। এমনকি বাদীকে নানাভাবে অভিযোগ প্রত্যাহারের চাপ দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
অভিযোগকারী মো: হানিফ জানান, অনেক বছর ধরে রেলসম্পত্তির ১.২৯ শতক ভূমি আমি লিজ নিই। আইনানুগভাবে প্রতিবছর আমি লিজকৃত ভূমির খাজনা পরিশোধ করছি। কিন্তু স্থানীয় কিছু ব্যক্তি সবসময় রাতের অন্ধকারে আমার ভূমিতে চাষকৃত বাঁশ ও গাছ কেটে নিয়ে যায়। কিন্তু এবার দেখছি সরাসরি আমার লিজকৃত রেলসম্পত্তির একটি অংশের টিলাভূমি কেটে মাটি সরিয়ে নিচ্ছে। আমি বাঁধা দিলে তারা আমাকে হুমকি দেয়। রেলওয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি, কিন্তু এখনও কোনো সুরাহা হয়নি।

কুলাউড়া রেলওয়ে থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসআই রাসেল জানান, আমরা তদন্ত করেছি। আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।
স্থানীয় চেয়ারম্যান আব্দুল আহবাব চৌধুরী শাজাহান জানান, রেলের টিলা কাটা হলে এটা অপরাধ। আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখবো।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: