সর্বশেষ আপডেট : ৮ মিনিট ২২ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ২৩ মে, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

শাকিব-বুবলির সঙ্গে শত্রুতা নেই: নিপুণ

image-39806বিনোদন ডেস্ক:: নাসরিন আক্তার নিপুণ। এই চিত্রনায়িকাকে সবাই চেনে নিপুন নামে। দুই দফা পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। ২০০৬ সালে তিনি ঢালিউডে পা রাখেন। এখন বড়পর্দায় নিয়মিত নন। তবে সম্প্রতি শাকিব-অপু ইস্যুতে শাকিব খানের বিরুদ্ধে ফেসবুকে মন্তব্য দিয়ে আলোচনায় এসেছেন। তার সঙ্গে  আলাপচারিতা..

ঈদে ছবি মুক্তির আগে দুটি পক্ষের আন্দোলন হলো। বিভক্তি এখনো আছে- এ নিয়ে কী বলবেন?
নিপুণ: এবারে ঈদে তিনটি ছবি মুক্তি পেয়েছে। বস-২, নবাব ও রাজনীতি ছবিকে বেশি হল দেওয়া হয়েছে অথচ দেশী ছবি ‘রাজনীতি’ ছবিকে কম হল দেওয়া হলো। এটা কেন হবে! তারা এমন কথা পর্যন্ত বলেছে যে, এই দুটি ছবিকে মুক্তি দেওয়া না হলে, কোনো ছবিকেই মুক্তি দিতে দেওয়া হবে না। এটা কি ধরণের কথা! একটি ঈন্ডাস্ট্রিতে কেউ এই ধরণের কথা কিভাবে বলার সাহস করতে পারে। অথচ রাজনীতি ছবির নায়কই তাদের ছবিতে আছে। একটা কথা বলতে চাই, আমি ব্যাক্তিগতভাবে কারও বিরোধী না।

ঢাকাই চলচ্চিত্রে এখন গ্রুপিং স্পষ্ট। এ থেকে উত্তরণের পথ কী?
নিপুণ: হলের মেশিন ব্যবস্থাপনাটা চলে গেছে কিছু সিন্ডিকেটের হাতে। এই সিন্ডিকেটটা ভাঙ্গতে হবে। এভাবেতো চলতে পারে না। তাদের যে ছবি ভালো লাগবে সেটিকে হল দিবে, অন্য ছবিগুলোকে হল দিবে না এভাবে হয় না। বিএফডিসিকে সবকিছুর নিয়ন্ত্রণ নিতে হবে। সরকার এ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করলে কোনো সমাধান দেখছি না। কোন সিনেমা কয়টা হলে চলবে বা চলবে না- তা নির্ভর করবে দর্শকদের ভালোলাগার উপর। কেউ দর্শকদের ভালোলাগার উপর খড়্গ চালাতে পারে না। আমি মনে করি ইন্ডাস্ট্রিকে বাঁচাতে হলে। সিন্ডিকেট সিস্টেম ভাঙতে হবে।

বর্তমান পরিস্থিতি থাকলে কারা লাভবান হবে?
নিপুণ: আমরা আসলে চলচ্চিত্রকে ভালোবাসি। ভালোবাসি বলেই এর জন্য মন্দ যে কোনো কিছু আমাদের কষ্ট দেয়। এই ইন্ডাস্ট্রিতে কিন্তু এক বা দুই জন কাজ করে না। আমার মতো হাজারো মানুষ এর সঙ্গে  জড়িত। তাদের সংসার চলে চলচ্চিত্রকে কেন্দ্র করেই। আমিও এমন একজন চলচ্চিত্র পেশাজীবী। তবে আমাকে চলচ্চিত্রের সবার কথা ভাবতে হবে। নিজের লাভের জন্য সবার ক্ষতি চাওয়ার প্রবণতা ঠিক নয়।

 যৌথ প্রযোজনার সিনেমা নিয়ে আপনার অবস্থান কী?
নিপুণ: যৌথ প্রযোজনার সিনেমাতে কিন্তু আমি কোনো সমস্যা দেখছি না। আমি এটাকে ভালোই মনে করছি। কিন্তু যৌথ প্রযোজনাকে ঘিরে যে রাজনীতি হচ্ছে, যে সিন্ডিকেট হচ্ছে- সেটা বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের জন্য মোটেও মঙ্গলজনক নয়। একটি গোষ্ঠী বা স্বার্থান্বেষী মহলের কাছে আমরা সবাই জিম্মি হতে পারি না। যৌথ প্রযোজনার যে নিয়মনীতি সেগুলো মানা হচ্ছে না। এটাকে যৌথ প্রযোজনা বলার কোনো কারণ দেখি না। তাই যৌথ প্রযোজনা হলে ইন্ডাস্ট্রি বড় হবে, যে কথাটি বলা হচ্ছে, বাস্তবে কিন্তু তা হচ্ছে না। আমরা এই কথাটাই বারবার বলার চেষ্টা করছি।’

সম্প্রতি আপনি শাকিব খানকে নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। এটি ভাইরাল হয়েছে। তার উপর কী আপনি ক্ষিপ্ত?
নিপুণ: শাকিব খান বলেন, আর বুবলি বলেন, আমার তাদের কারও সঙ্গেই ব্যক্তিগত শত্রুতা নেই। তবে সাংবাদিকদের সামনে প্রেস কনফারেন্সে যেভাবে অন্যদেরকে হেয় করে শাকিব বক্তব্য দিয়েছেন, সেটা একজন শিল্পীর জন্য সম্মানজনক না। তার ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দ থাকতে পারে, সেটা দোষের না। তবে এই বিষয়টা নিজের মধ্যে রাখা আর দেশের গণমাধ্যম আনা ঠিক নয়। গণমাধ্যমকর্মীদের সামনে অন্যদের ছোট করার অধিকার তার নেই।

যৌথ প্রযোজনার বিষয়ে শাকিব খানের বর্তমান অবস্থান নিয়ে আপনি কী অসন্তুষ্ট?
নিপুণ: তিনিতো নিজেও এক সময় যৌথ প্রযোজনার ছবির বিরোধী ছিলেন। কয়েক বছর আগে তো তিনিও কাফনের কাপড় বেধে আন্দোলন করেছেন। উনি যখন নিজেই নিজেকে ‘স্টার’ বলেন আর সাংবাদিকদের সামনে সিনিয়রদের সম্পর্কে যা-তা বলেন, তা তার সঙ্গে যায় না। একটি গাছ যখন বড় হতে থাকে, তখন তাকে নুতে হয়। যে যত গুণী সে তত বিনয়ী হবে। এটা না হলে বড় হতে হতে এক সময় বড়ো গাছ ভেঙে পড়ে। শিল্পী সমাজও কিন্তু এই নিয়মের বাইরে না।




নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: