সর্বশেষ আপডেট : ১ মিনিট ৮ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

হরিধানের উদ্ভাবক হরিপদ কাপালী আর নেই

1499340991নিউজ ডেস্ক:: হরিধানের উদ্ভাবক বেশকিছু কৃষি প্রাপ্ত কৃষক ঝিনাইদহের হরিপদ কাপালী মারা গেছেন।

বৃহস্পতিবার ভোরে সদর উপজেলার আসাননগর গ্রামের নিজ বাড়িতে তিনি বার্ধক্যজনিত কারণে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৫ বছর।

হরিপদ কাপালী ১৯৯৬ সালে উদ্ভাবন করেন নতুন প্রজাতির এক ধান। তার নামের সঙ্গে মিল রেখেই এ ধানের নামকরণ করা হয় ‘হরিধান’। হরিধান একটি বিশেষ জাতের উচ্চ ফলনশীল ধান। এ আবিষ্কারের সূত্র ধরে সারাদেশে ছড়িয়ে পরে তার নাম। তিনি কৃষিতে পেয়েছেন বিভিন্ন পর্যায়ের পুরস্কার ও সম্মাননা।

১৯৯৬ সালে নিজের ধানের জমিতে একটি ছড়া খুঁজে পান হরিপদ কাপালী। ধানের গোছা বেশ পুষ্ট এবং গাছের সংখ্যা তুলনামূলকভাবে বেশি। এ ছড়াটি তিনি নজরদাড়িতে রাখেন। ধানের শীষ বের হলে তিনি দেখতে পান শীষগুলো অন্য ধানের চেয়ে দীর্ঘ, এবং প্রতিটি শীষে ধানের সংখ্যাও বেশি। ধান পাকলে তিনি আলাদা করে বীজ ধান হিসেবে রেখে দেন। পরের মৌসুমে এগুলো আলাদা করে আবাদ করলেন এবং আশাতীত ফলন পেলেন।

এ ভাবে তিনি ধানের আবাদ বাড়িয়ে চললেন। আর নিজের অজান্তেই উদ্ভাবন করলেন এক নতুন প্রজাতির ধান, হরিধান। এ ধানের সুনাম ছড়িয়ে পড়ে। নিজ গ্রাম ছাড়াও আশেপাশের গ্রামের চাষিরা তার কাছ থেকেও বীজ সংগ্রহ করে চাষ শুরু করে। ঝিনাইদহ ছাড়া অন্য জেলার চাষিরা এসে বীজ নিয়ে যায় তার পরে চাষের বিস্তার ঘটে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের নজরে আসেন হরিপদ কাপালী।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: