সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
বৃহস্পতিবার, ২০ জুলাই, ২০১৭, খ্রীষ্টাব্দ | ৫ শ্রাবণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

আজ বিশ্ব বিকিনি দিবস : বিকিনির ইতিহাস অনেকেরই অজানা

bikini 001লাইফ স্টাইল ডেস্ক ::
আজ ৫ জুলাই। বিশ্ব বিকিনি দিবস। গত বছরই সত্তর বছর পূর্ণ করল এই স্নান পোশাক। সুন্দরী মডেল, হলিউডি অভিনেত্রীরা যেমন এই পোশাকে ঝড় তোলেন বহু হৃদয়ে, তেমনই দেশ-বিদেশের হাজার হাজার বিচে এই পোশাকে ছুটি উপভোগ করেন সাধারণ মহিলারাও। আর কোনও পোশাক আছে যা একই সঙ্গে ক্যাজুয়াল, কমফর্টেবল, সেক্সি আবার দুর্দান্ত ফ্যাশনেবল?

বিকিনি। টলিউড এখন এই সাহস দেখাচ্ছে বটে। তবে বলিউডে বিকিনি পরার ট্রেন্ড শুরু হয়েছে অনেক আগেই। মনে পড়ে ‘অ্যান ইভনিং ইন প্যারিস’এর শর্মিলা ঠাকুরকে? ষাটের দশকে বিকিনিতে সেজে পুরুষ-হৃদয়ে আগুন জ্বালিয়েছিলেন তিনি। তাঁর স্টাইল স্টেটমেন্টের পাশাপাশি সে ছিল দুরন্ত সাহসেরও মেসেজ। তবে তখনও নায়িকার শরীরে বিকিনি তেমন প্রচলিত ছিল না। পার্শ্ব নায়িকা বা মডেলরাই বিকিনিতে স্বচ্ছন্দ ছিলেন। সময় বদলেছে। এখন চরিত্রের প্রয়োজনে বিকিনি পরছেন সব নায়িকাই। তবে সকলকেই কি মানায় তাতে? বিকিনি শরীর তৈরি করাটাও অভিনেত্রীদের কাছে সহজ নয়। প্রচুর পরিশ্রম তো আছেই সঙ্গে প্রয়োজন উচ্চতা, সুঠাম লম্বা পা আর আত্মবিশ্বাস।

bikini 003বিকিনি আর ব্রা – এ দুয়ের মাঝে পার্থক্য আছে। ব্রা যা ব্রেষ্ট এ পরিধেয়, বিকিনির ২টা পার্ট, টপ ও বটম(প্যান্টি) – এটি ত্রি কোনাকার হবে যা ব্রাতে বাধ্যতা মুলক নয়, বিকিনির বটমও আপের মত একই কাপড়ের / রং ‘র হয়। ১৯৪৬ সালে মেরিন এ পোশাক ফ্যাশন জগতে নিয়মিত পোশাক হয়ে উঠে। ৫ জুলাই আন্তর্জাতিক বিকিনি দিবস, যা ফ্রেন্চ ফ্যাশন ডিজাইনার Louis Reard আবিষ্কার করেন। বর্তমান দুনিয়ার জনপ্রিয় বিকিনি ডিজাইনারদের অন্যতম হলেন Anne Cole family।

বিকিনির ইতিহাস:
বিকিনি (ইংরেজি: Bikini) মূলত মেয়েদের ব্যবহৃত একপ্রকার সাঁতারের পোষাক। দুই প্রস্থ কাপড় দ্বারা এটি তৈরি, যা শরীরকে স্বল্পভাবে ঢেকে রাখে। এর একটি অংশ স্তন ও অপর অংশটি উরুসন্ধি এবং নিতম্বকে ঢেকে রাখে। যদিও নিতম্ব ঢেকে রাখার শর্তটি ঐচ্ছিক। এর দুইটি অংশের মধ্যবর্তী অংশ সাধারণত অনাবৃত থাকলেও ট্যানকিনি ধরনের বিকিনির ক্ষেত্রে তা প্রযোজ্য নয়। সাধারণত গরম আবহাওয়ায় এবং সাঁতার কাটার সময় বিকিনি পরিধান করা হয়। বিকিনির দুইটি অংশ মেয়েদের পৃথক দুটি অন্তর্বাস হিসেবে ব্যবহৃত হতে পারে। নিচের অংশটি সীমা থং বা জি-স্ট্রিং থেকে শুরু করে তুলনামূলক আবৃত চৌকোণা শর্টস পর্যন্ত হতে পারে। মারিয়াম-ওয়েবস্টার অভিধানে (১১তম সংস্করণ) বিকিনিকে ‘মেয়েদের দুই প্রস্থ বিশিষ্ট গোসলের পোষাক’, ‘ছেলেদের ব্রিফ সাঁতারের পোষাক’, এবং ‘ছেলে বা মেয়েদের লো-কাট ব্রিফ’ হিসেবে অভিহিত করা হয়েছে।

bikini 004আধুনিক বিকিনির আবিস্কার হয় ১৯৪৬ সালে, এবং আবিস্কারক ছিলেন ফরাসী অটোমোবাইল ইঞ্জিনিয়ার লুই রিয়ার্ড। একই বছরের জুলাইয়ে, প্রশান্ত মহাসাগরের দ্বীপ বিকিনি অ্যাটলে অনুষ্ঠিত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পারমাণবিক পরীক্ষা অপারেশ ক্রসরোডসের নামানুসারে তিনি তাঁর সদ্য আবিস্কৃত পোষাকের নাম রাখেন বিকিনি। এই নামটি রাখার কারণ সম্ভবত পোষাকটির কারণে জনমানুষের মধ্যে বিদ্যমান উত্তেজনার বিস্ফোরণ, যা অনেকটা পারমাণবিক বিস্ফোরণের মতোই ব্যাপক ছিলো।

১৯৪৯ সালে প্রকাশিত লস অ্যাঞ্জেলস টাইমস-এর এক প্রতিবেদনে ১৯৪৮ সালে মিস আমেরিকা নির্বাচিত হওয়া বেবে শপের উদ্ধৃতি হিয়ে বলা হয়েছে: “বাথিং বিউটি কুইন—সোনালি চুলের অধিকারিনী হপকিন্স, মিনেসোটার ১৮ বছর বয়সী বেবে শপ, প্যারিসে এক আনন্দোচ্ছাসপূর্ণ অভ্যর্থনা পান, কিন্তু ফরাসি সাঁতারের পোষাকের ব্যাপারে তাঁর মনোভাব তিনি পরিবর্তন করেননি।

বেবে তাঁর ফরাসি সাক্ষাৎকার গ্রহণকারীকে বলেন, ‘আমি বিকিনিকে আমেরিকান মেয়েদের জন্য উপযোগী মনে করি না, ফরাসি নারীরা চাইলে বিকিনি পরতে পারে, কিন্তু আমি এখনো আমেরিকান মেয়েদের ক্ষেত্রে বিকিনি ব্যবহার গ্রহণযোগ্য মনে করি না।’ বিকিনি সম্ভবত বিশ্বজুড়েই সবচেয়ে জনপ্রিয় মেয়েদের বিচওয়্যার। ফরাসি ফ্যাশন ডিজাইনার ওলিভিয়ের স্যালিয়ার্ডের মতে, “নারীর শক্তি, ফ্যাশনের নয়”। তিনি এটিকে ব্যখ্যা করেন এভাবে—“নারী স্বাধীনতা সবসময়ই নারীর সাঁতারের পোষাকের সাথে সংশ্লিষ্ট।” ভোক্তা ও খুচরা বিক্রি সংক্রান্ত তথ্য সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান এনপিডি গ্রুপের ভাষ্য অনুযায়ী, ২০০০-এর দশকের মাঝামাঝি শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই বিকিনি শিল্পে মোট ব্যবসা হয়েছে প্রায় ৮১.১ কোটি মার্কিন ডলার। এছাড়া বিকিনি, বিকিনি ওয়াক্সিং ও স্যান ট্যানিং শিল্পেও বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছে।

bikini 002

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: