সর্বশেষ আপডেট : ৪ মিনিট ৪৬ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮, খ্রীষ্টাব্দ | ১২ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছবিতে দুই মেয়ের মাঝে মা : কে বলবে তার বয়স ৬৩ বছর

ZZZZZZZZZZচিত্রবিচিত্র ডেস্ক ::
পৃথিবীর একমাত্র পরিবার অবিশ্বাস্যভাবে যারা নিজেদের তারুণ্য ধরে রেখেছেন। সবার থেকে এগিয়ে তো বটেই। ছবিটা দেখুন। খুব ভালো মতো দেখলেও মনে হবে, টিনএজ বয়সী বা টিনএজ পেরিয়েছে এমন তিন বোন বলেই মনে হবে। কিন্তু মোটেও না। বিশ্বাস হবে না আপনার। কিন্তু এটাই সত্য যে, ছবির মাঝখানের নারী একজন মা এবং তার বয়স ৬৩ বছর। তার দুই পাশে দুই মেয়ে। ডানের জন লুরে সু, তার বয়স ৪১। আর বামের জন শ্যারন, বয়স ৩৬।

বয়স বেড়েছে ঠিকই। কিন্তু তারুণ্য ধরে রাখতে এদের চেয়ে এগিয়ে আছেন এমন কাউকে দেখেছেন কোন দিন? দেখা তো দূরের কথা, আপনি হয়তো ভাবতেও পারেন না।

একজন ফ্যাশন ব্লগার লুরে সু। যার বদৌলতে অনেকেই তাকে চেনেন। তার বয়স জানার পর অনেকেই ভিড়মি খেয়েছেন। কিন্তু তার মা এবং অন্য বোনও যে বিস্ময়ের আধার, তা আগে কেউ জানতেন না। শ্যারন ছাড়াও লুরের আরেক বোন আছেন। তার নাম ফেফায়। তার বয়স ৪০। তিনিও তারুণ্য ধরে রেখেছেন অবিশ্বাস্যভাবে।

তাইওয়ানের এই পরিবারের পেছনের গূঢ় রহস্যটা কী? দেশটির বিখ্যাত ম্যাগাজিন ফ্রাইডেকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তারা জানান, প্রচুর পানি আর সবজি খেতেন তারা। সেই সঙ্গে ত্বককে ময়েশ্চারাইজারপূর্ণ রাখতে হবে। আপনার ত্বকে যথেষ্ট পানি থাকলে তার বুড়িয়ে যাওয়া নিয়ে আর চিন্তা করতে হবে না। ফেফায় তো প্রতিদিন সকালে বড় একটি গ্লাসে হালকা গরম পানি খেতেন। এ কাজ তিনি এক যুগেরও বেশি সময় ধরে করছেন। তারা যাই করেন না কেন, তবুও বিশ্বাস করতে কষ্ট হয় সবার। বয়স এতটা সামলে রাখা সম্ভব?

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭, ০১৭১৭ ৬৮ ১২ ১৪ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: